প্রচ্ছদ আইন-আদালত *তুরিন আফরোজ যে অ’ডিও রেক’র্ডের কারণে ফেঁ’সে গেলেন*

*তুরিন আফরোজ যে অ’ডিও রেক’র্ডের কারণে ফেঁ’সে গেলেন*

104
*তুরিন আফরোজ যে অডিও রেকর্ডের কারণে ফেঁসে গেলেন*

*মানবতা’বিরোধী অপ’রাধের মা’মলায় গ্রেপ্তার ওয়াহিদুল হকের মো’বাইল ফো’নে থাকা দুই অ’ডিও রেক’র্ডের কারণে ফেঁ’সে যান আন্তর্জাতিক অপ’রাধ ট্রা’ইব্যুনালের প্রসি’কিউটর প’দ থেকে সদ্য অপসা’রিত ব্যারি’স্টার তুরিন আফরোজ। রাজধানীর গুলশান থেকে ২০১৮ সালের ২৪ এপ্রিল জাতীয় নিরা’পত্তা গো’য়েন্দা সং’স্থার (এনএ’সআই) সাবেক মহা’পরিচালক ওয়াহিদুল হককে গ্রেপ্তার করে গুল’শান থানা পুলিশ।*
*ওই সময় তার মো’বাইল ফো’নটিও জ’ব্দ করে পুলিশ। পরে সেটি পরী’ক্ষা করতে গিয়ে দুটি অ’ডিও রে’কর্ড পাওয়া যায়। ওই অডি’ওতে তার সঙ্গে ব্যারি’স্টার তুরিনের যোগাযোগের ত’থ্য ছিল।*

*গুলাশান থানার ভার’প্রাপ্ত কর্ম’কর্তা (ও’সি) অ’ডিও রেক’র্ড দুটি ক’পি করে আন্তর্জাতিক অপ’রাধ ট্রাইব্যু’নালের ত’দন্ত সং’স্থার কাছে হস্তা’ন্তর করেন। পরে সং’স্থা তা ট্রাইব্যু’নালের চি’ফ প্রসি’কিউটরকে দিলে তুরিনের বি’রুদ্ধে ব্য’বস্থা গ্রহণ শুরু হয়।*
*দুটি অ’ডিওর মধ্যে একটি টেলি’ফোন কথোপক’থনের রে’কর্ড। এটি চার মিনিটের মতো। অন্য অ’ডিওটি ওই গো’পন বৈঠকের, প্রায় পৌনে তিন ঘণ্টার মতো।*
*জানা গেছে, ব্যারি’স্টার তুরিন আফরোজের বি’রুদ্ধে তিনটি অভি’যোগে তদ’ন্ত হচ্ছিল। তা হলো- আসা’মি ওয়াহিদুল হকের সঙ্গে গো’পন বৈঠ’ক, মাম’লার ন’থি তার কাছে হস্তান্তর ও মাম’লার মে’রিট নিয়ে কথা বলা।*

*অভি’যোগের প্রমাণ ও অ’ডিও রে’কর্ড আই’ন মন্ত্র’ণালয়ে হস্তা’ন্তর করেন ট্রাইব্যু’নালের চি’ফ প্রসি’কিউটর গোলাম আরিফ টিপু। প্রাথমিকভাবে অভি’যোগের সত্যতা পাওয়ায় তুরিন আফরোজকে ট্রাইব্যু’নালের সব মাম’লা থেকে অব্যা’হতি দেওয়া হয়েছে।*
*জানা গেছে, আসামি ওয়াহিদুল হকের মাম’লার প্রসি’কিউটর ব্যারি’স্টার তুরিন আফরোজ এবং তদ’ন্ত কর্মক’র্তা মতিউর রহমান। গত বছর ত’দন্ত শুরু হওয়ার পর ২০১৭ সালের ১১ নভেম্বর তুরিন আফরোজকে মাম’লা পরিচাল’নার দা’য়িত্ব দেওয়া হয়।*

*অভিযোগ উঠে, ওয়াহিদুল হককে গ্রেপ্তারের আগে গত নভেম্বরে তুরিন আফরোজ প্রথমে তাকে টেলি’ফোন করে দেখা করার সময় চান। এরপর একটি হো’টেলে ওয়াহিদুল হকের সঙ্গে গো’পন বৈঠ’কও করেন তিনি।*
*তদ’ন্ত সং’স্থার সিনি’য়র সম’ন্বয়ক সানাউল হক বলেছিলেন, তাদের টেলি’ফোনে কথা হয় গত বছরের ১৮ নভেম্বর। আর পর দিন ঢাকার অ’লিভ গার্ডে’ন নামে একটি রে’স্তোরাঁর গো’পন ক’ক্ষে বৈ’ঠকটি হয়। সেখানে তুরিন আফরোজ, তার সহকারী ফারাবি, আসামি ওয়াহিদুল হকসহ মোট পাঁচজন ছিলেন।*
*সানাউল হক জানান, টেলি’ফোন রেক’র্ডে তুরিন আফরোজ জানিয়েছেন যে তিনি বো’রকা পরে ওই হো’টেলে যাবেন। তার সঙ্গে থাকবে সহকারী ফারাবি, যাকে তিনি নিজের স্বামী পরিচয়ে সেখানে নিয়ে যাবেন।*