প্রচ্ছদ খেলা ক্রিকেট *সাকিবকে চা’প দিয়ে সারে’ন্ডার করিয়েছে বিসিবি: সাবের*

*সাকিবকে চা’প দিয়ে সারে’ন্ডার করিয়েছে বিসিবি: সাবের*

301
*সাকিবকে চাপ দিয়ে সারেন্ডার করিয়েছে বিসিবি: সাবের*

*সাকিব আল হাসানের নিষে’ধাজ্ঞার বিষয়টি পরিকল্পিতভাবে ঘটেছে বলে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সাবেক সভাপতি সাবের হোসেন চৌধুরী। গণমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সাবের বলেন, ‘ক্রিকেট থেকে সাকিবকে নির্বাসিত করতে আইসিসি এবং বিসিবি সমন্বিতভাবে কাজ করেছে।’*

*সাবের বলেন, ‘একই তারিখে কয়েকটি ঘট’না ঘট’লো। আই’সিসির রিপোর্টে আছে বিস্তারিত। ২৯ তারিখ সাকিবকে আনুষ্ঠানিকভাবে জেরা করা হলো। ওই তারিখেই সাকিব স্বীকার করলো, লেটার অব এগ্রি’মেন্ট সই করলো। একই দিনে আইসিসি এই সংবাদ তাদের ওয়েবসাইটে দিলো। ২৯ তারিখেই বিসিবির মিটিং চললো। একই দিনে এই ঘো’ষণার পর ইন্ডিয়ার টিম ঘোষ’ণা করা হলো। সব একই দিনে!*

*তার মানে এই কাজটি নিশ্চয়ই আইসিসির সঙ্গে সমন্বয় করে ক্রিকেট বোর্ড করেছে। না হলে ক্রিকেট বোর্ডের সভা কেনো বিকাল ৩টা থেকে শুরু হবে? শুরু হলেও কেন আইসি’সির আনুষ্ঠানিক ঘো’ষণা পর্যন্ত চলল। এতোগুলো ঘট’না একদিনে কীভাবে হয়। বিসিবির বোর্ড মিটিংয়ের শিডি’উল ছিল ৩টায়। তারপর আবার টিম ঘোষণা হলো। তার মানে তারা জানতো ২৯ তারিখে আইসি’সির সিদ্ধা’ন্ত আসবে।’*

*এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘এ ঘটনায় বিসিবি দ্রুত মিডিয়ায় একটি প্রেস নো’ট দিয়ে দিলো এবং এক ধরনের স্বাগত জানালো। আইসিসির যে রায়, এখানে তারা তিনটি ঘটনার কথা বলছে। আমার মনে হয়, এই রায়ের ময়নাতদন্ত করা উচিত যাতে ভবিষ্যতে এরকম আরেকটি ঘট’না না ঘ’টে।*

*আইসি’সির নতুন কোড অব কন্ডা’ক্ট কিন্তু ফেব্রুয়ারির ৯ তারিখ থেকে কার্যকর হয়েছে। কোড অব কন্ডাক্ট চালু হওয়ার পর থেকে ধরলে দুটি অপ’রাধে সাকিব অভিযু’ক্ত না। সাকিবের যদি দুটি অপ’রাধ বাদ হতো তাহলে কিন্তু একটা থাকে। তার জন্য সাজা হতো ছয় মাস। কিন্তু ছয় মাস আর এক বছরের সঙ্গে আরও এক বছরের ব্যবধান অনেক। এই জায়গায় বিসিবির উচিত ছিল তাদের কাছ থেকে জানা।’*

*এক ধরনের চাপের মুখে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সাকিব– এমন দাবি করে সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘আইসি’সির রিপোর্টে বলা হয়েছে, সাকিব আল হাসান এই বিষয়ে আর কোনও শুনানির প্রয়োজন মনে করে না এবং সময় বাঁচাতে চেয়েছে। শুনানি আর আত্মপক্ষ সমর্থন এটা প্রাকৃতিক বিচার ব্যবস্থা। সাকিবকে কিন্তু চাপ দিয়ে সারেন্ডা’র করাল।*

*যেন তাকে বলা হচ্ছে যে– ‘আমি তোমাকে হালকা শা’স্তি দেবো।’ ক্রিকেট বোর্ডের দায়িত্ব তো খেলোয়াড়ের পাশে দাঁড়ানো। আইসি’সির সঙ্গে এই এগ্রি’মেন্ট একই দিনে না করে যদি ভারত সফরের পরে করতো তাতে সমস্যা কী ছিল? এই যে এক দিনে এতগুলো ঘটনা, এখানে কি কোনও সমন্বয় ছিল না আইসিসি আর বিসিবির মধ্যে? এটা আমার কাছে বিশ্বাস হয় না।’*