প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয় *শিল্পী পরিচয়ের আ’ড়ালে সুবর্ণার ফ্ল্যা’টে যা চলতো*

*শিল্পী পরিচয়ের আ’ড়ালে সুবর্ণার ফ্ল্যা’টে যা চলতো*

412
শিল্পী পরিচয়ের আড়ালে নারী ও মাদকের আখড়া ছিল সুবর্ণার ফ্ল্যাট

*শিল্পী পরিচয়ের আড়া’লে ই’য়াবাসহ আট’ক সুবর্ণা রুপার ফ্ল্যাটে ছিলো ভিন্ন ব্যবসা। মূলত নারী ও মা’দকের আখ’ড়া ছিলো তার ফ্ল্যা’ট। সূর্য অস্তের পরপরই তার বাসাতেই আয়োজন করা হতো পা’র্টির। যেখানে অংশ নিতেন সরকারি কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী, প্রবাসীসহ প্রভাবশালী অনেকে। গভীর রাত পর্যন্ত চলা সেই গান করতেন সুবর্ণা রুপাসহ অনেকে। এই পার্টিতেই নি’রাপদে ইয়া’বা সে’বন করতেন অতিথিরা। আর তাদের মনোরঞ্জনের জন্য থাকতো একঝাঁক সুন্দ’রী। গানে, মা’দকে বুঁ’দ হয়ে স্বল্প’বসনা তরুণীদের সঙ্গে না’চ করতেন পা’র্টিতে অংশগ্রহণকারীরা।*

*মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর খিলগাঁওয়ের তিলপাড়া এলাকায় তার বাসা থেকে শতাধিক পি’স ই’য়াবাসহ সুবর্ণা রুপাকে আ’টক করে মাদ’কদ্রব্য নিয়’ন্ত্রণ অধিদ’প্তরের সদস্যরা। পরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এমনই চাঞ্চ’ল্যকর তথ্য দিয়েছেন তারা।*
*খিলখাঁওয়ের সুবর্ণা রুপার বাসা থেকে রুবেল নামের এক যুবককেও আ’টক করা হয়। মাদ’কদ্রব্য নি’য়ন্ত্রণ অধিদ’প্তর সূত্রে জানা গেছে, রুবেলকে প্রথমে সুবর্ণা রুপা ভাই পরিচয় দিলেও এক পর্যায়ে জানিয়েছেন, পৈত্রিক নিবাস নোয়াখালীর সেনবাগের ছাতাপাইয়া এলাকার সম্পর্কে রুবেল তার ভাই হয়।*

*ই’য়াবা ও নারীদের খ’দ্দের সংগ্রহের কাজ করতেন এই রুবেল। সুবর্ণা রুপা জানিয়েছেন তার স্বামী রেজাউল করিম রেজা থাকেন সৌদি আরবে। তাদের বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া এক ছেলে ও স্কুল পড়ুয়া এক মেয়ে রয়েছে। দুই সন্তানই থাকেন কক্সবাজারে। কক্সবাজারের বাহারছড়ায় সুবর্ণা রুপার শ্বশুরবাড়ি। প্রতিবেশীরা জানান, ছেলে-মেয়ে খিলগাঁওয়ের ওই বাসায় তেমন আসতো না। মাঝে-মধ্যে এলে তখন ওই বাসায় কোনো পার্টি হতো না। বাইরের লোকজনও আসতো না। ছেলে-মেয়ে থাকাকালীন বোরকা পরে চলাফেরা করেন সুবর্ণা।*