বাড়ি মুক্ত মতামত *বাবা যেই হোক নুশরতই সন্তানের মা । তসলিমা নাসরিন*

*বাবা যেই হোক নুশরতই সন্তানের মা । তসলিমা নাসরিন*

32
*বাবা যেই হোক নুশরতই সন্তানের মা । তসলিমা নাসরিন*

*নুশরতের খবর বেশ চোখে পড়ছে। তিনি প্রেগনেন্ট। তাঁর স্বামী নিখিল এ ব্যাপারে কিছু জানেন না। দুজন আলাদা থাকছেন ছ’মাস হলো। তবে যশ নামে এক অভিনেতার সঙ্গে অভিনেত্রী নুশরত প্রেম করছেন। সন্তানের পিতা, মানুষ অনুমান করছে, যশ; নিখিল নয়। খবরটি খবর না গুজব জানিনা। তবে এই যদি পরিস্থিতি হয়, তবে নিখিল আর নুশরতের ডিভোর্স হয়ে যাওয়াই কি ভালো নয়? অচল কোনও সম্পর্ক বাদুড়ের মতো ঝুলিয়ে রাখার কোনও মানে হয় না। এতে দু’পক্ষেরই অস্বস্তি।*

*যখন নুশরত আর নিখিল বিয়ে করলেন, বেশ আনন্দ পেয়েছিলাম। ঠিক যেমন আনন্দ পেয়েছিলাম সৃজিত আর মিথিলার যখন বিয়ে করেছিলেন। অসাম্প্রদায়িকতায় বিশ্বাস করি বলে দুই ধর্মের মানুষের মধ্যে বিয়ে হলে খুব স্বাভাবিক কারণেই পুলকিত হই। জাত ধর্ম ইত্যাদি দূর করতে হলে ভিন্ন জাত আর ভিন্ন ধর্মের মানুষকে আত্মীয়তার বন্ধনে আবদ্ধ হতে হবে। এতেই হিংসে আর হানাহানিকে হটানো যাবে। কিন্তু এত চোখ জুড়োনো জুটি যে বেশিদিন সুখে থাকবে না কে জানতো!*

*সেদিন ব্রাত্যর একটি ছবিতে নুশরতকে দেখলাম। ওটিই নুশরতের প্রথম কোনও ছবি আমার দেখা। মেয়েটি অনেকটা অ্যানজেলিনা জোলির মতো দেখতে, অভিনয়ও করে বেশ চমৎকার। নিশ্চয়ই মেয়েটি স্বনির্ভর। আসলে স্বনির্ভর এবং সচেতন হলে, আত্মবিশ্বাস এবং আত্মসম্মান যথেষ্ট থাকলে নিজের সন্তানের অভিভাবক নিজেই হওয়া যায়। নিজের সন্তানকে নিজের পরিচয়েই বড় করা যায়। পুরুষের মুখাপেক্ষী হতে হয় না। আসলে নিখিল এবং যশের মধ্যে কী এমন আর পার্থক্য! পুরুষ তো শেষ পর্যন্ত পুরুষই। এক জনকে ত্যাগ করে আরেক জনকে বিয়ে করলে খুব যে সুখময় হয়ে ওঠে জীবন তা তো নয়। দ্বিতীয় বিষময় জীবন থেকে বাঁচতে তাহলে কি আবার আরেকটি বিয়ে করতে হবে? তাহলে এ রেসের শেষ হবে না, কাংক্ষিত পুরুষের দেখাও মিলবে না। স্বাধীনচেতা নারীর কাংক্ষিত পুরুষ কল্পনায় থাকে, বাস্তবে নয়।*

*আনন্দবাজারের প্রতিবেদন: মা হচ্ছেন নুসরাত! ‘সন্তানের বাবা কে’?*

*নিখিল-নুসরাত-যশ, গত ৬ মাস ধরেই এই ৩ তারকার জীবনের সুতোগুলো একে অপরের সঙ্গে জড়িয়ে গেছে। প্রেম, বিয়ে, বিচ্ছেদের একাধিক ঘটনা বার বার প্রকাশ্যে চলে এসেছে। কিন্তু এবার সাংসদ ও অভিনেত্রী নুসরাত জাহানের জীবন সব থেকে উল্লেখযোগ্য মোড় নিল। তিনি মা হতে চলেছেন। এরপর থেকে একটাই প্রশ্ন ঘুরে বেড়াচ্ছে, ‘সন্তানের জন্মদাতা কে’?*

*প্রেম করে বিয়ে অভিনেত্রী-সাংসদ নুসরাত জাহান এবং ব্যবসায়ী নিখিল জৈনের। ২০১৯ সালে তুরস্কে গিয়ে বিয়ে করছিলেন তাঁরা। যদিও বিয়ের রেজিস্ট্রেশন হয়নি। ক্রমশ নিখিলের ব্যবসার মুখ হয়ে ওঠেছিলেন অভিনেত্রী। নিখিলও স্ত্রী-কে খুশিতে ভরিয়ে রাখতেন। এই সম্পর্কের জন্য নিখিল তাঁর পরিবারের সঙ্গে লড়াইও করেছিলেন।*

*বিয়ের কয়েক মাস পরেই আচমকা শোনা যায় নুসরাতকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গুঞ্জন, নিখিলের সঙ্গে মনোমালিন্য হওয়ায় আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেছিলেন অভিনেত্রী। তবে নুসরাত আনন্দবাজারকে জানিয়েছিলেন, সে সব গুজব। তাঁর শরীর খারাপ হয়েছিল, তাই হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। কিন্তু দাম্পত্যের তাল কাটতে বেশি দিন লাগেনি। তার মাঝেই প্রেমে পড়েন নুসরাত! অভিনেতা যশ দাশগুপ্তের সঙ্গে নাম জুড়ল তাঁর। তার আগে থেকেই পর্দায় দু’জনের সমীকরণ নিয়ে দর্শকদের মধ্যে মাতামাতি ছিল। পর্দার প্রেম ধীরে ধীরে বাস্তবে পরিণত হলো। একসঙ্গে ছবিতে কাজ করতে গিয়েই যশের প্রেমে পড়েন নুসরাত।*

*২০১৭ সালে যুগলের প্রথম ছবি- ‘ওয়ান’। তখন থেকে তাঁদের আলাপ, বন্ধুত্ব। তার পর ২০২০ সালে ‘এসওএস কলকাতা’-র শুটিংয়ের সময় থেকে ঘনিষ্ঠতা বাড়ে যশ এবং নুসরাতের মধ্যে। যশের সঙ্গে বেড়াতে গিয়েছিলেন নুসরাত। এরপর মদন মিত্রের সঙ্গে দক্ষিণেশ্বর মন্দিরেও দেখা যায় ‘যশরত’কে। পরে দ্রুত বদলে যেতে থাকে নিখিল-নুসরাতের সম্পর্কের সমীকরণ। নুসরাত বালিগঞ্জের ফ্ল্যাটে একা থাকতে শুরু করেন। যশ এখন বেশির ভাগ সময় ওই ফ্ল্যাটেই নুসরতের সঙ্গে সময় কাটান।*

*স্বামী নিখিল জৈনের সঙ্গে দাম্পত্যে ফাঁটল ধরে। এখন প্রায় ৬ মাস একসঙ্গে থাকেন না তাঁরা। নুসরাতের সঙ্গে যশের ঘনিষ্ঠতাকে ‘নোংরামি’ বলেও কটাক্ষ করা হয়েছিল তখন। সেই আক্রমণের রেশ এখনও কাটেনি। রাজনৈতিক দায়িত্ব বা পোশাক নিয়ে তো বটেই, যশের সঙ্গে নাম জড়িয়ে বার বার কটাক্ষের শিকার হয়েছেন অভিনেত্রী। কিন্তু তাঁদের প্রেমের গুঞ্জনে নয়া মোড় এলো বিধানসভা নির্বাচনের সময়ে। তৃণমূল সাংসদ নুসরাতের সঙ্গে প্রেম করাকালীন সবাইকে চমকে দিয়ে আচমকাই বিজেপি-তে যোগ দেন যশ। বিধানসভা ভোটে লড়াইও করেন। যদিও জিততে পারেননি। কিন্তু তাতে যুগলের সম্পর্কে কোনো আঁচ পড়েনি। নির্বাচনী প্রচারের মাঝে তাঁরা ‘ডেট’-এও গিয়েছেন।*

*বেশ কয়েক দিন হলো যশ ও নুসরাত নিজেদের প্রেম কাহিনি সামনে আনতে শুরু করেছেন। নেটমাধ্যমে একে অপরের তোলা ছবি দেওয়া থেকে শুরু করে একই ছবি নিজেদের ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে দেওয়া থেকেই বোঝা যায় সময়ের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে লুকোছাপার জড়তা কেটেছে। ৪ জুন নুসরতের জীবনের সুখবর ছড়িয়ে পড়ে। জানা যায়, তিনি মা হতে চলেছেন। অভিনেত্রীর ঘনিষ্ঠমহলের খবর, এক মাসের অন্তঃসত্ত্বা তিনি। খবর ছড়িয়ে পড়ার পরে নুসরত ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, ‘তুমি তোমার মতো করে প্রস্ফুটিত হবে’। অভিনেত্রী এখনও এ বিষয়ে নিজে কিছু বলেননি। তবে তাঁর ঘনিষ্ঠমহল থেকে জানা যাচ্ছে, যশ দাশগুপ্তের সঙ্গে জীবনের এই নতুন অধ্যায় শুরু করতে চলেছেন তিনি।*

*অন্য দিকে আনন্দবাজারকে নিখিল জানিয়েছেন, এই সন্তানের জনক তিনি নন। তাঁর কথায়, ‘এখন যে নতুন সঙ্গীর সঙ্গে ও আছে, তার সঙ্গেই ভালো থাক। ঈশ্বর ওদের মঙ্গল করুন।’ মা হওয়ার খবর প্রকাশ পেতেই ফের সমালোচনার মুখে নুসরাত। নেটাগরিকদের একটাই প্রশ্ন, ‘সন্তানের বাবা কে’? নেতিবাচকতার মধ্যেও অসংখ্য শুভেচ্ছাবার্তায় ভরে গেছে নেটমাধ্যম। অনাগত সন্তানের সুস্বাস্থ্য কামনা করছেন ভক্তরা।*

পূর্ববর্তী নিবন্ধ*সুপার শপ ও শোরুমের নারী বিক্রয়কর্মী টিকটকারদের টার্গেটে*
পরবর্তী নিবন্ধ*বাজেটের পর সরকারের বড় ধরনের পরিবর্তন হতে যাচ্ছে?*