প্রচ্ছদ রাজনীতি *যুবলীগের দ’খল নিতে ও দ’খল ধরে রাখতে ম’রিয়া যারা*

*যুবলীগের দ’খল নিতে ও দ’খল ধরে রাখতে ম’রিয়া যারা*

494
*যুবলীগের দখল নিতে ও দখল ধরে রাখতে মরিয়া যারা*

*বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কং’গ্রেস আগামী ২৩ নভেম্বর। আওয়ামী লীগের অন্যান্য ভ্রাতৃপ্রতীম ও সংগঠ’নগুলোর কা’উন্সিল সুষ্ঠুভাবে হলেও যুবলীগের কংগ্রে’স নিয়ে নানা রকমের গু’ঞ্জন এবং প্রভাব’বিস্তারের চে’ষ্টা দেখতে পাওয়া যাচ্ছে।*
*আওয়ামী লীগের দায়ি’ত্বশীল সূ’ত্রগুলো বলছে, আওয়ামী লীগের সবচেয়ে প্রভা’বশালী এবং শক্তি’শালী সংগ’ঠন যুবলীগ। আর এজন্যই যুবলীগের ক’র্তৃত্ব নিতে ম’রিয়া হয়ে উঠেছেন আওয়ামী লীগের অনেক কে’ন্দ্রীয় নে’তারা। তবে যুবলীগের সাধারণ নে’তৃবৃন্দ মনে করেন যুবলীগের ক’র্তৃত্ব থাকা উচিত একমাত্র আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে। কিন্তু ছাত্রলীগের মতো যুবলীগেও একটা সিন্ডি’কেট কাজ করছে এবং এই সিন্ডি’কেট যেকোন মূল্যে যুবলীগের ক’র্তৃত্ব নিজেদের কাছে রাখতে চান।*

*যুবলীগের কংগ্রে’সের আগে সবচেয়ে সক্রি’য় দেখা যাচ্ছে আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানককে। জাহাঙ্গীর কবির নানক আজ সম্মে’লন স্থান পরি’দর্শন করেছেন। গণমাধ্যমে যুবলীগ নিয়ে বিভিন্ন বক্ত’ব্য রেখেছেন। যুবলীগ নিয়ে তার আ’গ্রহ বেশ। তার বাড়িতে প্রতিদিনই যুবলীগের বিভিন্ন নে’তৃবৃন্দর খবর পাওয়া যাচ্ছে। কমি’টি যেন তার আশী’র্বাদপুষ্ট হয় এবং কমি’টিতে যেন তার কর্তৃ’ত্ব থাকে সেজন্য তিনি প্রচ’ন্ড স’ক্রিয় বলে একাধিক দা’য়িত্বশীল সূ’ত্র নি’শ্চিত করেছে।*

*অন্যদিকে ঐতিহ্য’গতভাবেই যুবলীগের কর্তৃ’ত্ব থাকে শেখ সেলিম পরি’বারের উপর। শেখ সেলিম যেমন যুবলীগের চেয়ার’ম্যান ছিলেন তেমনি সংগ’ঠনটির সর্ব’শেষ চেয়া’রম্যান ছিলেন শেখ সেলিমের বোনের জামাতা ওমর ফারুক চৌধুরি। আর এখনো যুবলীগে আছেন শেখ সেলিমের ছোট ভাই শেখ মারুফ এবং শেখ সেলিমের পুত্র শেখ ফাহিম। যদিও মারুফ বর্তমানে যুবলীগের কার্য’ক্রমের মধ্যে নেই। যেহেতু গণ’ভবনে তিনি নিষি’দ্ধ হয়েছেন সেহেতু যুবলীগের বর্তমান সম্মে’লন কর্ম’কাণ্ডে তিনি অনু’পস্থিত। কিন্তু শেখ ফজলুল করিম সেলিমের একটি বিরা’ট সম’র্থক গো’ষ্ঠী রয়েছে এবং শেখ সেলিমের পুত্র শেখ ফাহিম এবার সম্মে’লনে অভ্য’র্থনা ক’মিটির সদস্য। শেখ সেলিমর একটি নীরব প্র’ভাব সব সময়ই যুবলীগের মধ্যে আছে। এরাও চাইছেন যে যুবলীগের ক’র্তৃত্ব তাদের কাছে নিতে। যুবলীগ যেন শেখ সেলিমের ব’লয়ের মধ্যেই থাকে সেটা নি’শ্চিত করার জন্য এই গো’ষ্ঠীও মরি’য়া হয়ে উঠেছে।*

*এর বাইরেও একটি নীরব ধারা যুবলীগে রয়েছে। যারা মনে করে যুবলীগ সব সময়ই যেভাবে ছিল, আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছিলেন যুবলীগের আদ’র্শিক নে’তা। তাঁর নে’তৃত্ব এবং কর্তৃ’ত্বেই যুবলীগ পরিচা’লিত হওয়া উচিত এবং এই গ্রু’পের এখন নে’তৃত্ব দিচ্ছেন যুবলীগ সম্মেল’নের প্রস্তু’তি ক’মিটির আহ্বা’য়ক চয়ন ইসলাম। তিনি মনে করছেন, যুবলীগ যদি সিন্ডি’কেট মু’ক্ত করা যায় তাহলে যুবলীগ সক্রি’য় এবং সবচেয়ে কা’র্যকর সংগ’ঠন হিসেবে আ’ত্মপ্রকাশ করবে।*

*এছাড়াও যুবলীগের সম্মে’লনের আগে ঢাকা দক্ষিণে মিল্কি হ’ত্যা মাম’লার দুজন অসা’মীর শো ডা’উন নিয়ে যুবলীগের মধ্যে নানা রকম উত্তে’জনা ও অস্ব’স্তি তৈরি হয়েছে। এই দুই জন আসা’মীর একজন দীর্ঘদিন দেশের বাইরে থাকার পর সম্প্রতি দেশে ফিরে স’ক্রিয় হয়েছেন। তিনি ২০১৪ সালের নির্বাচনে বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের বি’রুদ্ধে প্রা’র্থী হওয়ায় ঘো’ষণা দিয়েছিলেন। এছাড়াও তার বিরু’দ্ধে একাধিক অভি’যোগ রয়েছে।*

*এছাড়া সদ্য বহিষ্কৃ’ত ইসমাইল চৌধুরি সম্রাটের একজন ক্যা’ডার এবং যুবলীগ দক্ষিণের সা’বেক সাধারণ সম্পাদক যিনি মিল্কি হ’ত্যা মাম’লার অভি’যুক্ত হওয়ার কারণে যুবলীগ থেকে ব’হিষ্কৃত হয়েছেন। তাকেও হঠাৎ করে যুবলীগ কার্যালয়ে শো ডা’উন করতে দেখছেন দলের নে’তা-কর্মীরা। এসব নিয়ে যুবলীগের মধ্যে নানা রকম কথাবা’র্তা ছড়ি’য়ে পড়েছে। যুবলীগের সাধারণ নে’তাকর্মীরা প্রশ্ন করছেন যে, যুবলীগ কি সম্মে’লনের মধ্যে নেই। যুবলীগ কি আগের মতো গড্ডা’লিকা প্রবা’হের দিকেই যাবে। নাকি দূষ’ণমুক্ত একটি প’রিচ্ছন্ন যুবলীগ আত্ম’প্রকাশ করবে। সেটাই দেখার বিষয়।*
*রাজনৈতিক বি’শ্লেষকরা বলছেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেহেতু যুবলীগের বি’রুদ্ধে শু’দ্ধি অ’ভিযান শুরু করেছিলেন। কাজেই যুবলীগে একটি পরিচ্ছ’ন্ন নে’তৃত্ব দিতে তিনি দৃ’ঢ় প্রতি’জ্ঞ এবং এই কা’উন্সিলে যুবলীগের নেতৃ’ত্বের ব্যপারে তিনি একটা চ’মক দেখাবেন।*