প্রচ্ছদ মুক্ত মতামত “ইসলাম ও হিন্দুধর্ম মতে যেভাবে পুত্র ও কন্যা সন্তানের জন্ম”

“ইসলাম ও হিন্দুধর্ম মতে যেভাবে পুত্র ও কন্যা সন্তানের জন্ম”

সুষুপ্ত পাঠক

114

*আপনি জানেন কি, সন্তান কেমন করে বাবা-মায়ের মত দেখতে হয়? নিশ্চয় বলবেন, বংশগতির ধারক ক্রোমোজোম এর জন্য দা’য়ী। প্রতিটি মানুষের শরীরে ২৩ জোড়া ক্রোমোজোম থাকে। মায়ের শরীরে এক জোড়া এক্স ক্রোমোজোম এবং বাবার শরীরে এক্স-ওয়াই ক্রোমোজোম থাকে। মা ও বাবা উভয়ের এক্স ক্রোমোজোম মিলিত হলে কন্যা সন্তান আর মায়ের এক্স ও বাবার ওয়াই ক্রোমোজোম মিলে হয় পুত্র সন্তান। একইভাবে বাবা-মায়ের ক্রোমোজোম সন্তান শরীরের গ্রহণ করে বাবা ও মায়ের সাদৃশ্য লাভ করে।নাউজুবিল্লাহ!

*ইহুদী-নাসাদের বিজ্ঞান মুসলমানদের ধোঁ’কা দিয়ে মি’থ্যা শিখাচ্ছে। সন্তান বাবা-মার মত হওয়ার জন্য ক্রোমোজোম দা’য়ী নয়। এটার জন্য দা’য়ী কার বী’র্য আগে আউ’ট হয়েছে তার উপর! আসুন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানীর মুখ থেকে জানি- আনাস (রা.) থেকে বর্ণিত: রসূল্লাহ বলেছেন, …আর সন্তান সদৃশ্য হবার ব্যাপার এই যে, পুরুষ যখন তার স্ত্রীর সঙ্গে যৌ’ন সঙ্গ’ম করে, তখন যদি পুরুষের বী’র্য প্রথম স্খ’লিত হয়, তবে সন্তান তার সাদৃশ্য হবে, আর যখন স্ত্রীর বী’র্য পুরুষের বী’র্যের পূর্বে স্খ’লিত হয়, তখন সন্তান তার সদৃশ্য হয়। (৩৯১১, ৩৯৩৮, ৪৪৮০) (আদর্শ প্রকাশনী, ৩০৮৩, ইসলামী ফাউন্ডেশন ৩০৯১)।

*এবার হিন্দু ভাইদের ঈমান আকিদা ঠিক করার পালা! ইহুদী-নাসাদের খ’প্পরে আপনারাও প’ড়বেন না। দেখুন মহাবিজ্ঞানী মনু সন্তান ছেলে নাকি মেয়ে হবে তা বাতলে দিয়েছে কিভাবে। পুরুষের বী’র্য অধিক হলে পুত্র সন্তান হবে, আর স্ত্রীর র’জ: অধিক হলে কন্যা সন্তান জন্ম নিবে… (মনুসংহিতা ৩।৪৯.)।

*তাই আসুন পাঠ্য বইয়ে বিবর্তনবাদ উ’ঠিয়ে দেয়ার মত ক্রোমোজন এক্স-ওয়াই বিজ্ঞান উঠিয়ে দিয়ে বী’র্য আ’উটের বিজ্ঞান ঢু’কিয়ে দেই। মুসলমানের ঈমান ছাড়া আছেটা কি?