প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয় “ক্যা’সিনোর পর বাগানবাড়ি অ’ভিযানের নি’র্দেশ”

“ক্যা’সিনোর পর বাগানবাড়ি অ’ভিযানের নি’র্দেশ”

3865

*ক্যা’সিনো অভি’যানের পর বাগানবাড়ি অভি’যানে না’মছে আই’ন-শৃঙ্খ’লা রক্ষা’কারী বা’হিনী এবং র‌্যা’ব। প্রধানমন্ত্রীর নির্দে’শেই বিভিন্ন বাগানবাড়িতে অভি’যান চা’লানো হবে বলে একাধিক গোয়ে’ন্দাসূত্রে প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে। প্রধানমন্ত্রী দলের মধ্যে শু’দ্ধি অভি’যানের ঘোষ’ণা দিয়েছেন। দলের মধ্যে যারা অ’পকর্ম করে তাদের বিরু’দ্ধে যু’দ্ধ ঘো’ষণা করেছেন।

*গত ১৪ সেপ্টেম্বর শনিবার দলের কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে তিনি এই যু’দ্ধের আনু’ষ্ঠানিক ঘোষ’ণা দেন। তিনি বলেছেন, দলের মধ্যে যারা দুর্নী’তিবাজ, সন্ত্রা’সী, ক্যা’ডার, যারা বিভিন্ন রকম অ’পকর্ম করে, তাদেরকে কখনো কোনো ছা’ড় দেওয়া হবে না। তাদের বি’রুদ্ধে অ’ভিযান পরি’চালনা করা হবে। ঐ কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে তিনি ছাত্রলীগের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদককে অপ’সারণের নি’র্দেশ দেন। তিনি বৈঠকে এটাও বলেন যে আরও কিছু অঙ্গসংগঠনের ছত্র’ছায়ায় বেশকিছু নেতা বিভিন্ন অ’পকর্ম করছে, ঢাকায় ক্যা’সিনো পরিচালনা করছে- এরকম অভি’যোগ গো’য়েন্দা মাধ্যমেই এসেছে বলে প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন।

*তার এই আনুষ্ঠানিক ঘো’ষণার কয়েকদিনের মাথায়ই গতকাল র‌্যা’ব ঢাকার বিভিন্ন অ’বৈধ ক্যাসি’নোতে অভি’যান পরিচা’লনা করে যুবলীগের ঢাকা দক্ষিণ মহানগর শাখার সাংগঠনির সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে গ্রেপ্তার করে। এছাড়াও অন্তত চারটি ক্যাসি’নো সিলগা’লা করে দেওয়া হয়েছে। র‌্যা’বের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ক্যাসি’নোগুলো ব’ন্ধ না হওয়া পর্যন্ত অ’ভিযান চলবে।

*সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, শুধু ক্যাসি’নো নয়, ঢাকার বিভিন্ন উপকণ্ঠে গাজীপুর, নরসিংদী, পূবাইল ইত্যাদি স্থানে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গসহযোগী এবং ভাতৃপ্রতিম সংগঠনের অনেক নেতাকর্মীই বাগানবাড়ি বানিয়েছেন। সেই বাগানবাড়িগুলোতে র’মরমা মা’দক ব্যব’সা, অনৈ’তিক কর্ম’কাণ্ড চলে বলে জানা গেছে। প্রায় বৃহস্পতি এবং শুক্রবার এসব বাগানবাড়িতে নানারকম প্রভাব’শালী ব্যক্তিরা যান এবং বিভিন্ন অবৈ’ধ কর্মকা’ণ্ড তৎপর’তায় নিজেদেরকে জ’ড়িয়ে ফেলেন।

*প্রধানমন্ত্রীর কাছে গো’য়েন্দা সং’স্থাগুলো এরকম ঢাকার বিভিন্ন উপকণ্ঠে ১২৫টি বাগানবাড়ির সন্ধা’ন দিয়েছেন। যেগুলো আওয়ামী লীগের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দের। সেসব বাগানবাড়িতে নানারকম অপ’রাধ তৎপ’রতা চলে বলেও গো’য়েন্দা সংস্থার প্রতি’বেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। উল্লেখ্য, বিএনপি আমলে তারেক রহমানের বন্ধু গিয়াসউদ্দিন আল মামুনের গাজীপুরে ‘খোয়াব ভবন’ নামে একটি বাগানবাড়ি ছিলো। রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষ’কতায় সেখানে নানা অ’পকর্ম হতো। আওয়ামী লীগের নামে এরকম অভি’যোগ আসুক এটা শেখ হাসিনা চান না।

*সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্যা’সিনোর পর এসব বাগানবাড়িতে অভি’যান চালা’নোরও নি’র্দেশ দিয়েছেন। পুলিশের আই’জি, র‌্যা’বের মহাপরিচালকসহ উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের কাছে প্রধানমন্ত্রী একটি পরিস্কার বার্তা দিয়েছেন যে, অপরা’ধী যে-ই হোক না কেন, যেই দলেরই হোক না কেন, তার বি’রুদ্ধে ব্যব’স্থা নিতে হবে, তার প্রতি কোনোরকম সহা’নুভূতিও দেখানো যাবে না। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো এটাও বলছে যে, ক্যাসি’নো অভি’যানের পাশাপাশি বাগানবাড়ি অভিযা’নও পরিচা’লনা করা হবে। গো’য়েন্দা সংস্থাগুলো এ ব্যাপা’রে আরও তথ্যপ্রমাণ সংগ্রহ করছে। সুর্নির্দিষ্ট অভি’যোগের ভিত্তিতে এসব বাগানবাড়িতে অভি’যান পরিচা’লনা করা হবে।

*গোয়ে’ন্দা সংস্থার দা’য়িত্বশীল সূত্রগুলো বলছে যে তাদের কাছে খবর আছে যে ঢাকার উপ’কণ্ঠে যে বাগানবাড়ি রয়েছে, সেগুলোতে নানারকম অ’পকর্ম সংগঠিত হয়। শুধু ক্লা’ব বা ক্যাসি’নোতেই নয়, এসব বাগানবাড়িতেও জুয়া’র আ’ড্ডা, রমর’মা মা’দক ব্যবসাসহ নানারকম অ’পকর্ম হয়। এজন্যই তারা মনে করছে যে এগুলোর বি’রুদ্ধে ব্যব’স্থা গ্রহণ করা দরকার।

*উল্লেখ্য, টানা তৃতীয়বারের মতো আওয়ামী লীগ ক্ষম’তায় এসে জনগণের কাছে তাদের ভাব’মূর্তি উজ্জ্বল করার জন্য এবং আওয়ামী লীগ যে দুর্নী’তি, অ’নিয়ম এবং অনৈ’তিক কা’র্যক্রমকে কোনোভাবেই প্র’শ্রয় দেয় না, সেটা প্রমাণের জন্য উদ্যোগ নিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ ব্যাপারে কঠো’র অব’স্থান গ্রহণ করেছেন বলে একাধিক গোয়ে’ন্দা সং’স্থা নিশ্চিত করেছে।