প্রচ্ছদ বিশ্ব *মার্কিন সংসদ সদস্য হয়েও কাজ করেন রেস্টুরেন্টে!*

*মার্কিন সংসদ সদস্য হয়েও কাজ করেন রেস্টুরেন্টে!*

37
*মার্কিন সংসদ সদস্য হয়েও কাজ করেন রেস্টুরেন্টে!*

*এবার সামরিক বাহিনীতে নারীদের নিয়োগ দিচ্ছে সৌদি আরব*
*প্রথমবারের মতো সশস্ত্র বাহিনীর মূল শাখায় বিভিন্ন সামরিক পদে নারীদের নিয়োগ দিবে সৌদি আরব। সম্প্রতি দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় নারীদের সামরিক বাহিনীতে যোগ দেয়ার অনুমতি দিয়েছে।*
*সৌদি আরবের প্রভাবশালী পত্রিকা আশ-শারকুল আওসাতের বরাতে তুরস্কভিত্তিক সংবাদ সংস্থা ইয়েনি শাফাক এ খবর জানিয়েছে।*
*সৌদির ডি ফ্যাক্টো নেতা যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের ‘ভিশন ২০৩০’ নামের সংস্কার কর্মসূচির আওতায় এসব উদ্যোগ নিয়েছে দেশটির সরকার।*

*সৌদি নারীরা এখন থেকে দেশের সামরিক বাহিনীর বিভিন্ন শাখায় সিপাহী থেকে শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তা হিসেবে সামরিক কাজ করতে পারবেন বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।*
*এর মধ্যে সাধারণ সৈনিক, কর্পোরাল, সার্জেন্ট এবং বিমান, নৌ, বিমান প্রতিরক্ষা, কৌশলগত ক্ষেপণাস্ত্র এবং সশস্ত্র বাহিনীর চিকিৎসা পরিষেবা অন্তর্ভুক্ত।*
*সৌদি আরবের জাতীয় প্রতিরক্ষা বিভাগের সাবেক পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হাসান আল শেহরির আশ-শারকুল আওসাতকে বলেন, কিংডমের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিভাগে নারীদের অন্তর্ভূক্তি সঠিক সময়ে নেয়া একটি বাস্তবসম্মত পদক্ষেপ।*

*এর আগে গত বছর সৌদি সরকার প্রথমবারের মতো দেশটির নারীদেরকে নিরাপত্তা বাহিনীর মাদক-বিরোধী দফতর, অপরাধ তদন্ত এবং কারা ব্যবস্থাপনার মতো জননিরাপত্তা শাখায় কাজের সুযোগ দিয়েছিল।*
*এদিকে বৈবাহিক সম্পর্ক ছাড়াই সৌদি আরবের হোটেলে একসঙ্গে থাকতে পারবে বিদেশি নারী ও পুরুষ পর্যটকরা।*
*কট্টর ইসলামপন্থি দেশটি ভ্রমণ ভিসায় পর্যটকদের টানতে এ সুবিধা চালু করেছে। পাশাপাশি, সৌদি নারীদের জন্যেও শিথিল করা হয়েছে হোটেলে ওঠার নিয়ম।*

*এখন থেকে শুধু নিজের পরিচয়পত্র দেখিয়েই হোটেলের কক্ষ ভাড়া নিতে পারবেন তারা, পরিবারের কোনো পুরুষ সদস্যের অনুমতি নিতে হবে না।*
*রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটিতে বিবাহবহিভূর্ত সম্পর্ক নিষিদ্ধ। তবে তেলের ওপর নির্ভরতা কমাতে পর্যটনের ওপর জোর দিয়েছে দেশটি। এরই ধারাবাহিকতায় পারস্য উপসাগরীয় দেশটিতে বিদেশি পর্যটক নারী ও পুরুষ (অবিবাহিত) একসঙ্গে থাকতে পারবে।*

*মার্কিন সংসদ সদস্য হয়েও কাজ করেন রেস্টুরেন্টে!*
*বিশ্বের একটি উন্নত দেশের পার্লামেন্টের সদস্য হয়েও রেস্টুরেন্টের টেবিল পরিষ্কার করা থেকে থালা-বাসন ধোয়াসহ যাবতীয় কাজ করেন আলেক্সান্দ্রিয়া ওকাসিও কোর্তেজ। অনেক আগে থেকেই রেস্টুরেন্টে কাজ করতেন জীবিকা অর্জনের জন্য। মার্কিন কংগ্রেসওম্যান নির্বাচত হওয়ার পরও সেই কাজ ছাড়েননি তিনি। খবর নিউইয়র্ক টাইমস’র।*

*২৯ বছর বয়সী আলেক্সান্দ্রিয়া বলেন, ‘আমি জানুয়ারিতে কংগ্রেসে যোগ দেয়ার পর ওয়াশিংটন ডিসিতে চলে যাই। কিন্তু এখন আবার নিউইয়র্কে এসে কাজে যোগ দিয়েছি। এখানে আমাকে প্রতি ঘণ্টা কাজের জন্য মাত্র ২ ডলার দেয়া হয়। আমি চাই আমার মতো নিম্ন আয়ের মানুষ কতটা কষ্ট করে জীবন-যাপন করে তার প্রতি সবার মনোযোগ আকর্ষণ হোক।’*

*প্রসঙ্গত, আলেক্সান্দ্রিয়া মার্কিন কংগ্রেসের সবচেয়ে কম বয়সী প্রতিনিধি। গত নভেম্বরে তিনি আমেরিকার ১২৯তম কংগ্রেসের নির্বাচিত সদস্য হন।*
*গত নভেম্বরে মার্কিন গণমাধ্যম নিউ ইয়র্ক টাইমসকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে টাকার অভাবে বাসা ভাড়া নিতে পারছেন না জানিয়ে আলোচনায় এসেছিলেন ওকাসিও। সংসদের বেতন না পাওয়া পর্যন্ত ওয়াশিংটন ডিসিতে একটা অ্যাপার্টমেন্ট ভাড়া নেয়ার মতো সামর্থ ছিলো না তার। ১৯৮৯ সালের ১৩ অক্টোবর জন্মগ্রহণ করা এ মার্কিন নারী আমেরিকার বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন।*
*আলেক্সান্দ্রিয়ার বাবা ২০০৮ সালে ৪৮ বছর বয়সে ক্যান্সার আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তখন তিনি পরিবারের জন্য বিভিন্ন রেস্টুরেন্টে বুয়ার কাজ করেন। এক সময় তাকে প্রায়ই দিনে ১৮ ঘণ্টা করে কাজ করতে হতো।*