প্রচ্ছদ রাজনীতি এমপি নিক্সনের কাছে বারবার পরাজিত জাফর উল্লাহর

এমপি নিক্সনের কাছে বারবার পরাজিত জাফর উল্লাহর

42
এমপি নিক্সনের কাছে বারবার পরাজিত জাফর উল্লাহর

ফরিদপুরে দ্বন্দ্ব এখন আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বে রূপ নিয়েছে। আওয়ামী লীগের হেভিওয়েট নেতা প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফর উল্লাহর সঙ্গে সতন্ত্র সংসদ সদস্য নিক্সন চৌধুরির বিরোধ এখন ফরিদপুরের রাজনীতিতে উত্তাপ ছড়াচ্ছে। কাজী জাফর উল্লাহ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য। অন্যদিকে নিক্সন চৌধুরি আওয়ামী লীগের কেউ নন। পারিবারিক সূত্রে আওয়ামী লীগের সঙ্গে সম্পর্কিত।
কিন্তু নিক্সন চৌধুরির বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ার জন্য আওয়ামী লীগের কোন কেন্দ্রীয় নেতাকে পাচ্ছেন না কাজী জাফর উল্লাহ। গতকাল শনিবার (১৭ অক্টোবর) কাজী জাফর উল্লাহ নিক্সন চৌধুরির বিচারের দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচি ডেকেছিলেন। পাল্টা কর্মসূচী হিসেবে নিক্সন চৌধুরির সমর্থকরা প্রতিবাদ সমাবেশ কর্মসূচি দিয়েছিল। আর এজন্য স্থানীয় প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারী করেছিল।

কিন্তু লক্ষ্যণীয় ব্যাপার যে, ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে নিক্সন চৌধুরির কর্মী-সমার্থকরা মিছিল করেছে। অপরদিকে কাজী জাফর উল্লাহর লোকজন সেখানে কোন কর্মসূচি পালন করতে পারেনি। ফরিদপুর ৪ আসনের যে নির্বাচনী এলাকা সেটি এখন পর্যন্ত নিক্সন চৌধুরির দখলে রয়েছে। নিক্সন চৌধুরীকে কোণঠাসা করার জন্য আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের সমর্থন এবং সহযোগীতা চেয়েছিলেন কাজী জাফরুল্লাহ। কিন্তু নিক্সন চৌধুরি আওয়ামীলীগের কেউ নন, এরকম যুক্তি দিয়ে সবাই এড়িয়ে গেছেন। কেউই নিক্সন চৌধুরির বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে কেউ মুখ খুলছেন না, অবস্থান নিচ্ছেন না। এরকম পরিস্থিতিতে ফরিদপুরের লড়াইয়ে ক্রমশ্য নিঃসঙ্গ হয়ে পড়ছে কাজী জাফর উল্লাহ।

হাইকোর্টে আগাম জামিনের আবেদন নিক্সন চৌধুরীর
নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় হাইকোর্টে আগাম জামিন আবেদন করেছেন ফরিদপুর-৪ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মুজিবর রহমান চৌধুরী ওরফে নিক্সন চৌধুরী।
রোববার (১৮ অক্টোবর) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই আবেদন করা হয়। পরে এ বিষয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি শেখ মো. জাকির হোসেন ও বিচারপতি কে এম জাহিদ সারোয়ার কাজলের বেঞ্চে নিক্সন চৌধুরীর জামিনের শুনানির জন্য গেলে আগামী মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) দিন ধার্য করেছেন।