প্রচ্ছদ রাজনীতি *‘অসুস্থ খালেদার চেয়ে মৃত খালেদা অনেক মূল্যবান’*

*‘অসুস্থ খালেদার চেয়ে মৃত খালেদা অনেক মূল্যবান’*

189
‘অসুস্থ খালেদার চেয়ে মৃত খালেদা অনেক মূল্যবান’

*লন্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক জিয়ার নতুন তত্ত্ব বিএনপিতে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে। বেগম খালদা জিয়ার জিয়ার মুক্তি নিয়ে চলমান অগ্রগতিতে বাধা দিয়ে তারেক জিয়া নতুন বার্তা দিয়েছেন। এই বার্তায় তিনি বলেছেন, ‘অসুস্থ খালেদার চেয়ে মৃত খালেদা অনেক মূল্যবান’। খালেদা জিয়ার জন্য তিনি প্যারোল আবেদন না করার জন্য যেমন নির্দেশ দিয়েছেন, তেমনি আইনি লড়াইয়েও ধীর গতিতে যাওয়ার কথা বলেছেন।*

*তারেক জিয়ার তত্ত্ব নিয়ে বিএনপির মধ্যে নানারকম প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, বেগম খালেদা জিয়া যদি সত্যি অসুস্থ থাকেন এবং এই অসুস্থতার কারণে যদি তিনি মারা যান, তাহলে বিএনপির বিপুল লাভ হবে। এর ফলে সরকার পতনের চূড়ান্ত আন্দোলনও শুরু করবে দলটি। এ কারণেই তারেক জিয়া মায়ের মুক্তি নিয়ে বিএনপিকে শুধু রাজনীতি করারই নির্দেশ দিয়েছেন। এর মধ্যে গত শনিবার বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা নিজেদের মধ্যে পরামর্শ করেছিলেন। এই পরামর্শের ভিত্তিতে তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন যে, রোববার বেগম জিয়ার জামিনের জন্য আবার তারা হাইকোর্টে আবেদন করবেন। কিন্তু তারেকের নির্দেশ সেই আবেদনও করা হয়নি।*

*বিএনপির আইনজীবীরা এখন বলছেন যে, তারা বিষয়টি পর্যালোচনা করছেন। অন্যদিকে বেগম জিয়ার পরিবারের পক্ষ থেকে প্যারোল আবেদনের জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। সেই উদ্যোগও থমকে গেছে তারেকের হস্তক্ষেপের কারণে।*
*বিএনপির অনেক নেতা মনে করছেন যে, বেগম খালেদা জিয়াকে আটকে রেখে রাজনৈতিক ফায়দা লোটার নোংরা খেলায় মেতেছেন তারেক জিয়া। এজন্যই বেগম জিয়ার মুক্তির বিষয়টি রাজনৈতিক বাহাসে পরিণত হয়েছে। বাস্তবে বেগম জিয়ার মুক্তি তারেক জিয়াই চাইছেন না।*

*তারেক জিয়া গতকাল বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠকে স্কাইপিতে যুক্ত হন। এ সময় তিনি বিএনপি প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করেন। সাক্ষাৎকার শেষে তিনি বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যদের সঙ্গে খালেদা জিয়ার মুক্তির প্রসঙ্গে কথা বলেন। সেই আলোচনায় অসুস্থ খালেদা জিয়া সম্পর্কে তার অবস্থান সুস্পষ্ট করেছেন। বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, তারেক জিয়া ক্ষমতার জন্য নির্মম এবং নিজের মায়ের প্রতি তার যে ন্যূনতম শ্রদ্ধাবোধ, ভালোবাসা এবং মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি নেই তা তিনি গতকালই প্রমাণ করেছেন। তারেক জিয়া একাধিক কারণে চাইছেন যে, খালেদা জিয়া জেলে থাকুন।*

*এর প্রথম কারণ হলো যে, খালেদা জিয়া যদি জেলে থেকে যদি ক্রমাগত মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যান তাহলে বিএনপিতে তার আসন পাকাপোক্ত হবে। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান থেকে তিনি দলের পূর্ণাঙ্গ চেয়ারম্যান হতে পারবেন। তখন দলের মধ্যে যারা খালেদাপন্থি আছেন, তাদের উপর তিনি প্রশ্নাতীত নিয়ন্ত্রণ স্থাপন করতে পারবেন।*
*দ্বিতীয়ত, বিএনপি সাংগঠনিকভাবে যেহেতু দুর্বল। বেগম খালেদা জিয়ার যদি জেলে থেকে কিছু হয়ে যায়। সেক্ষেত্রে বিএনপি নতুন করে আন্দোলন করার চেষ্টা করবে এবং সাধারণ মানুষের মধ্যে একটা আবেগ তৈরি হবে এবং সেই আবেগকে কাজে লাগিয়ে সরকারবিরোধী আন্দোলন করতে পারবে বিএনপি।*

*তৃতীয়ত, তারেক মনে করছে যে খালেদা জিয়া যেকোনো প্রক্রিয়াতেই যদি মুক্ত হয় তাহলে বিএনপির বিশেষ করে খালেদা জিয়ার আপোসকামীতা সবার সামনে স্পষ্ট হয়ে যাবে। এর ফলে বিএনপির যে রাজনৈতিক দেউলিয়াত্ব তা আরেকবার প্রকাশ পাবে। এর ফলে সাধারণ মানুষ বিএনপি থেকে আরও মুখ ঘুরিয়ে নেবে।*
*আর এ সমস্ত কারণে তারেক জিয়া মনে করছেন যে তারেক জিয়ার মুক্তির বিষয় নিয়ে বক্তৃতা, বিবৃতি এবং আন্দোলনের কর্মসূচির মধ্যেই সীমাবদ্ধ রাখা উচিৎ, খালেদার মুক্তি নিয়ে বাস্তবিক কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিৎ নয়। তারেক জিয়া দলের সিনিয়র নেতাদের এটাও বলেছেন যে, খালেদা জিয়ার যদি কিছু হয় তাহলে অবশ্যই তার দায় সরকারের ওপর বর্তাবে। কাজেই সরকারই সমস্যার মধ্যে পড়বে। কিন্তু একজন সন্তান তার মায়ের মৃত্যু কামনা করেন শুধুমাত্র ক্ষমতার লোভে, এটিই বিএনপির আপামর নেতাকর্মীদের ব্যথিত করেছে। এ নিয়ে বিএনপির মধ্যে চলছে হতাশা এবং চাপা উত্তেজনা।*