প্রচ্ছদ জীবন-যাপন ভিপি নুর পরকীয়ায় আসক্ত, সেক্সসুয়ালি পারভার্টেড!

ভিপি নুর পরকীয়ায় আসক্ত, সেক্সসুয়ালি পারভার্টেড!

493
ভিপি নুর পরকীয়ায় আসক্ত, সেক্সসুয়ালি পারভার্টেড!

নিজেকে ছাত্রদের প্রতিনিধি দাবি করলেও এবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুরের বিরুদ্ধে এবার ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী বাদী হয়ে রাজধানীর লালবাগ থানায় মামলাটি দায়ের করেছেন। জানা গেছে, দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার, তদবির বাণিজ্যের পর ধর্ষণের মতো ঘৃণ্য অভিযোগ ওঠায় ভিপি নুরের ভয়ংকর চরিত্র উন্মোচিত হওয়ায় বিস্ময় প্রকাশ করেছেন তার সহকর্মীরা।
একাধিক ঘনিষ্ঠ সূত্র বলছে, ভিপি নুর নিজেকে শিক্ষার্থীদের কথিত প্রতিনিধি দাবি করলেও মূলত তিনি একজন যৌন নিপীড়ক ও বিকৃত রুচির মানুষ। বিবাহিত হওয়া সত্ত্বেও একাধিক নারীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তাদের সাথে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন ভিপি নুর। ভিপির পরিচয় ব্যবহার করে ঢাবির একাধিক নারী শিক্ষার্থীদের কথিত সমস্যা সমাধানের নামে তাদের নিপীড়ন করেছেন বলেও জানা গেছে। এছাড়া প্রভাবশালী মহলের সাথে পরিচয় ব্যবহার করে তিনি বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীর কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নেয়ারও অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। ভিপি নুরের কথার প্রলোভনে পড়ে তার সাথে অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার কারণে কয়েকজন নারীর সংসার ভেঙেছে বলেও জানা গেছে।

এদিকে ভিপি নুরের একজন সাবেক সহযোদ্ধা পরিচয় গোপন রাখার শর্তে বলেন, ভিপি নুর চরিত্রহীন, যৌন নিপীড়ক ও অর্থলোভী। ছাত্রদের প্রতিনিধি হিসেবে নিজেকে পরিচয় দেয়ার আড়ালে তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার, তদবির বাণিজ্য করে বিপুল পরিমাণ অর্থ-বিত্তের মালিক হয়েছেন নুর। বিবাহিত হওয়ার পরও তিনি পরকীয়ায় আসক্ত। এসব নিয়ে স্ত্রীর সাথে প্রায়শই তার ঝগড়া-বিবাদ হতো।
তিনি আরো বলেন, একবার তো বাসায় পরনারীর সাথে ভিপি নুরকে অসংলগ্ন ও বিবস্ত্র অবস্থায় দেখতে পেয়ে তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে তালাক দেয়ারও সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। পরবর্তীতে ক্ষমা চেয়ে তিনি স্ত্রীকে ম্যানেজ করতে পেরেছিলেন। ভিপি নুর সেক্সসুয়ালি পারভার্টেড মানুষ। বিকৃত যৌনরুচির কারণে নারী শিক্ষার্থীরা সব সময় ভিপি নুরকে এড়িয়ে চলতেন। ধর্ষণের যে অভিযোগ উঠেছে নুরের বিরুদ্ধে, তার সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি। ভণ্ড নুরের আসল চেহারা উন্মোচন করা উচিত।