প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয় দেশের পরিবেশ নষ্ট করার চেষ্টা করছে ষড়যন্ত্রকারী গোষ্ঠী: প্রধানমন্ত্রী

দেশের পরিবেশ নষ্ট করার চেষ্টা করছে ষড়যন্ত্রকারী গোষ্ঠী: প্রধানমন্ত্রী

47
দেশের পরিবেশ নষ্ট করার চেষ্টা করছে ষড়যন্ত্রকারী গোষ্ঠী: প্রধানমন্ত্রী

দেশের অগ্রগতি ষড়যন্ত্রকারী গোষ্ঠীর পছন্দ হয় না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, দেশ নিয়ে, সমাজ নিয়ে যখন ষড়যন্ত্র সফল হয় না, তখনই দেশের একটি শ্রেণি সমালোচনামুখর হয়।
সোমবার সকালে মন্ত্রিপরিষদের নিয়মিত বৈঠকের শুরুতে গণভবন থেকে অনলাইনে সংযুক্ত হয়ে তিনি এসব কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের সুন্দর পরিবেশ নষ্ট করে সংঘাত সৃষ্টির পায়তারা করছে একটি মহল। বাংলাদেশের কোনো অগ্রগতি সেই গোষ্ঠীর পছন্দ হয় না।
তিনি বলেন, একটা ভালো পরিবেশকে নষ্ট করার জন্য, সংঘাত সৃষ্টি করার জন্য তারা বক্তব্য দেবে। আর তাদের ধরা হলে সেটাকে বলা হবে বাক স্বাধীনতা হরণ করা, এটা তো হয় না।

দেশ নিয়ে, সমাজ নিয়ে যখন ষড়যন্ত্র সফল হয় না। তখনই দেশের একটি শ্রেণি সমালোচনামুখর হয় বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।
তিনি আরও বলেন, তারা চায় বাংলাদেশ ভিক্ষুক হয়ে থাকবে। অন্যের কাছে হাত পেতে চলবে। যখনই সেই অবস্থার পরিবর্তন হতে শুরু করেছে, দেশবিরোধী ওই গোষ্ঠীর গায়ে জ্বালা ধরে গেছে। আর তারা উস্কানিমূলক বক্তব্য দিতে শুরু করেছে।
এসময় করোনার দ্বিতীয় ওয়েব রোধে ‘নো মাস্ক নো সার্ভিস’কে জোরদার করতে নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

মন্ত্রিসভায় অনুমোদন: নতুন বছরে সরকারি ছুটি ২২ দিন
আসছে নতুন বছরে মোট ২২ দিন সরকারি ছুটি ভোগ করবে বাংলাদেশ, যার মধ্যে সাত দিন পড়েছে সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্র ও শনিবার।
সোমবার (২ নভেম্বর) প্রধানমন্ত্রী শেখ হসিনার সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল মন্ত্রিসভার বৈঠকে ‘২০২১ খ্রিস্টাব্দের ছুটির তালিকা’ অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম ছুটির তালিকা অনুমোদনের কথা জানান।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আগামী বছরের জন্য ১৪ দিন সাধারণ ছুটি এবং নির্বাহী আদেশে আটদিন সরকারি ছুটি মিলিয়ে মোট ২২ দিন ছুটি থাকবে। এরমধ্যে সাতদিনের ছুটি শুক্রবার ও শনিবারের সাপ্তাহিক ছুটির দিনে পড়েছে।
বিভিন্ন ধর্মীয় উৎসবে ঐচ্ছিক ছুটির ব্যবস্থা রাখা হয়েছে জানিয়ে আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, মুসলমানদের জন্য ঐচ্ছিক ছুটি রাখা হয়েছে পাঁচদিন, হিন্দুদের জন্য আটদিন, খ্রিস্টানদের জন্য আটদিন এবং বৌদ্ধদের জন্য পাঁচদিন।
মন্ত্রিসভা আসছে নতুন বছরের ছুটির তালিকা অনুমোদন করায় এখন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে আদেশ জারি করবে।