প্রচ্ছদ বিশ্ব *মিয়া’নমারের বি’রুদ্ধে আন্তর্জাতিক আ’দালতে মাম’লা করল গা’ম্বিয়া*

*মিয়া’নমারের বি’রুদ্ধে আন্তর্জাতিক আ’দালতে মাম’লা করল গা’ম্বিয়া*

56
*মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করল গাম্বিয়া*

*জা’তিসংঘের সর্বোচ্চ বিচা’রিক সং’স্থা আন্তর্জাতিক বি’চার আদা’লতে মিয়া’নমারের বি’রুদ্ধে মা’মলা করেছে গাম্বি’য়া। বার্তা সং’স্থা র’য়টার্স বলছে, গাম্বি’য়ার বি’চার মন্ত্রী আবুবকর তামবা’দউ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।*
*গা’ম্বিয়া ও মি’য়ানমার দু’দেশেই ১৯৪৮ সালের জেনো’সাইড কনভে’নশনে স্বাক্ষ’রকারী দেশ যেটি শুধু দেশগুলোতে গণহ’ত্যা থেকে বি’রত থাকা নয় বরং এ ধরনের অ’পরাধ প্রতি’রোধ এবং অপ’রাধের জন্য বি’চার করতে বা’ধ্য করে।*
*হি’উম্যান রা’ইটস ওয়া’চের এক বিজ্ঞ’প্তিতে বলা হয়েছে মূলত জে’নোসাইড কনভে’নশন লঙ্ঘ’নের অ’ভিযোগে মামলা’টি হয়েছে বলে ১০টি বেসর’কারি সং’স্থার এক বিজ্ঞ’প্তিতে বলা হয়েছে।*

*সং’স্থার অ্যাসোসি’য়েট ইন্টা’রন্যাশনাল জা’স্টিস ডিরে’ক্টর পরম প্রীত সিংহ বলছেন, গা’ম্বিয়ার আই’নি পদ’ক্ষেপ বিশ্বের সর্বোচ্চ আদা’লতে একটি আ’ইনি প্রক্রিয়ার সূ’চনা করলো, যেটা প্রমাণ করতে পারে যে রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমারের নি’ষ্ঠুরতা জেনো’সাইড কন’ভেনশন লঙ্ঘ’ন করেছে।*
*যেসব বেসরকারি সং’স্থা এ উদ্যোগকে সমর্থন করছে তাদের মধ্যে আছে ‘নো পি’স উইদা’উট জা’স্টিস, ইউরো’পিয়ান সে’ন্টার ফ’র কন্স’টিটিউশনাল অ্যা’ন্ড হিউম্যা’ন রা’ইটস, দি ইন্টা’রন্যাশনাল ফেডা’রেশন ফ’র হিউ’ম্যান রাই’টস, গ্লো’বাল জাস্টি’স সেন্টা’রে ও হিউ’ম্যান রাই’টস ও’য়াচের মতো সংস্থা’গুলো।*

*ইন্টার’ন্যাশনাল কো’র্ট অ’ব জাস্টি’স বা আন্তর্জাতিক বিচা’র আদাল’তে প্রথম জেনো’সাইড কনভেন’শন মাম’লা হয়েছিল সার্বিয়ার বি’রুদ্ধে ১৯৯৩ সালে এবং তাতে প্রমাণ হয়েছিলো যে সার্বিয়া ব’সনিয়া হার্জে’গোভিনিয়ায় গণ’হত্যা প্রতি’রোধে ব্য’র্থ হয়েছিল।*
*কানাডা, বাংলাদেশ, নাইজেরিয়া, তুরস্ক এবং ফ্রান্স জো’র দিয়ে বলেছে যে রোহিঙ্গাদের ওপর মি’য়ানমার গণ’হত্যা চালিয়েছে। ইসলামী দেশসমূহের সংগঠন ওআ’ইসি তার ৫৭টি সদস্য দেশকে উৎসাহিত করেছে যেন তারা মিয়ান’মারকে আ’দালতে নিয়ে আসে।*

*মাল’য়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীও অভি’যোগ করেছেন যে মিয়া’নমার রো’হিঙ্গাদের ওপর গ’ণহত্যা চা’লিয়েছে এবং তিনিও মিয়ান’মারকে আদা’লতে তোলার প্র’য়াস নেবার আ’হ্বান জানান।*
*নো’ পি’স উইদা’উট জাস্টি’স সংস্থা’র একজন পরিচালক এ্যা’লিসন স্মি’থ বলেন, দি গা’য়া এমন একটি দেশ যারা কিছুকাল আগেই একনায়’কতান্ত্রিক শা’সন থেকে মুক্তি পেয়েছে। এমন একটি দেশ যে রোহিঙ্গা গ’ণহত্যার ক্ষেত্রে নেতৃ’ত্বের ভূমিকা নিয়েছে তা সাধু’বাদ পাবার যোগ্য, এবং অন্য দেশগুলোর উচিত এ দৃষ্টান্ত অনুসরণ করা।*

*২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘ সমর্থিত স্বাধীন আন্তর্জাতিক ত’থ্য-অনু’সন্ধানী মি’শন সিদ্ধা’ন্তে উপনীত হয় যে “গণ’হত্যা ঠে’কানো, ত’দন্ত করা এবং এর শা’স্তির আই’ন করার ক্ষেত্রে তার দায়ি’ত্ব পাল’নে ব্যর্থ হয়েছে মিয়ান’মার।*
*ত’থ্যানুসন্ধানী মি’শন বলেছে, নারীদের ওপর যে যৌ’ন সহিং’সতা চালা’নো হয়েছে তার প্রকৃতি এবং মাত্রা থেকেই বোঝা যায় যে মিয়ান’মার রাষ্ট্রের ইচ্ছা ছিল রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে ধ্বং’স করা।*
*আন্তর্জা’তিক মানবাধি’কার ফেডা’রেশনের এশিয়া পরিচালক আ’ন্দ্রেয়া গিও’রগেটা বলেন, গাম্বি’য়ার করা মাম’লা মিয়ানমা’রের ওপর ‘স’হিংসতার পথ ত্যা’গ করা এবং দো’ষীদের শা’স্তি দেবার জন্য’ চা’প সৃ’ষ্টি করতে পারে।*