প্রচ্ছদ শিক্ষাঙ্গন *ক্ষু’ব্ধ প্রধানমন্ত্রী: ছাত্রলীগ আবরারের ১১ খু’নীকে বহি’ষ্কার করলো*

*ক্ষু’ব্ধ প্রধানমন্ত্রী: ছাত্রলীগ আবরারের ১১ খু’নীকে বহি’ষ্কার করলো*

238
*ক্ষুব্ধ প্রধানমন্ত্রী: ছাত্রলীগ আবরারের ১১ খুনীকে বহিষ্কার করলো*

*বু’য়েট শাখা ছাত্রলীগের ১১ জনকে সংগঠন থেকে স্থায়ীভাবে বহি’ষ্কার করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। বু’য়েট শিক্ষার্থী আবরার হ’ত্যাকাণ্ড অতি উৎসাহীদের কারণে হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয়। তিনি বলেছেন, ‘আইন নিজের হাতে তুলে নিয়ে কাউকে পে’টানোর নির্দেশনা কখনও ছাত্রলীগ দেয় না। ছাত্রলীগ কখনও এ ধরনের রাজনীতিতে বিশ্বাসও করে না।’*
*এর আগে এক বিবৃতিতে ছাত্রলীগ এ হ’ত্যাকাণ্ডের নি’ন্দা জানিয়ে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্তে দুই সদস্যের কমিটি গঠনের কথা জানায়।*

*ছাত্রলীগ থেকে স্থায়ী বহি’ষ্কৃত বু’য়েটের নেতারা হচ্ছেন- মেহেদী হাসান রাসেল, সাধারণ সম্পাদক, মুহতাসিম ফুয়াদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, মেহেদী হাসান রবিন, সাংগঠনিক সম্পাদক, অনিক সরকার, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক, মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, ক্রীড়া সম্পাদক, মনিরুজ্জামান মনির, সাহিত্য সম্পাদক, ইফতি মোশাররফ সকাল, উপ-সমাজসেবা সম্পাদক, মুজতবা রাফিদ, উপ-দপ্তর সম্পাদক, মুনতাসির আল জেমি, সদস্য, এহতেসামুল রাব্বি তানিম, সদস্য এবং মুজাহিদুর রহমান, সদস্য বুয়েট ছাত্রলীগ।*

*আল-নাহিয়ান জয় বলেন, ‘এটি একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘ’টনা। আমরা ইতোমধ্যে ঘটনার নি’ন্দা জানিয়েছি। আমরা অত্যন্ত ব্য’থিত যে একজন শিক্ষার্থী ভাই মা’রা গেছেন। এই ঘটনা যারা ঘটি’য়েছে তারা অতি উৎসাহী।’*
*তিনি আরো বলেন, এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক’ঠোর নি’র্দেশনা দিয়েছেন। তিনি অতিসত্বর ছাত্রলীগ থেকে অভিযুক্তদের বহি’ষ্কারের নি’র্দেশ দেন। তাদের আইনের আওতায় আনার জন্য প্রধানমন্ত্রী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গেও কথা বলেছেন।*

*সি’সিটিভির ফু’টেজে যে হ’ত্যাকারীরা শ’নাক্ত*
*বাংলাদেশ প্র’কৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বু’য়েট) শের-ই- বাংলা হল থেকে পুলিশ কর্মকর্তাদের বের করে দিয়েছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।*
*আবরার ফাহাদ হ’ত্যার ভি’ডিও ফু’টেজ গা’য়েব করে দেওয়ার অভিযোগে হল প্রভোস্টকে সকাল থেকে অবরুদ্ধ করে রাখেন আন্দোলন’কারীরা। এতে অ’বরুদ্ধ হয়ে পড়েন পুলিশ কর্মকর্তারাও।*
*পরে রাতে একটি ভি’ডিও ফু’টেজ দিলেও তা মানতে রাজি নন শিক্ষার্থীরা। তাদের দাবি প্রকৃত অপরাধীরা এ ভি’ডিও ফু’টেজে নেই। তারা প্রকৃত অপ’রাধীদের ভি’ডিও ফু’টেজ প্রকাশের দাবি জানান।*

*তাদের দাবি, আবরার ফাহাদ হ’ত্যার এক মিনিট ২২ সেকেন্ডের সিসিটিভি ফুটেজে যাদের দেখা গেছে তাদের অধিকাংশই ১৭তম ব্যাচের শিক্ষার্থী এবং হল শাখা ছাত্রলীগের জুনিয়র নেতাকর্মী। অন্যদিকে ঘটনায় জড়িত ১৫তম ব্যাচের মূল অপরাধীরা সি’সিটিভি ফু’টেজ আসেনি বলে দাবি করেছে আন্দোল’নরত শিক্ষার্থীরা।*
*সিসি’টিভির ফু’টেজে করে দেখা গেছে, কালো টি-শার্ট পরা মুয়াজ (ইইই ১৭তম ব্যাচ), ছাত্রলীগের সদস্য জেমি ও তানিম (১৭তম ব্যাচ)।*
*আরো দেখা যায়, ইফতি মোশাররফ সকাল (১৬তম ব্যাচ), মাহমুদুর রহমান মাজেদ (এমএমই ১৭তম ব্যাচ), মোর্শেদ (মেকানিক্যাল ১৭তম ব্যাচ), মুজাহিদ (১৬তম ব্যাচ ইইই), তানভীর (মেকানিক্যাল ১৬তম ব্যাচ), রাফাদ ও তোহা ( মেকানিক্যাল ১৭তম ব্যাচ)।*

*শিক্ষার্থীরা বলছেন, এ ঘটনায় ফুটেছে যাদের দেখা গেছে তারা দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। সিনিয়রদের নির্দেশ পালন করেছেন মাত্র। মূল অপ’রাধীদের সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায়নি। আমরা প্রশাসনের কাছে পুরো ঘটনার ফুটেজ দেখতে চেয়েছি কিন্তু আমাদের ফু’টেজ দেখানো হয়নি।*
*এ ঘটনায় নয়জনকে আ’টকের তথ্য দেয় পুলিশ। এ পর্যন্ত চারজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের তথ্য ও গবে’ষণা সম্পাদক এবং মে’কানিক্যাল ইঞ্জি’নিয়ারিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী অনিক সরকার, ক্রীড়া সম্পাদক ও নেভাল আর্কিটেকচার অ্যান্ড মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফুয়াদ হোসেন।*

*এ ঘটনায় পলাতক তিন ছাত্রলীগ নেতা হলেন বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের আইন’বিষয়ক উপসম্পাদক ও সি’ভিল ইঞ্জি’নিয়ারিং বিভাগের ছাত্র অমিত সাহা, উপদপ্তর সম্পাদক ও কেমি’ক্যাল ইঞ্জি’নিয়ারিং বিভাগের ছাত্র মুজতাবা রাফিদ, সমাজসেবাবিষয়ক উপসম্পাদক ও বায়োমেডিক্যাল ইঞ্জি’নিয়ারিং বিভাগের ছাত্র ইফতি মোশারফ।*