প্রচ্ছদ আইন-আদালত “সীমান্ত ও বিমানবন্দরে সর্ত’কতা: আ’তঙ্কে ব’ন্ধ হচ্ছে সারাদেশের ক্যা’সিনো”

“সীমান্ত ও বিমানবন্দরে সর্ত’কতা: আ’তঙ্কে ব’ন্ধ হচ্ছে সারাদেশের ক্যা’সিনো”

58

*দেশ ছা’ড়ার চে’ষ্টায় জু’য়ার ব্যবসায়ীরা
রাজধানীর অভি’জাত বিভিন্ন এলাকায় ৬০টি ক্যা’সিনোসহ সারাদেশে দুই শতাধিক ক্যা’সিনো বা জু’য়ার ক্লা’ব রয়েছে। এসব ক্লা’বের সঙ্গে জ’ড়িত রয়েছেন তিন শতাধিক ব্যবসায়ী। খেলাধুলাসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন ও ক্লা’ব পরিচালনায় উচ্চ প’দে রয়েছেন এসব অ’বৈধ ক্যা’সিনো ব্যবসায় জড়িত অনেক ব্যক্তি। বৈধ-অবৈ’ধ অ’স্ত্র ও বডি’গার্ড নিয়ে চলা’ফেরা করেন তারা। ক্ষ’মতাসীন রাজনৈতিক ছত্র’ছায়ায় মন্ত্রীর মতো প্রটো’কল নিয়ে চলা’ফেরার কারণে এদের দাপ’টে তট’স্থ থাকে লোকজন। এদের সিংহভাগই বিদেশে গড়ে তুলেছেন সে’কেন্ড হো’ম। সম্প্র’তি অ’ভিযানের মুখে অধিকাংশ ক্যা’সিনো ব’ন্ধ করে গ্রেফতার এড়া’তে এখন তারা পা’লাচ্ছেন। অনেকে দেশ ছে’ড়ে প্রতিবেশী দেশে পালা’নোরও পথ খুঁ’জছেন।

*ক্যা’সিনো বা উচ্চ পর্যা’য়ের জু’য়ার ব্যবসায়ীদের পা’কড়াও অভি’যান চল’মান রয়েছে। যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ নাম’ধারী ক্যা’সিনো ব্যবসায়ীদের ধর’তে শুরু করেছে আইন’শৃঙ্খলা বা’হিনী। এরইমধ্যে গ্রেফতার হয়েছেন যুবলীগ দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া। তিনি রি’মান্ডে রয়েছেন। মতিঝিলের ফকিরেরপুল ইয়াং’মেন্স ক্লা’ব এবং বনানীর গোল্ডে’ন ঢাকা ক্যাসি’নোয় অভি’যান চা’লিয়ে সর্বমোট ২০১ জন আ’টক হয়েছেন। শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) গ্রেফতার হয়েছেন যুবলীগ নেতা হিসেবে পরিচয় দেয়া গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জি কে শামীম ও তার ৭ দেহ’রক্ষীকে। অভি’যানে বিপু’ল পরিমাণ টাকা, মা’দক, অ’স্ত্র, গু’লি ও ড’লার জ’ব্দ করা হয়েছে।

*শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর কলাবাগান ক্লাবে অভিযা’ন চালিয়ে ক্লা’ব কর্মকর্তা ও কৃষক লীগের নেতা শফিকুল ইসলাম ফিরোজসহ ৫ জনকে আ’টক করেছে র‌্যা’ব। ক্লা’ব থেকে একটি অ’স্ত্র, টাকা ও জু’য়ার সর’ঞ্জাম জ’ব্দ করা হয়েছে। র‌্যা’বের সাঁ’ড়াশি অভি’যানে শুক্রবার রাতে ধানমণ্ডি ক্লা’ব, এলিফেন্ট রোডের এজা’ক্স ক্লা’ব ও ক্যা’সিনো শে’ড ব’ন্ধ থাকায় আগামী ২৪ ঘণ্টার জন্য সিল’গালা করা হয়েছে। এ খবর ছড়িয়ে পড়ার পরপরই অধিকাংশ ক্যা’সিনো ব্যবসায়ীরা ক্লা’ব ব’ন্ধ করে পা’লিয়ে গেছেন। অনেকে গ্রেফতার এড়াতে বিদেশে পালা’নোর সুযোগ খুঁ’জছেন। এ কারণে দেশের প্রতিটি আন্তর্জাতিক বিমা’নবন্দর ও সীমান্তে ক্যা’সিনো ব্যবসায়ীদের বিরু’দ্ধে সত’র্কতা জা’রি করেছে আ’ইন-শৃঙ্খ’লা বা’হিনী।

*গো’য়েন্দা সূ’ত্র বলেছে, এরইমধ্যে রাজধানীর ২৫টি ক্যা’সিনোর তা’লিকা আই’ন-শৃঙ্খ’লা বাহি’নীর হাতে রয়েছে। তবে গো’য়েন্দা সংস্থা’র অনুস’ন্ধানে ছোট-বড় মিলিয়ে শতাধিক ক্যা’সিনো রয়েছে। এছাড়া গাজীপুরের টঙ্গী ও চট্টগ্রাম শহরের ২টি জু’য়ার আস’রে পুলিশ হা’না দিয়ে বেশ কিছু জু’য়াড়ী ও মদ্য’পায়ীকে আ’টক করেছে। তবে ক্যা’সিনোর কোনো স’রঞ্জাম সেখানে পায়নি।

*ডিএম’পি কমিশ’নার শফিকুল ইসলাম বলেন, ডিএম’পিও ক্যা’সিনো ও জু’য়ার আ’সর বিরো’ধী অ’ভিযান জোর’দার করবে। রাজধানীতে বড় ধরনের অন্তত একশো ক্যা’সিনো বা জু’য়ার আ’সর রয়েছে। এর মধ্যে অন্তত ৬০টি যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও আওয়ামী লীগ নে’তাদের নি’য়ন্ত্রণে রয়েছে। এর সঙ্গে সবচেয়ে বেশি সম্পৃ’ক্ত যুবলীগ নে’তারা। আওয়ামী লীগ নেতা’দের সংখ্যা সবচেয়ে কম।

*র‌্যা’বের অনু’সন্ধান সূ’ত্র জানায়, রাজধানীর বহুতল ভব’নের ছাদগুলোয় গ’ড়ে তো’লা হয়েছে ক্যা’সিনো। গুলশান, বনানী, বারিধারা, উত্তরা, ধানমণ্ডিসহ অভি’জাত এলাকায় গে’স্ট হা’উজের নামে অ’বৈধ ক্যাসি’নো চলে। অভি’যোগ উঠেছে, পুলিশের একজন ক’র্মকর্তার একাধিক গে’স্ট হাউ’জ রয়েছে গুলশান এলাকায়। রাত হলেই জমে ওঠে ক্যাসি’নোগুলো। দেশের বিভিন্ন এলাকার ধনা’ঢ্য জুয়া’ড়ীরা ভি’ড় করেন সেখানে। জুয়া’ড়িদের পাশে বসে স’ঙ্গ দেন সুন্দরী তরুণীরা। সেখানে অবারিত ম’দ্যপান চলে।

*ক্যা’সিনোর টাকার ভাগ কে কে নিতেন তাদের নাম আ’ইন-শৃঙ্খ’লা বা’হিনীর কাছে বলেছেন গ্রেফতার যুবলীগ নে’তা খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া। গত বুধবার রাতে গ্রেফতারের পর র‌্যা’ব হেফা’জতে প্রাথমিক জিজ্ঞা’সাবাদে তিনি ক্যা’সিনো বাণিজ্য নিয়ে চাঞ্চ’ল্যকর আরও বহু ত’থ্য দিয়েছেন। এই টাকার ভা’গ পেতেন পুলিশের সং’শ্লিষ্ট থানার ও’সি, এ’সি, রাজনৈতিক নে’তা, ও’য়ার্ড ক’মিশনার, সাংবাদিক ও আন্ডার’ওয়ার্ল্ডের সন্ত্রা’সীরা।

*অভিযোগ পাওয়া গেছে, আমেরিকা, লন্ডন, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড ও মালয়েশিয়ায় রয়েছে অ’বৈধ ক্যা’সিনো ব্যবসায়ীদের বিলা’সবহুল সেকে’ন্ড হো’ম। অনেকের স্ত্রী, সন্তান ও পরিবার-পরিজন সেখানে থাকেন। কোটি কোটি ডলারও তারা সেখানে পা’চার করছেন। গোয়েন্দা’দের অনুস’ন্ধানে এসব চাঞ্চ’ল্যকর ত’থ্য বেরিয়ে আসছে। তাদেরও তা’লিকা রয়েছে আ’ইন-শৃঙ্খ’লা বা’হিনীর হাতে।