প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয় *পরিবহন ‘মা’ফিয়া চ’ক্রের’ প্রতি নত’জানু সরকার, ধর্ম’ঘট প্রত্যা’হার*

*পরিবহন ‘মা’ফিয়া চ’ক্রের’ প্রতি নত’জানু সরকার, ধর্ম’ঘট প্রত্যা’হার*

111
*পরিবহন 'মাফিয়া চক্রের' প্রতি নতজানু সরকার, ধর্মঘট প্রত্যাহার*

*স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে বা’স, ট্রা’ক ও পণ্য পরিবহন মালিক-শ্রমিক সমি’তির নে’তাদের বৈঠক শেষ হয়েছে। টানা ৩ ঘন্টারও বেশি সময় ধরে চলা এই বৈঠক শেষে, ধর্ম’ঘট প্রত্যা’হারের ঘো’ষণা দিয়েছেন পরিবহন নে’তারা। তবে সেক্ষেত্রে শর্তজুড়ে দিয়েছেন পরিবহন সে’ক্টরের নে’তৃবৃন্দ। তাদের এসকল শর্ত সম্পর্কে এখনই বিস্তারিত কোনো ত’থ্য জানা যায়নি।*

*বুধবার (২০ নভেম্বর) দিনব্যাপী সড়ক পরিবহন আই’ন সং’শোধনের দা’বিতে- পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের ডাকা এই আকস্মিক ধর্ম’ঘটের প্রেক্ষিতে রাত সাড়ে ৯টা নাগাদ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ধানমন্ডিস্থ বা’সভবনে, পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের সঙ্গে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে নতুন সড়ক পরিবহন আ’ইন স্থ’গিতের দা’বিতে পরিবহন-মালিক শ্রমিকদের ডাকা ধর্ম’ঘট প্র’ত্যাহার করে নেয়া হয়।*

*বৈঠক শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে দেয়া এক বি’বৃতিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আ’ইনে যে কয়টি ধা’রা নিয়ে তারা আবে’দন করেছেন, সেগুলো সংশো’ধনের জন্য আমরা যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে সু’পারিশ আকারে পাঠাবো। আর তাদের যেসব কাগজপত্রে সমস্যা আছে, সেগুলো সং’শোধন করে নেওয়ার জন্য জুন নাগা’দ সময় দেয়া হয়েছে। তাদের দা’বিগুলো আমরা মেনে নিয়েছি।’*

*এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন— বাংলাদেশ ট্রা’ক-কাভা’র্ডভ্যান পণ্য পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক রুস্তম আলী খান, যুগ্ম আহ্বায়ক হাজী মুগবুল আহমেদ, সদস্য সচিব ও বাংলাদেশ আন্তঃজেলা ট্রা’কচালক ইউ’নিয়নের সভাপতি তাজুল ইসলাম, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ ও বাংলাদেশ ট্রা’ক-কা’ভার্ডভ্যান মালিক সমিতির সভাপতি মো. তোফাজ্জল হোসেন মজুমদারসহ ২০ স’দস্যের একটি প্রতিনিধি দল।*

*ঢাকা ছাড়াও বিভিন্ন বিভাগীয় শহরের শ্রমিক-মালিক নে’তারাও এতে উপস্থিত ছিলেন। উক্ত বৈঠকে সড়’ক ও জ’নপথ বিভাগের সচিব নজরুল ইসলাম ও বিআ’রটিএ’র কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন। পূর্বনির্ধারিত এই বৈ’ঠকে যোগ দিতে রাত সাড়ে ৮টার পর থেকেই বিভিন্ন পরিবহন শ্রমিক নে’তারা মন্ত্রীর বা’সভবনে আসতে শুরু করেন।*

*এর আগে মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) ট্রা’ক ও পণ্য পরিবহন শ্রমিকরা ধর্মঘ’টের ডাক দেন। দেশের বিভিন্ন রু’টে গণপরিবহন ব’ন্ধ রেখেছেন তারা। সেই সঙ্গে রাজধানীর বেশ কিছু এলাকায় যান চলাচলেও বা’ধা দেওয়া হয়। আজকের বৈঠকের আগে গতকাল (মঙ্গলবার) রাতেও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে পরিবহন শ্রমিক ও মালিকদের একটি বৈঠ’ক হয়। তবে ওই বৈঠকে কোনও সি’দ্ধান্তে আসতে পারেননি তারা। অবশেষে বুধবারের এই বৈ’ঠকের মধ্যদিয়ে স্ব’স্তির আশ্বাস পেল কোণ’ঠাসা সাধারণ মানুষ।*