প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয় *একের পর এক শব্দবো’মা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর*

*একের পর এক শব্দবো’মা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর*

44
*একের পর এক শব্দবোমা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর*

*একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য করার জন্য আলোচিত ও সমালোচিত স্বাস্থ্যমন্ত্রী। যদিও তিনি তার মন্ত্রণালয়ের কাজে সীমাহীন ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছেন বলে সাধারণ মানুষ মনে করে। কিন্তু যখনই তিনি কথা বলেন, সেই কথা নিয়ে বিতর্কের ঝড় উঠে। তিনি বলেছেন, স্বাস্থ্য খাতে বাইরের হস্তক্ষেপ অনেক বেশি, এটি কমাতে হবে। বাইরের হস্তক্ষেপ বলতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী কি বুঝিয়েছেন। এটা বোধগম্য হয়নি। এবং তিনি এর কোন ব্যাখ্যাও দেননি।*
*স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। এবং তার নির্দেশেই মন্ত্রণালয় চলে। এখানে বাইরের হস্তক্ষেপ কিভাবে হবে? এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী কেন বাইরের হস্তক্ষেপ বরদাশত করবেন? এটি একটি বড় প্রশ্ন। তাহলে কি মন্ত্রী হিসেবে তিনি অসহায়? তাহলে কি মন্ত্রী হিসেবে তিনি ক্ষমতাহীন? ইত্যাদি নানা প্রশ্ন জনমনে উঠেছে। করোনা সংকটের শুরু থেকেই তিনি এমন বিতর্কিত মন্তব্য করছেন।*

*প্রথমে তিনি পিপিই কে পিপিপি বলে একটা হাস্যরসের সূচনা করেছিলেন। তারপরে তিনি করোনায় বাংলাদেশ ইউরোপ আমেরিকার চেয়ে অনেক ভালো অবস্থানে রয়েছে বলে বিতর্কিত মন্তব্য করেন। এবং করোনা মোকাবেলার জাতীয় কমিটির প্রধান হিসেবে সবকিছু খুলে দেওয়ার পরও তিনি কিছু জানেন না বলে মন্তব্য করেন। তার এমন মন্তব্যে হাসি তামাশার সূচনা হয়েছিল।*
*সর্বশেষ করোনায় বাংলাদেশ ভালো নাম্বার পেয়েছে বলেও বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন। এবার তিনি নতুন করে বললেন বাইরের হস্তক্ষেপ। বাইরের হস্তক্ষেপ? কোন বাইরের হস্তক্ষেপ।*

*সরকারের প্রত্যেকটি মন্ত্রী তার কাজের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে দায়বদ্ধ। এবং প্রধানমন্ত্রীর কাছে তাঁদের জবাবদিহি করতে হয়। এছাড়া জবাবদিহি করতে হয় সংসদে। স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কাজের জবাবদিহিতাও প্রধানমন্ত্রীর কাছে করতে হবে। এটাকে কি তিনি বাইরের হস্তক্ষেপ মনে করেন? সংসদীয় সরকার ব্যবস্থায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বা যে কোন মন্ত্রণালয়ের জবাবদিহিতার জায়গা হল সংসদ। সংসদে সংসদীয় কমিটি রয়েছে। সংসদীয় কমিটি যে কোন বিষয়কে জবাবদিহিতার আওতায় আনতেই পারেন। সেটাকে কি তিনি বাইরের হস্তক্ষেপ মনে করছেন? নাকি অন্য কারো হস্তক্ষেপের কথা তিনি বলছেন। যাদের প্রতি তিনি বিরক্ত। স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্য খোলাসা করতে। এবং দেশ ও জাতির স্বার্থে এমন বিতর্কিত মন্তব্যের ব্যাখ্যা দিতে হবে।*