প্রচ্ছদ ইতিহাস-ঐতিহ্য *রাজাকার তালিকা স্থগিত, ২৬শে মার্চে চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে*

*রাজাকার তালিকা স্থগিত, ২৬শে মার্চে চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে*

49
*রাজাকার তালিকা স্থগিত, ২৬শে মার্চে চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে*

*গত ১৫ ডিসেম্বর প্রকাশিত রাজাকারদের বিতর্কিত তালিকা স্থগিত করেছে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। আজ বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টা নাগাদ মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।*
*যাচাই বাছাই করে আগামী ২৬শে মার্চে চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন আ ক ম মোজাম্মেল হক। সূত্র জানায়, তালিকা নিয়ে তুমুল বিতর্কের মধ্যে বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মন্ত্রীকে এ বিষয়ে নির্দেশনা দেন। তিনি তালিকাটি যাচাই বাছাই করতে বলেন। পরে মন্ত্রণালয় তালিকাটি স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেয়।*

*মহান বিজয় দিবসের আগের দিন ১৫ই ডিসেম্বর সংবাদ সম্মেলন করে রাজাকারের ১০৭৮৯ জনের নাম প্রকাশ করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। এ তালিকায় মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ পরিবারের সদস্য, মুক্তিযুদ্ধে শহীদের স্ত্রী, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রধান প্রসিকিউটর, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠকসহ অনেকের নাম আসে যারা স্বাধীনতা আন্দোলনে বিভিন্ন পর্যায়ে ভূমিকা রাখেন।*
*এ তালিকা প্রকাশের পর নানা প্রতিক্রিয়া আসতে থাকে। তোপের মুখে মন্ত্রণালয় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানায়, আবেদন করলে রাজাকারের তালিকায় আসা মুক্তিযোদ্ধাদের নাম বাতিল করা হবে।*

*রাজাকার নয়, তালিকাটি দালাল আইনে অভিযুক্তদের: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী*
*মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশিত তালিকাটি রাজাকারদের নয়, এটি দালাল আইনে অভিযুক্তদের তালিকা বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। আজ বুধবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।*
*স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এটি কোনো রাজাকারের তালিকা নয়। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়কে রাজাকার, আলবদর, আল শামসের তালিকা দেওয়া হয়নি; দালাল আইনে অভিযুক্তদের তালিকা দেওয়া হয়েছে। নোট দেওয়া সত্ত্বেও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় সবার নাম প্রকাশ করায় এর পুরো দায় ওই মন্ত্রণালয়ের।’*

*এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেন আসাদুজ্জামান খান কামাল।*
*গত রোববার মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় ১০ হাজার ৭৮৯ ব্যক্তির নাম প্রকাশ করে, যেটিকে রাজাকারের তালিকা বলে উল্লেখ করা হয়। তবে ওই তালিকায় গেজেটেড মুক্তিযোদ্ধাদের নামও রয়েছে। এ ছাড়া বিভিন্ন অঞ্চলের মুক্তিযোদ্ধা আওয়ামী লীগ নেতাদের নামও রয়েছে। তালিকা প্রকাশের পর এ ঘটনায় দেশব্যাপী তুমুল সমালোচনা চলছে।*
*যদিও তালিকাটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে দেওয়া হলে প্রকাশ করা হয় বলে জানান মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।*