প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয় *সায়মা ওয়াজেদ পুতুল সি’ভিএফের দূত হলেন*

*সায়মা ওয়াজেদ পুতুল সি’ভিএফের দূত হলেন*

47
*সায়মা ওয়াজেদ পুতুল সিভিএফের দূত হলেন*

*প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের (সিভিএফ) বিষয়ভিত্তিক দূত হিসেবে মনোনীত হয়েছেন।*
*উল্লেখ্য, সিভিএফর চারজন দূত মনোনীত হয়েছেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল। অন্য তিনজন হলেন মালদ্বীপের সাবেক প্রেসিডেন্ট নাশিদ কামাল, ফিলিপাইনের ডেপুটি স্পিকার লরেন লেগ্রেডা ও কঙ্গোর জলবায়ু বিশেষজ্ঞ তোসি মাপ্নু।*
*সায়মা ওয়াজেদ পুতুল বাংলাদেশে অটিজম বিষয়ক জাতীয় কমিটির চেয়ারপারসন। সেই সঙ্গে তাঁর পরিচালিত সূচনা ফাউন্ডেশন বাংলাদেশে মানসিক স্বাস্থ্য উন্নয়ন ও সচেতনতা তৈরিতে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি ডব্লিউএইচওর মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক বিশেষজ্ঞ প্যানেলে থেকেও কাজ করে যাচ্ছেন।*

*পুতুলের উদ্যোগেই ২০১১ সালে ঢাকায় প্রথমবারের মতো অটিজমের মতো অবহেলিত একটি বিষয় নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়, যেখানে ভারতের কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী অংশগ্রহণ করেন। তাঁর অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে বাংলাদেশে ‘নিউরোডেভলোপমেন্ট ডিজঅ্যাবিলিটি ট্রাস্ট অ্যাক্ট ২০১৩’ পাস করা হয়। সেই সঙ্গে তাঁর প্রদান করা পরামর্শের ওপর ভিত্তি করেই জাতিসংঘ বেশি কিছু সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।*
*মানসিক স্বাস্থ্য ও অটিজম নিয়ে কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও ২০১৪ সালে সায়মা ওয়াজেদকে ‘এক্সেলেন্স ইন পাবলিক হেলথ অ্যাওয়ার্ড’ প্রদান করে। এখানে উল্লেখ্য যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কার্যাবলিতে অটিজমের বিষয়টি তিনিই সংযুক্ত করেন। বাংলাদেশে অটিজম বিষয়ক বিভিন্ন নীতি নির্ধারণে উল্লেখযোগ্য সাফল্য লাভের পর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পক্ষ থেকে অটিজম বিষয়ক ‘শুভেচ্ছা দূত’ হিসেবে সায়মা ওয়াজেদ কাজ করছেন।*

*প্রধানমন্ত্রীর সাথে কথা বলতে চান ইমরান খান*
*প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে কথা বলার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। বুধবার (২২ জুলাই) দুপুরে ফোনে তিনি কথা বলতে পারেন বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে।*
*সূত্র জানায়, আগামীকাল দুপুরে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে প্রায় ১০ মাস পরে ফোনালাপ হতে যাচ্ছে। এর আগে গত অক্টোবরে প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরের আগে ফোন করেন ইমরান খান।*
*পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা জানান, ইসলামাবাদের আগ্রহের বিষয়টি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে জানানোর পরে এই টেলিফোন আলাপের সময় নির্ধারিত হয়। তবে পাক প্রধানমন্ত্রী কোন বিষয়ে কথা বলবেন তা জানা যায়নি।*

*পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র আরও জানায়, ঢাকায় অবস্থিত পাকিস্তানের হাইকমিশন থেকে টেলিফোন আলাপের অনুরোধ নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে আসা হয়। এরপরই দুপক্ষের মধ্যে আলাপ করে দুই দেশের সরকারপ্রধানের কথা বলার বিষয়টি নির্ধারিত হয়েছে।*
*জানা যায়, গত সপ্তাহে ঢাকায় পাকিস্তানের নতুন রাষ্ট্রদূত ইমরান আহমেদ সিদ্দিকী পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে দেখা করেন। এ বিষয়ে রাষ্ট্রদূত নিজেও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করেন।*
*প্রায় দুই বছরের বেশি সময় ঢাকার পাকিস্তান দূতাবাসে কোনও রাষ্ট্রদূত ছিল না। ইমরান আহমেদ সিদ্দিকী গত ফেব্রুয়ারিতে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের কাছে পরিচয়পত্র পেশ করেন।*