প্রচ্ছদ অর্থ-বাণিজ্য *এবার মোল্লা কাউসার ও তার স্ত্রী সন্তানের ব্যাং’ক অ্যা’কাউন্টও জ’ব্দ*

*এবার মোল্লা কাউসার ও তার স্ত্রী সন্তানের ব্যাং’ক অ্যা’কাউন্টও জ’ব্দ*

405
*মোল্লা কাউসার ও তার স্ত্রী সন্তানের ব্যাংক অ্যাকাউন্টও জব্দ*

*স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা আবু কাউসার ও তার স্ত্রী সন্তানের ব্যাং’ক অ্যকাউ’ন্টও জ’ব্দ করা হয়েছে। আজ যুবলীগ থেকে অব্যাহতি পাওয়া চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী স্ত্রী সন্তানদের ব্যাংক অ্যাকা’উন্ট স্থগিত করেছে জাতীয় রা’জস্ব বো’র্ড (এন’বিআর)।*
*এর ফলে তাঁরা ব্যাং’ক হিসাব থেকে কোনো টাকা উত্তোলন বা স্থানান্তর করতে পারবেন না। আয়কর অ’ধ্যাদেশ ১৯৮৪–এর ১১৬ ধারার ক্ষম’তাবলে সম্প্রতি এনবি’আর এ আ’দেশ দিয়েছে।*
*ক্যাসি’নোবিরোধী অভি’যান শুরুর পর পরই মোল্লা কাওসার দেশ ছাড়েন। প্রথম তিনি ভারতে আত্মগো’পন করেন। পরে ভারত হয়ে চলে যান যুক্তরাষ্ট্রে। মোল্লা কাওসার বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যা’নহাটন সিটিতে মেয়ের বাসায় থাকছেন বলে জানিয়েছে সূত্র।*

*রফিকুল, আব্দুল হাই ও তাদের স্ত্রীদের সম্পদ জানতে চায় দুদ’ক*
*অবৈ’ধ সম্পদ অর্জনের অভিযো’গের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় গণপূর্ত অধিদফতরের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম ও সাবেক অতিরিক্ত প্রকৌশলী আব্দুল হাই এবং তাদের স্ত্রীদের বি’রুদ্ধে সম্পদ বিবরণী নোটি’স দিয়েছে দুর্নী’তি দ’মন কমি’শন (দু’দক)।*
*আজ সোমবার (২১ অক্টোবর) দুদ’কের প্রধান কার্যালয় থেকে পাঠানো পৃথক নোটি’সে তাদেরকে আগামী ২১ কার্যদিবসের মধ্যে সম্পদের হিসাব দাখি’ল করতে বলা হয়েছে। সংস্থাটির জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।*

*দু’দক পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেনের স্বাক্ষর করা পৃথক নো’টিস তাদের নিজ বাসার ঠিকানায় পাঠানো হয়েছে। সম্পদের হিসাব চেয়ে যাদের চিঠি দেয়া হয়েছে তারা হলেন- গণপূর্তের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম, তার স্ত্রী রাশিদা আাক্তার এবং সাবেক অতিরিক্ত প্রকৌ’শলী আব্দুল হাই ও তার স্ত্রী বনানী সুলতানা।*
*নোটিসে বলা হয়, প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে প্রাথমিক অনুসন্ধান করে কমিশনের স্থির বিশ্বাস জন্মেছে যে, তারা জ্ঞাত আয় বহির্ভূত স্বনামে/বেনামে বিপুল পরিমাণ সম্পদ/সম্পত্তির মালিক হয়েছেন। তাই নোটি’শ পাওয়ার ২১ কার্যদিবসের মধ্যে তাদের নিজের, নির্ভরশীল ব্যক্তিবর্গের যাবতীয় স্থাবর/অস্থাবর সম্পত্তি, দায়-দেনা, আয়ের উৎস ও তা অর্জনের বিস্তারিত বিবরণ নির্ধারিত ফরমে দাখিল করতে বলা হয়।*