প্রচ্ছদ খেলা ক্রিকেট *এবার বিসিবির পক্ষে দাঁড়িয়ে যা বললেন সাকিব*

*এবার বিসিবির পক্ষে দাঁড়িয়ে যা বললেন সাকিব*

115
*এবার বিসিবির পক্ষে দাঁড়িয়ে যা বললেন সাকিব*

*সাকিব আল হাসান, বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় তারকা। বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার। কিন্তু সম্প্রতি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে তাকে এক বছরের স্থগিতসহ মোট ২ বছরের জন্য নি’ষিদ্ধ করেছে আইসিসি।*
*জু’য়াড়ির কাছ থেকে পাওয়া প্রস্তাব গোপন করায় তার বি’রুদ্ধে এই শা’স্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়।*

*এদিকে, সাকিব নি’ষিদ্ধ ইস্যুতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ভূমিকা নিয়ে দেশজুড়ে নানা জল্পনা কল্পনা চলছে।*
*এর মধ্যেই সাকিব জানালেন, এটা ছিল আই’সিসির অ্যা’ন্টি করা’পশন ইউনি’টের গোপন তদ’ন্ত। এ বিষয়ে রিপোর্ট প্রকাশের কয়েকদিন আগেই কেবল বিসিবি আমার কাছ থেকে বিষয়টি জানতে পারে। তখন থেকে তারা আমার অবস্থান উপলদ্ধি করে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করেছে। এজন্য আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ।*

*শুক্রবার দিবাগত রাতে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এসব কথা জানান সাকিব। এই দুঃসময়ে তার পাশে থাকার জন্য ভক্ত-শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।*
*সাকিব লেখেন, এটি একটি প্রক্রিয়ার মধ্যে হয়েছে এবং আমি তা মেনে নিয়েছি। আমার সমস্ত মনোযোগ এখন ২০২০ সালে বাংলাদেশের হয়ে খেলার মাঠে ফিরে আসার দিকে।*
*সে পর্যন্ত ভক্তদের দোয়া ও সমর্থন চেয়েছেন সাকিব আল হাসান।*

*নিষে’ধাজ্ঞা নিয়ে ফেসবুকে যা লিখলেন সাকিব:*
*আমার সকল ভক্ত ও শুভানুধ্যায়ীদের উদ্দেশ্যে শুরুতেই আমি বলতে চাই আপনার নিঃশর্ত ভালোবাসা ও অকুন্ঠ সমর্থনে আমি সত্যিই আবেগাপ্লুত। বিশেষ করে গত কয়েকটা দিন আমার এবং আমার পরিবারের জন্য খুবই কঠিন ছিল। এই কয়েক দিনে আমি আরও ভালোভাবে বুঝতে পেরেছি যে নিজ দেশের প্রতিনিধিত্ব করা আসলে কতটা গর্বের।*

*এ বিষয়ে আমি আমার সকল সমর্থকদের বলবো ধৈর্য্য ধারণ করুন। বিশেষ করে যারা আমার ওপর আসা নিষেধাজ্ঞার কারণে ক্ষুদ্ধ হয়েছেন।*
*আমি এটা পরিষ্কার করে বলতে চাই যে, আইসিসির অ্যান্টি করাপশন ইউনিট যে ত’দন্তটা করেছে, এটা পুরোপুরি গোপন ছিল এবং এ ব্যাপারে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) জানতে পেরেছে আমার কাছ থেকেই। আমাকে নিষিদ্ধ করার কয়েক দিন আগে। এরপর থেকে বিসিবি আমাকে অনেক সাহায্য করেছে এবং আমার অবস্থা বোঝার চেষ্টা করেছে। এ কারণে আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞ।*

*আমি বুঝতে পারছি কেনো অনেক মানুষ আমাকে সাহায্য করতে চাইছে। আমি তাদের এই ইচ্ছাকে সাধুবাদ জানাই। যাই হোক, এটা একটা প্রক্রিয়া ছিল এবং আমি আমার শা’স্তি মেনে নিয়েছি। কারণ আমার মনে হয়েছে এটা করাই হবে সঠিক সি’দ্ধান্ত।*
*আমার পুরোপুরি ধ্যানজ্ঞান এখন আবারও ক্রিকেট মাঠে ফেরা এবং ২০২০ সালে বাংলাদেশের হয়ে খেলা। তার আগ পর্যন্ত আমার জন্য দোয়া করবেন এবং হৃদয়ে রাখবেন। সবাইকে ধন্যবাদ।’*
*(সাকিব আল হাসানের ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)*