প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয় “ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে প্র’তারক রোহিঙ্গা শিক্ষার্থী বহি’ষ্কার”

“ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে প্র’তারক রোহিঙ্গা শিক্ষার্থী বহি’ষ্কার”

62

*কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি (সিবিআইইউ) থেকে রোহিঙ্গা তরুণী রাহিমা আক্তার ওরফে রাহী খুশিকে বহিষ্কা’র করা হয়েছে। তিনি ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের এলএলবি অনার্সের শিক্ষার্থী ছিলেন। আসল পরিচয় গো’পন করে ন’কল জন্ম সনদ বানিয়েছিলেন রাহী খুশি।
বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড. আবুল কাশেম গণমাধ্যমকে জানান, খুশির পরিচয় প্র’কাশ হওয়ার পর তাকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িকভাবে বহি’ষ্কার করা হয়েছে। তার সনদসহ অন্যান্য তথ্যাদি যাচাই করতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

*১৯৯২ সালে মিয়ানমারের রাখাইন থেকে পা’লিয়ে রাহী খুশির বাবা-মা আশ্রয় নেন কক্সবাজারের কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যা’ম্পে। এরপর রোহিঙ্গা ক্যা’ম্পেই জন্ম রাহী খুশির। রাহিমা আক্তার থেকে হয়ে যান রাহী আক্তার খুশি। তার বাবার নাম মোহাম্মদ ইলিয়াস। মায়ের নাম মিনু আরা।
কক্সবাজার শহরের বায়তুশ শরফ জব্বারিয়া একাডেমি থেকে এসএসসি ও কক্সবাজার সরকারি মহিলা কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন তিনি। এরপর তিনি কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি হন।

*ফেসবুক কমেন্টে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ক’টূক্তি, ডেপুটি জেলার প্রত্যা’হার

*স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের কমেন্টে ক’টূক্তির অভি’যোগে সাতক্ষীরা কারাগা’রের ডেপুটি জেলার ডলি আক্তার ওরফে জলি মেহেজাবিন খানকে প্রত্যা’হার করা হয়েছে।
গতকাল রবিবার কারা অধিদফতরের এক স্মারকের পত্রে তাকে কারা অধিদপ্তরে সংযুক্তির আ’দেশ দে’ওয়া হয়েছে।

*সাতক্ষীরা কারাগা’রের জেল সুপার আবু জায়েদ গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ডলি আক্তারকে কারা অধিদপ্তরে সংযুক্তির একটি পত্র পেয়েছি।
জানা গেছে, গত ৩ সেপ্টেম্বর সকাল ৮টা ৪৯ মিনিটে জলি মেহেজাবিন খান নামের ফেসবুক আইডি থেকে একটি ছবি পোস্ট করেন। সেখানেই এক মন্তব্য’কারীকে জবাব দিতে গিয়ে তিনি ওই কটূ’ক্তি করেন।