প্রচ্ছদ স্বাস্থ্য *বাংলাদেশে ক’রোনা ঝুঁ’কি: যেভাবে হতে পারে প্র’তিরোধ*

*বাংলাদেশে ক’রোনা ঝুঁ’কি: যেভাবে হতে পারে প্র’তিরোধ*

24
*বাংলাদেশে করোনা ঝুঁকি: যেভাবে হতে পারে প্রতিরোধ*

*বাংলাদেশ ক’রোনাভাইরাসের উচ্চ ঝুঁ’কিতে রয়েছে। চীনের উহান থেকে করো’নাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের ৭৬টি দেশে। বাংলাদেশ বাদে চীনের প্রতিবেশী সব দেশে শনাক্ত হয়েছে ভাই’রাসবাহী রোগী। এ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশসহ ২৫টি দেশ উচ্চ ঝুঁ’কিতে রয়েছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।*
*করো’নাভাইরাস প্রতিরোধে সরকার কী ব্যবস্থা নিয়েছে তা জানতে চেয়েছে হা’ই কো’র্ট। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অ’ধিদফতরের মহাপরিচালককে আগামী ৯ মার্চের মধ্যে এ-সংক্রান্ত ত’থ্য হা’ইকোর্টে উপস্থাপন করতে বলা হয়েছে।*

*তিন নাবিক জ্বরে আক্রান্ত হওয়ায় ‘এমভি সেরিনিটাস এন’ জাহাজ থেকে পণ্য খালাস বন্ধ রেখেছে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ। সিলেটে প্রবাসী এক যুবক জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।*
*ঢাকার মার্কিন দূতাবাসের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘বাংলাদেশসহ মোট ২৫ দেশ কভিড-১৯-এর উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে।’ ঝুঁকিতে থাকা বাকি দেশগুলো হলো- আফগানিস্তান, অ্যাঙ্গোলা, ইন্দোনেশিয়া, ইরাক, কাজাখস্তান, কেনিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, তাজিকিস্তান, ফিলিপাইন, তুর্কমেনিস্তান, উজবেকিস্তান, জাম্বিয়া, জিম্বাবুয়ে, মিয়ানমার, কম্বোডিয়া, ইথিওপিয়া, কিরঘিজ প্রজাতন্ত্র, লাওস, মঙ্গোলিয়া, নেপাল, নাইজেরিয়া, পাকিস্তান, থাইল্যান্ড ও ভিয়েতনাম। এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৯৩ হাজার ৯০ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ২ হাজার ৯৮৪ জন।*

*সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানান, তিন দেশে মোট সাতজন বাংলাদেশির এ ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে, যাদের মধ্যে তিনজন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। আইইডিসিআর পরিচালক জানান, করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে বাংলাদেশের বিমানবন্দরে চীন, ইরান, ইতালি ও দক্ষিণ কোরিয়ার নাগরিকদের ‘অন অ্যারাইভাল’ ভিসা সুবিধা আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে। ফলে কেউ আসতে চাইলে তাদের আগেই নিয়মমাফিক ভিসার আবেদন করতে হবে। প্রতিদিনই উদ্বেগ আস্তে আস্তে বাড়ছে। ইতালি, দক্ষিণ কোরিয়া, ইরান ও জাপানকে হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।*

*করোনাভাইরাস মোকাবিলার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এ বি এম আবদুল্লাহ বলেন, করোনাভাইরাসে প্রতিদিন আক্রান্ত দেশের সংখ্যা বাড়ছে। প্রতিবেশী দেশগুলো সংক্রামক এ রোগে আক্রান্ত হওয়ায় বাংলাদেশেও ঝুঁকি বাড়ছে। সরকার রোগী শনাক্তে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছে। জনগণকেও সচেতন হতে হবে। অসুস্থতাজনিত সমস্যায় চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে। তিনি বলেন, হাঁচি-কাশি দেওয়ার সময় মুখ ঢেকে দিতে হবে। ভালোভাবে হাত ধুয়ে খাবার খেতে হবে। নোংরা হাত কখনোই নাকে, মুখে দেওয়া ঠিক হবে না। যেখানে-সেখানে থুথু ফেলা যাবে না। বেশি সময় সেদ্ধ করে রান্না করতে হবে। আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হতে হবে।*

*করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কী ব্যবস্থা জানতে চেয়েছে হাই কোর্ট: করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকার কী ব্যবস্থা নিয়েছে তা জানতে চেয়েছে হাই কোর্ট। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালককে আগামী ৯ মার্চের মধ্যে এ-সংক্রান্ত তথ্য হাই কোর্টে উপস্থাপন করতে বলা হয়েছে। সংবাদমাধ্যমে এ বিষয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদন আদালতের নজরে আনা হলে গতকাল বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাই কোর্ট বেঞ্চ স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে তিনটি মৌখিক নির্দেশনা দেয়। পরে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ বি এম আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার সাংবাদিকদের বলেন, বাংলাদেশ করোনাভাইরাসের ঝুঁকিতে রয়েছে, এমন একটি সংবাদ আদালতের নজরে আনেন সুপ্রিম কোর্টের একজন আইনজীবী। পরে আদালত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদফতরকে তিনটি মৌখিক নির্দেশনা দেয়।*

*আদেশ তিনটি হচ্ছে- স্থলবন্দর, নৌবন্দর, বিমানবন্দর, বিশেষ করে বিমানবন্দর দিয়ে যখন বিদেশিরা বাংলাদেশে ঢুকছেন, তখন তাদের কী ধরনের পরীক্ষা করা হচ্ছে। যারা পরীক্ষা করছেন তারা প্রশিক্ষিত কি না। যে যন্ত্রপাতি দিয়ে পরীক্ষা করা হচ্ছে সেগুলোর সক্ষমতা কেমন। এসব তথ্য আদালতকে জানাতে হবে। সারা দেশে সরকারি হাসপাতালগুলোতে করোনাভাইরাস রোগীদের রাখার জন্য পৃথক কেবিনের ব্যবস্থা করতে হবে। সরকারি হাসপাতালের পাশাপাশি সব বেসরকারি হাসপাতালেও করোনাভাইরাসের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নিতে হবে। করোনাভাইরাস পরীক্ষা বা শনাক্তের জন্য দেশে পর্যাপ্ত সরঞ্জাম আছে কি না। যদি না থাকে, জরুরি ভিত্তিতে আমদানি করতে হবে।*

*জাহাজে তিন নাবিক জ্বরে আক্রান্ত হওয়ায় পণ্য খালাস বন্ধ: ইন্দোনেশিয়া থেকে আসা ২৪ হাজার মেট্রিক টন কয়লা বহনকারী ‘এমভি সেরিনিটাস এন’ জাহাজের পণ্য খালাস বন্ধ রেখেছে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার ফখর উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ জানায়, ওই জাহাজে ফিলিপাইনের নাগরিক তিন নাবিক হঠাৎ জ্বরে আক্রান্ত হলে তাদের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে বন্দর স্বাস্থ্য বিভাগ। প্রাথমিকভাবে তাদের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়নি। এর পরও সতর্কতা হিসেবে ওই তিন নাবিক করোনাভাইরাস আক্রান্ত কি না তা নিশ্চিত হতে জাহাজেই তাদের পর্যবেক্ষণ ইউনিটে থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া জাহাজের সব ধরনের কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়েছে।*

*সিলেটে এক যুবক হাসপাতালে ভর্তি: করোনাভাইরাস আক্রান্ত সন্দেহে মধ্যপ্রাচ্য-ফেরত এক যুবককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল পরীক্ষার জন্য তার রক্তের নমুনা সংগ্রহ করেছে আইইডিসিআর। বর্তমানে তিনি সিলেটের শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের আইসোলেশন বিভাগে ভর্তি রয়েছেন। আইইডিসিআর থেকে রক্ত পরীক্ষার প্রতিবেদন পেতে দুই দিন সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায়। বুধবার রাতে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে তাকে এ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সম্প্রতি ওই প্রবাসী সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে দেশে ফেরেন।*

*কুয়েতগামীদের সনদ কাল থেকে: কুয়েতগামীদের করোনাভাইরাস পরীক্ষা করে আগামীকাল থেকে সনদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।*
*মসজিদে দোয়ার আহ্বান: মহান আল্লাহর দরবারে করোনাভাইরাস প্রকোপ থেকে দেশের মানুষকে নিরাপদ রাখতে আজ বাদ জুমা দেশের সব মসজিদে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করার অনুরোধ জানিয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন। গতকাল গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ অহ্বান জানানো হয়।*