প্রচ্ছদ শিক্ষাঙ্গন *নুর শি’বির ক্যা’ডারদের সঙ্গে রাখেন!*

*নুর শি’বির ক্যা’ডারদের সঙ্গে রাখেন!*

668
*নিজের নিরাপত্তার জন্য শিবির ক্যাড়ারদের সঙ্গে রাখেন নুর!*

*ঢাকা বিশ্ব’বিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংস’দের (ডা’কসু) সহসভাপতি (ভি’পি) নূরুল হক নূরের ওপর হা’মলা চালিয়েছে ছাত্রলীগ ও মুক্তি’যুদ্ধ ম’ঞ্চের একাংশের নে’তাকর্মীরা। রোববার দুপুরে ডা’কসু ভব’নের ভেতরে ও বাইরে ভি’পি নূর ও তার সংগঠনের নে’তাকর্মীদের ওপর দফায় দফায় হা’মলা করা হয়। এতে নুরসহ ২৬ জন আ’হত হয়েছেন। এদের মধ্যে তুহিন ফারাবীর অবস্থা গু’রুতর।*
*এ হাম’লায় জ’ড়িত থাকার বিষয়ে তিন ছাত্রলীগ নে’তার নাম আসছে। ভি’পি নুরের অভি’যোগ ডাক’সুর জি’এস গোলাম রাব্বানী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ সভাপতি সনজিত এবং সাধারণ সম্পাদ’ক ও এজি’এস সাদ্দাম হোসেন এ হাম’লার সঙ্গে সরাসরি জড়ি’ত।*

*প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, পূর্বনির্ধারিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে দুপুর ১২টার দিকে মুক্তি’যুদ্ধ ম’ঞ্চের নে’তাকর্মীরা মি’ছিল নিয়ে ডা’কসু ভবনের দিকে যায়। একই সময় সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ২০-২৫ জনকে নিয়ে ভি’পি নূর ডা’কসু ভবনের দিকে যান।*
*একপর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে উ’ত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হয় এবং ডা’কসু ভ’বনে নিজের ক’ক্ষে ভি’পি নূর চলে যান। অন্যদিকে মুক্তি’যুদ্ধ ম’ঞ্চের নে’তাকর্মীরা মধুর ক্যা’ন্টিনের গোলঘরে জড়ো হন। কিছুক্ষণ পর নে’তাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে ডা’কসু ভবনের সামনে যান ঢাকা বিশ্ব’বিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সনজীত চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পা’দক ও ডাক’সুর এজি’এস সাদ্দাম হোসেন।*

*দুটি সংগঠনের কর্মীরা তখন ডা’কসু ভ’বনের দিকে ই’টের টুকরা নি’ক্ষেপ করতে শুরু করে। এ সময় ভি’পির নির্দেশে ডা’কসু ভবনের কর্মীরা ভ’বনের মূল গে’টে তা’লা লাগিয়ে দেন। তখন পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্র’ণে আসে। এরপর ডাক’সুর এজি’এস সাদ্দাম গিয়ে ডাক’সুর গে’ট খুলে ভেতরে প্রবেশ করেন।*
*এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন সনজিত। ভি’পির কক্ষে প্রবেশ করে সাদ্দাম জানতে চান, কেন বহিরা’গতদের নিয়ে তিনি (ভি’পি নূর) ডা’কসুতে এসেছেন। তখন নূর বলেন, তিনি সব সময় হা’মলার আ’শঙ্কার মধ্যে থাকেন। এ কারণে নিজের নিরা’পত্তার জন্য অনেককে সঙ্গে রাখেন।*

*একপর্যায়ে সনজিতকে উদ্দেশ্য করে নূর বলেন, ‘আপনি তো ডাক’সুর কেউ নন। আপনি কেন এখানে এসেছেন।’ তখন সনজিত বলেন, ‘আমি কে, তা কিছুক্ষণ পরই বুঝবি।’ ছাত্রলীগের দুই নে’তা যখন কথা বলছিলেন, তখন তাদের অনু’সারীরা নূরের সঙ্গে থাকা কয়েকজনকে মা’রতে শুরু করে।*
*সনজিত ও সাদ্দাম বের হওয়ার পর সেখানে দফায় দফায় হা’মলা করা হয়। ভিপির কক্ষে কয়েকজনকে আট’কে রেখে ও লাইট ব’ন্ধ করে মার’ধর করা হয়। হাম’লায় মারাত্মক আ’হত হন ভিপি নূর। তিনি কয়েকবার ব’মিও করেন। সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরি’ষদের নে’তাকর্মীদের ডা’কসু ভবনের বাইরে এনেও হা’মলা করা হয়।*

*ঘটনার প্রায় পৌনে এক ঘণ্টা পর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরি’য়াল টি’মের সদস্যরা ঘট’নাস্থলে গিয়ে তাদের উ’দ্ধার করেন।*
*এদিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফে’সবুকে কয়েকজনের ছবি দিয়ে ঢা’বি শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি সনজিত লিখেছেন, ‘বহি’রাগত শি’বির ক্যা’ডারদের নিয়ে ক্যা’ম্পাসে হা’মলা ও অ’স্থিতিশীল করতে চেয়েছিলেন পা’গলা নূরা, সচেতন শিক্ষার্থী ও মুক্তি’যুদ্ধ ম’ঞ্চ স্বাধীন’তাবিরোধীদের সমুচিত জ’বাব দিয়েছে। এ ক্যা’ম্পাসে কোনো স্বাধীন’তাবিরোধীর জায়গা হবে না। নুরের নাটক সবাই বুঝে গেছেন।’*

*ভি’পি নুরের ওপর হা’মলার ঘ’টনায় মুক্তি’যুদ্ধ ম’ঞ্চের মামুন-তূর্য গ্রেপ্তার*
*ঢাকা বিশ্ববি’দ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংস’দের (ডাক’সু) ভি’পি নুরুল হক নুর ও তার সংগঠনের নে’তাকর্মীদের ওপর হা’মলার ঘট’নায় মুক্তি’যুদ্ধ ম’ঞ্চের একাংশের সাধারণ সম্পা’দক আল মামুন ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা মুক্তি’যুদ্ধ ম’ঞ্চের সাধারণ সম্পাদক ইয়াসির আরাফাত তূর্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।*

*তাদের গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন ডিএ’মপির গো’য়েন্দা শাখার (ডি’বি) অতিরিক্ত কমিশনার মো. আবদুল বাতেন।*
*গতকাল রোববার দুপুর পৌনে ১টার দিকে ডা’কসুর ভি’পি নুরুল হক নুর ও তার অনুসা’রীদের ওপর হা’মলা চালায় মুক্তি’যুদ্ধ ম’ঞ্চের একাংশের নে’তাকর্মীরা। হা’মলায় ছাত্রলীগের নে’তাকর্মীরাও অংশ নেন বলে অভি’যোগ করা হয়েছে। ওই হাম’লায় নুরসহ অন্তত ৩৪ জন আ’হত হন।*

*প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ডা’কসু ভবনের মূল ফ’টক ব’ন্ধ করে নুরের ওপর লাঠি’সোটা নিয়ে হাম’লা করা হয়। এছাড়া বাইরে থেকেও মুক্তি’যুদ্ধ ম’ঞ্চের নে’তাকর্মীরা ইট’পাটকেল ছো’ড়েন। হাম’লায় অন্তত ৩২ জন আ’হত হন।’*
*ভি’পি নুরসহ আহ’ত ৬ জনকে ঢাকা মেডি’কেল ক’লেজ (ঢামেক) হাস’পাতালে ভর্তি করা হয়। আ’হতদের মধ্যে ফারাবীকে লাই’ফ সা’পোর্টে রাখা হয়। এছাড়া আ’হত বাকিদের চিকি’ৎসা দিয়ে ঢা’মেক থেকে ছেড়ে দেয়া হয়।*