প্রচ্ছদ ইতিহাস-ঐতিহ্য *বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র: একজন নেপথ্য নায়ক*

*বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র: একজন নেপথ্য নায়ক*

57
*বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র: একজন নেপথ্য নায়ক*

*একটি দেশের স্থপতির সুযোগ্য দৌহিত্র তিনি। দীর্ঘদিন দেশ পরিচালনায় থাকা রাষ্ট্রনায়ক তার ঘরের মানুষ। তিনি চাইলেই প্রভাব দেখিয়ে যেকোনো কিছু হাসিল করে নিতে পারেন। চাইলেই বড় বড় বক্তৃতা-বিবৃতি দিয়ে গণমাধ্যমের সবটুকু আলো নিজের দিকে ফেরাতে পারেন। চাইলেই একঝাঁক মানুষকে সঙ্গে নিয়ে চলাফেরা করে আমাদের প্রচলিত নেতাদের মতো নিজের ইমেজ বানাতে পারেন। হম্বিতম্বি করে সবাইকে তটস্থ রাখতে পারেন। কিন্তু এর কোনটাই তিনি করেন না। বরং একটু আড়ালে থেকেই নীরবে নিভৃতে কাজ করে যেতে পছন্দ করেন তিনি।*
*বলছি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য দৌহিত্র, আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোট বোন শেখ রেহানার একমাত্র পুত্র রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি’র কথা।*

*তার কাজের ধরনটা বুঝতে গেলে আমাদের ১০ ১২ বছর পেছনে ফিরে যেতে হবে। ওয়ান ইলেভেন সরকারের সময় আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে গ্রেপ্তার করা হলো। অবৈধ সরকারের দেওয়া মিথ্যা মামলা থেকে তখন শেখ হাসিনাকে কীভাবে মুক্ত করা যায়, তা নিয়ে চিন্তিত ছিল তার কাছের মানুষরা। তার অগণিত সমর্থকরা অপেক্ষা করছিলেন কবে নেত্রী কারাগার থেকে মুক্ত হবেন। সেই সময়টাতে অনেকটা নীরবেই কাজ শুরু করেন ববি। তিনি বিখ্যাত ‘ফ্রস্ট ওফ দ্যা ওয়ার্ল্ড’ এর স্যার ডেভিডকে প্রধানমন্ত্রীর গ্রেপ্তারের বিরুদ্ধে যে সাক্ষাৎকার দেন তা বিশ্বব্যাপী জনমত তৈরিতে বিরাট ভূমিকা রাখে।*

*২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়ন কাজ নিয়ে ‘আপনি জানেন কি’ শিরোনামে ১৭টি প্রামাণ্যচিত্র এবং অন্যান্য সরকারের সঙ্গে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের তুলনামূলক ১৯টি প্রামাণ্যচিত্র তৈরি এবং নতুন প্রজন্মকে এগিয়ে নিয়ে আসার অনুষ্ঠান ‘ইয়াং বাংলা’র পিছনের অন্যতম মূল পরিকল্পনাকারী ছিলেন ববি। বাংলাদেশের তরুণ প্রজন্মের ভাগ্য পরিবর্তনে নেপথ্যে থেকেই কাজ করে যাচ্ছেন জাতির পিতার এই দৌহিত্র। তরুণ প্রজন্মের কাছে রীতিমত একজন রোলমডেল হয়ে উঠেছেন তিনি।*

*এই নেপথ্য নায়কের ৪০তম জন্মদিন আজ (বৃহস্পতিবার, ২১ মে)। ১৯৮০ সালের এই দিনে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। বঙ্গবন্ধু পরিবারে জন্ম, সেই রাজনীতি আর আদর্শের আবহে বেড়ে উঠেছেন ববি। শিক্ষাজীবনে বিশ্বখ্যাত লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিক্স অ্যান্ড পলিটিক্যাল সায়েন্স থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেন তিনি। স্নাতকে তার অধ্যয়নের প্রধানতম বিষয়গুলো ছিলো গভর্নমেন্ট অ্যান্ড হিস্টরি, পলিটিক্যাল থিওরিজ, ইন্টারন্যাশনাল হিস্টরি। একই প্রতিষ্ঠান থেকে তিনি কমপ্যারেটিভ পলিটিক্স বিষয়ে স্নাতকোত্তর করেন। এতে তার অন্যতম পাঠ ছিলো কমপেয়াটিভ পলিটিক্স, কনফ্লিক্ট অ্যান্ড রেগুলেশন অ্যান্ড ডেমোক্রেসি।*

*বর্তমানে দেশে আওয়ামী লীগের গবেষণা সেল সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) এর মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক। তার নির্দেশনায় প্রকাশিত হচ্ছে ‘মুজিব’ নামের একটি শিশুতোষ প্রকাশনা। জীবনীভিত্তিক এই প্রকাশনার মধ্য দিয়ে ছোট ছোট শিশুদের কাছে পরিচিত করে তোলা হচ্ছে জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানকে।*

*১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার সময় শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা বিদেশে থাকায় বেঁচে যান। পরে দীর্ঘ সময় লন্ডন ও ভারতে নির্বাসনে থাকতে হয় তাদের। শেখ রেহানা লন্ডনে নির্বাসনে থাকার সময় রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিকের জন্ম। নেপথ্যের এই নায়কের জন্মদিনে অনেক শুভেচ্ছা এবং অভিনন্দন।*