প্রচ্ছদ খেলা ক্রিকেট *ফলপ্রসূ আলোচনা বিসিবি‍‍`র সঙ্গে, মাঠে ফিরছে টাইগাররা*

*ফলপ্রসূ আলোচনা বিসিবি‍‍`র সঙ্গে, মাঠে ফিরছে টাইগাররা*

46
*ফলপ্রসূ আলোচনা বিসিবি‍‍`র সঙ্গে, মাঠে ফিরছে টাইগাররা*

অবশেষে সব জল্পনা-কল্পনা আর নাটকীয়তার অবসান ঘটিয়ে স্থগিত হলো ক্রিকেটারদের আন্দোলন। শুক্রবার থেকেই শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের ভারত মিশনের প্রস্তুতি। একই সঙ্গে জাতীয় ক্রিকেট লীগের তৃতীয় রাউন্ডও মাঠে গড়াবে শনিবার (২৬ অক্টোবর) থেকে।

বুধবার (২৩ অক্টোবর) রাতে বিসিবি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের পর এমন সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে বিসিবি ও ক্রিকেটাররা। এর আগে সোমবার (২১ অক্টোবর) মোট ১১ দফা দাবিতে ধর্মঘটের ডাক দেন জাতীয় দল ও প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটাররা।দাবি মানা না হলে সব ধরনের ক্রিকেটীয় কর্মকান্ড থেকে নিজেদের গুটিয়ে নেয়ার ঘোষণা দেন তারা। যার পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) বোর্ড কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। এরপর সংবাদ সম্মেলন করলেও সেখান থেকে কোনো সমাধানের পথ খুঁজে পাওয়া যায়নি।

বুধবার সারাদিন নানা নাটকীয়তার পর বিকালে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন বিসিবি সভাপতি পাপন ও কোয়াবের সভাপতি নাঈমুর রহমান দুর্জয়সহ বিসিবির প্রতিনিধি দল। এরপর তারা মিরপুরের ক্রিকেটারদের জন্য অপেক্ষা করলেও, ক্রিকেটাররা সেখানে না গিয়ে রাজধানীর গুলশানে একটি হোটেলে জমায়েত হন। সেখানে পূর্বঘোষিত ১১ দফার সঙ্গে আরও দুই দফা যোগ করার কথা জানান ক্রিকেটারদের মূখপাত্র ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান। এরপর আবারও বৈঠকে বসেন ক্রিকেটাররা।

তারপর সিদ্ধান্ত নেন বিসিবি কার্যালয়ে যাওয়ার। মিরপুরে গিয়ে বোর্ড কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসেন ক্রিকেটাররা, এরপর বোর্ড কর্তাদের সঙ্গে নৈশভোজেও অংশ নেন তারা। যেখান থেকে ক্রিকেটারদের ৯ টি দাবি তাৎক্ষণিকভাবে মেনে নেয়ার ঘোষণা দেন বিসিবি সভাপতি। টেস্ট ও টি-টুয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসানও সম্মতি দেন মাঠে ফেরার ব্যাপারে।
বোর্ড ও ক্রিকেটারদের যৌথ সংবাদ সম্মেলনে নাজমুর হাসান পাপন বলেন, ‘আমরা আগের দিনই বলেছিলাম সব দাবিই মেনে নেবো। আজও (বুধবার) আলোচনা হয়েছে। আমরা তাদের ৯টি দাবি মেনে নিয়েছি।’

বুধবার সন্ধ্যায় ক্রিকেটারদের যোগ করা নতুন দুই দফা নিয়ে তিনি বলেন, ‘নতুন দাবি নিয়ে আমরা আলোচনা করিনি। এগুলো আইনগত ভাবে দেখা হবে। এক নম্বর দাবিতে আমাদের কিছু করার নেই।’ আলোচনা থেকে ক্রিকেটাররা খুশি কি না এমন প্রশ্নের জবাবে সাকিব বলেন, ‘সব আলোচনা ফলপ্রসূ হয়েছে। আমাদের যা ডিমান্ড ছিল সবই শুনে দ্রুততার সঙ্গে বাস্তবায়নের জন্য বোর্ড ডিরেক্টররাসহ বৈঠকের সবাই আশ্বাস দিয়েছেন। আমরা আশ্বস্ত হওয়ার পর সিদ্ধান্ত নিয়েছি প্রথম শ্রেণীর খেলোয়াড়রা মাঠে যাবেন।
আগামী শনিবার থেকে (২৬ অক্টোবর)। আর আমরা ন্যাশনাল টিম ২৫ অক্টোবর (শুক্রবার) থেকে ক্যাম্পে যাবো। আমাদের বেশিরভাগ দাবি-দাওয়া বাস্তবায়নের পরই বলতে পারবো খুশি কি না। তবে আমরা আলোচনা নিয়ে খুশি।’