প্রচ্ছদ স্বাস্থ্য *আপনার যখন অ্যালার্জিজনিত নাকের সমস্যা*

*আপনার যখন অ্যালার্জিজনিত নাকের সমস্যা*

59
*আপনার যখন অ্যালার্জিজনিত নাকের সমস্যা*

*বাতাসে ভেসে বেড়ায় এমন অতি ক্ষুদ্র কণা যা নাকের সংস্পর্শে এলে প্রতি’ক্রিয়া সৃ’ষ্টি করে তাদের অ্যালা’র্জেন বলে। এ ধরনের কণাগুলো বছরের বিশেষ সময় (ফুলের রেনু) অথবা সারা বছর (ডা’স্ট মা’ইট) থাকতে পারে। Ame’rican Aca’demy o’f Alle’rgy, Ast’hma & Im’munology (AAA’AI) এর তথ্য মতে আমেরিকার ৮% এবং বিশ্বে ১০%-৩০% মানুষ অ্যালা’র্জিজনিত নাকের সমস্যা’য় ভু’গে থাকেন। এই সমস্যাকে অ্যা’লার্জিক রা’ইনাইটিস (All’ergic Rhini’tis) বলা হয়।*

*লক্ষণসমূহ: বার বার হাঁচি হওয়া, নাক থেকে পানি পড়া, নাক ব’ন্ধ হওয়া, নাক ও গলায় চুল’কানি, চোখ চুলকা’নো এবং পানি পড়া। প্রকারভেদ; সিস’নাল: বছরের বিশেষ সময় বিশেষত শরতকাল ও বসন্তকাল (ফুলের রেণু)। পেরে’ন্নিয়াল: সারা বছর (ডা’স্ট মা’ইট, পোষা প্রাণীর লোম)।*
*ঝুঁ’কি বৃদ্ধি’কারী উপাদানসমূহ: তাপমাত্রা, আর্দ্রতা, ধূম’পান, রাসায়নিক পদার্থ, বায়ু’দূষণ, প্রসাধন সামগ্রী, ধোঁয়া, জমে থাকা কাপড়।*
*রো’গ নির্ণয়: সাধারণ সমস্যায় পরীক্ষা লাগে না। তবে আলা’র্জির উপাদান ও উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজনে sk’in pric’k te’st, RA’ST ইত্যাদি টে’স্ট করতে হয়। বিশেষত, ই’য়োসিনোফিলের মা’ত্রা বেশি আছে কিনা।*

*সি’রাম আই’জিই’র মাত্রা: অ্যা’লার্জি রোগীদের ক্ষেত্রে আইজিই’র মাত্রা সাধারণত অ্যা’লার্জি রো’গীদের ক্ষেত্রে আই’জিই’র মাত্রা বেশি থাকে।*’
*স্কি’ন প্রি’ক টে’স্ট: এই পরীক্ষায় রোগীর চামড়ার ওপর বিভিন্ন অ্যা’লার্জেন দিয়ে পরীক্ষা করা হয় এবং এই পরীক্ষাতে কোন কোন জিনিসে রোগীর অ্যা’লার্জি আছে তা ধরা পড়ে।*
*চিকিৎসা পদ্ধতি: অ্যালা’র্জেন পরিহার: যেসব বস্তুর/খাবার এর প্রতি আপনি সংবেদ’নশীল সেগুলো এড়িয়ে চলুন। ওষু’ধ প্র’য়োগ: প্রয়োগ করা যেতে পারে এন্টি’হিস্টামিন জাতীয় ওষু’ধ।*
*না’কের ড্র’প: অক্সিমে’টাজোলিন, জাই’লো-মেটা’জোলিন। এ ধরনের ওষুধ দীর্ঘদিন ব্যবহার করলে ‘রি’বাউন্ড ফেন’মেনন’ হয় অর্থাৎ ওষুধ বন্ধ’ করলে নাক অতিরিক্ত ব’ন্ধ অনুভূ’ত।*

*না’কের স্টের’য়েড: দীর্ঘদিন ব্যবহার করতে হয়। ‘রিবা’উন্ড ফেন’মেনন’ হয় না। অ্যা’লার্জি ভ্যা’কসিন বা ইমুনো’থেরাপি: অ্যালা’র্জি ভ্যাক’সিন বা ইমুথেরা’পির মূল উদ্দেশ্য হলো যে ‘মা’ইট’ থেকে অ্যা’লার্জিক রাই’নাইটিস সম’স্যা হচ্ছে সেই ‘মাই’ট’ অ্যালা’র্জেন স্বল্প মাত্রায় প্রয়োগ করা হয়। ক্রমান্বয়ে সহনীয় বেশি মাত্রায় দেওয়া হয় যাতে শরীরের অ্যা’লার্জির কোনো প্রতিক্রিয়া দেখা না দেয়। তবে শরীরের বিপা’কীয় প্রক্রি’য়ার পরিবর্তন ঘটায় বা শরীরের অ্যা’লার্জির বিরু’দ্ধে প্রতি’রোধ ক্ষম’তা গড়ে তুলে।*

*করণীয়: ঘর পরিচ্ছন্ন রাখুন, ঘরে কাগজ জমতে দেবেন না, বিশেষ মৌসুমে প্রয়োজন ছাড়া বাইরে যাবেন না, নাকে মা’স্ক ব্যব’হার করুন, কার্পেট নিয়মিত পরিষ্কার করুন, পুরাতন কা’র্পেট সরি’য়ে ফে’লুন, পো’ষা প্রাণীকে নিয়মিত গো’সল করান। মনে রাখবেন এসব ক্ষেত্রে প্রতি’কার নয় প্রতি’রোধ সর্বদা উত্তম।*
*অধ্যাপক ডা. মণিলাল আইচ লিটু, বিভাগীয় প্রধান, নাক-কান-গলা বিভাগ, মুগদা মে’ডিকেল কলে’জ ও হাস’পাতাল, ঢাকা।*