প্রচ্ছদ আইন-আদালত *পাপিয়ার তথ্যে ৯ মন্ত্রী ও ১২ সরকারী কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ*

*পাপিয়ার তথ্যে ৯ মন্ত্রী ও ১২ সরকারী কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ*

161
*পাপিয়ার তথ্যে ৯ মন্ত্রী ও ১২ সরকারী কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ*

*গত ২২ ফেব্রুয়ারি আটক পাপিয়া জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন যে, আওয়ামী লীগের কয়েকজন প্রভাবশালী মন্ত্রী এবং এমপির সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল। তবে তবে এই ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক শুধুমাত্র কাজের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক বলেই পাপিয়া জানিয়েছেন। মূলত রাজনীতিবিদদের তিনি ব্যবহার করতেন তার পদ পদবির জন্য। পাপিয়া বলেছেন, পাপিয়ার ইচ্ছে ছিল এবার হয়নি আগামীবার মহিলা আসনে এমপি হওয়ার এবং যুব মহিলা লীগের পরবর্তীতে যে কমিটি হবে সেই কমিটির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব তিনি গ্রহণ করতে চেয়েছিলেন।*

*যুব মহিলা লীগের যে বর্তমান নেতৃবৃন্দ আছে। বিশেষ করে ঢাকা মহানগরীর একজন নেত্রী তাকে আশ্বাস দিয়েছিলেন যে, তাকে কেন্দ্রীয় কমিটিতে আনা হবে। এমনকি কমিটির ব্যাপারে তিনি কথাবার্তাও বলেছিলেন বলে তিনি স্বীকার করেছেন। পাপিয়া জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছিলেন, তিনি বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে তেমন কিছু জানেন না। বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী সম্পর্কেও তার কোন ধারণা নেই। এমনকি তার শেখ হাসিনার রাজনীতি সম্পর্কেও তেমন কোন ধারণা নেই। শুধুমাত্র ব্যবসাবাণিজ্য এবং নিজেরে আখের গুছানোর জন্যই তিনি আওয়ামী লীগে যোগদান করেছিলেন।*

*পাপিয়ার জন্য যেসমস্ত মন্ত্রী এবং সংসদ সদস্যরা তদবির করেছিলেন, তাদের মধ্যে অন্তত ৩জন ঢাকার এমপি বলে জানা গেছে। তবে গোয়েন্দা সংস্থাগুলো বলছে যে, এই এমপিরা পাপিয়ার জন্য কোন তদবির করেননি। পাপিয়া তাদের ব্যবহার করতেন। তাদের সঙ্গে ছবি তুলে বা ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে প্রভাবশালী আমলা এবং বিভিন্ন প্রকল্প পরিচালক ও প্রভাবশালী ব্যক্তিদের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরী করতেন।*

*সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, মন্ত্রী এবং এমপিদের সঙ্গে সম্পর্ক থাকার কারণে পাপিয়ার কাছে অনেকে নিয়োগের জন্য তদবির করতে আসতো, বদলির জন্য তদবির নিয়ে আসতো, ঠিকাদাররা ব্যবসা পাবার জন্য তদবির নিয়ে আসতো, অনেকে গ্যাস-বিদ্যুত সংযোগসহ নানারকম রাষ্ট্রীয় সুযোগসুবিধা দেবার জন্য আসতো এবং তাঁরা যেন আসে এজন্যেই পাপিয়া তার রাজনৈতিক পরিচয় ব্যবহার করতো।*

*তবে গোয়েন্দা সংস্থাগুলো বলছে যে, পাপিয়ার এই চক্রের মধ্যে যেসমস্ত আমলা এবং ব্যবসায়ী ছিল তাদের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে এবং এই তালিকা অনুসারে তাদেরকে পর্যায়ক্রমে জিজ্ঞাসা করা হবে। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, ইতিমধ্যে পাপিয়ার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা আছে এরকম চারজন প্রকৌশলীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে, যারা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী প্রকৌশলী বা প্রকল্প প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন এবং এরা প্রত্যেকেই পাপিয়ার সাথে তাঁদের সম্পর্কের সংশ্লিষ্টতা স্বীকার করেছেন।*

*আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার লোকরা বলছেন যে, গোপনীয়তা এবং তদন্তের স্বার্থে পাপিয়া সংশ্লিষ্ট যাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে, তাঁদের পরিচয় গোপন রাখা হয়েছে। গোয়েন্দা সংস্থাগুলো বলছে, পাপিয়ার তথ্যের ভিত্তিতে ইতিমধ্যে বর্তমান এবং সাবেক ৯ জন মন্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে এবং ১২ জন সরকারি কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তবে তাঁদের কাছ থেকে কি তথ্য পাওয়া গেছে তা এখনও আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা কিছু বলছে না। তবে সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, নিশ্চিত যে পাপিয়া সবাইকে মিথ্যা বলতেন এবং ধোঁকা দিতেন এবং তাঁর যে একটা প্রভাব আছে, তিনি যে ক্ষমতাবান সেটা প্রমাণের জন্যই তিনি ওয়েস্টিনের রেসিডেন্সিসিয়াল শ্যূট ভাড়া করেছিলেন।*