প্রচ্ছদ খেলা ক্রিকেট *সাকিব আল হাসানকে যেভাবে ফাঁসায় ভারতীয় দীপক আগারওয়াল*

*সাকিব আল হাসানকে যেভাবে ফাঁসায় ভারতীয় দীপক আগারওয়াল*

779
*সাকিব আল হাসানকে যেভাবে ফাঁসায় ভারতীয় দীপক আগারওয়াল*

*সাকিবের সাথে যে বা’জিকর দফায় দফায় যোগাযোগের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন, তিনি দীপক আগারওয়াল। ভারতের নাগরিক, সবচেয়ে বড় পরিচয়- একজন বা’জিকর। ভদ্রলোকের খেলা ক্রিকেটে অনৈ’তিকতার প্রবেশ ঘটিয়ে অবৈ’ধ উপায়ে উপার্জন করতে চান অর্থ। তিনি ‘টার্গেট’ করেছিলেন সাকিবকেও। যদিও সাকিবের বিচক্ষণতায় সফল হননি। তবে শেষপর্যন্ত খামখেয়ালি সাকিবের চুপ থাকাটাই নিষে’ধাজ্ঞার মত শাস্তি ডেকে এনেছে।*

*সাকিবের এক ঘনিষ্ঠ ব্যক্তির কাছ থেকে মোবাইল নম্বর জোগাড় করেন আগারওয়াল, যে নম্বর দিয়ে সাকিব হোয়াইটস’অ্যাপ ব্যবহার করেন। তখন ২০১৭ সালের শেষভাগ, চলছে বিপি’এল। ঢাকা ডায়না’মাইটসে সাকিব। বাজিকর আগারওয়াল সাকিবের ঐ ঘনিষ্ঠ ব্যক্তির কাছে বিপিএলের আরও কজন ক্রিকেটারের নম্বর চান।*

*অন্য সব শুভাকাঙ্ক্ষীর মত আলাপচারিতা শুরু করেন আগারওয়াল। তিনি সাকিবের সাথে দেখা করার ইচ্ছা পোষণ করতেন। এ সময় তাদের স্বাভাবিক বার্তাও আদানপ্রদান হয়। ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজ খেলতে নামে বাংলাদেশ। ১৯ জানুয়ারি শ্রীলঙ্কাকে ১৬৩ রানে হারায় টাইগাররা। ম্যাচসেরা সাকিবকে অভিনন্দন জানিয়ে হোয়াটসঅ্যাপে বার্তা পাঠান বাজিকর আগারওয়াল।*

*তবে সাকিব তখনো আগারওয়ালের বাজিকর সত্তা ধরতে পারেননি। অভিনন্দন জানানোর পর তিনি সাকিবকে জিগ্যেস করেন, ‘আমরা কি এই সিরিজে কাজ করব, নাকি আইপিএল পর্যন্ত অপেক্ষা করব আমি।’ তখনই প্রথম বাজি’করের মত আচরণ করেন আগারওয়াল। কিন্তু সাকিব এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ করেননি আকসু বা অন্য কোনো দুর্নী’তি দমন সংস্থার কাছে।*

*সাকিব প্রসঙ্গে যা বললেন আ’ইসিসি মহাব্যবস্থাপক*
*দুই বছর আগে তিনটি ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব পেয়েও সেটি গোপন রাখার অভিযোগে আইসি’সি কর্তৃক সব ধরনের ক্রিকেট থেকে দুই বছরের জন্য নিষি’দ্ধ হয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।*
*ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা আই’সিসি আনুষ্ঠানিক ঘোষ’ণার মাধ্যমে এই তথ্য নিশ্চিত করেছে। তবে অপরাধ স্বীকার করে নেয়ায় এক বছরের শাস্তি স্থগিত করা হয়েছে। ক্রিকেটে ফিরবেন ২০২০ সালের ২৯ অক্টোবর। দায় স্বীকার করায় ১ বছরের শাস্তি স্থগিত।*

*দোষ স্বীকার করে আই’সিসির শা’স্তি মেনে নিয়েছেন সাকিব আল হাসান। শুধু তাই নয় ভবিষ্যতে অ্যান্টি’ করাপশন ইউনিটের সঙ্গে কাজ করে তরুণ খেলোয়াড়রা যেন এমন ভুল না করে সেই বিষয়ে উৎসাহিত করবেন।*
*সাকিবের শাস্তি প্রসঙ্গে বক্তব্য দিয়েছেন আইসিসির জেনারেল ম্যানেজার অ্যালেক্স মার্শাল। আন্তরিকতার সঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘সাকিব আল হাসান একজন অত্যন্ত অভিজ্ঞ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। তিনি অনেকগুলি শিক্ষামূলক অধিবেশনে অংশ নিয়েছেন এবং কোডের আওতায় তাঁর বাধ্যবাধকতাগুলি জানেন। এই পদ্ধতির প্রতিটি তার জানানো উচিত ছিল।’*

*‘সাকিব তার ভুল স্বীকার করেছেন এবং তদন্তে পুরোপুরি সহযোগিতা করেছেন। এমনকি ভবিষ্যতে অ্যা’ন্টি করা’পশন ইউনিটের সঙ্গে কাজ করার প্রস্তাব দিয়েছে। যাতে করে তরুণ খেলোয়াড়রা এ ভুল করতে না পারে। আমি তার এই প্রস্তাবে খুশি।’*