প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয় “জামালপুরের ডিসি নারী কে’লেঙ্কারীতে জড়িয়ে শা’স্তি পাচ্ছেন”

“জামালপুরের ডিসি নারী কে’লেঙ্কারীতে জড়িয়ে শা’স্তি পাচ্ছেন”

905

*নারী অফিস সহকারীর সঙ্গে আপ’ত্তিকর ভিডিও প্রকাশের ঘটনায় জামালপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) আহমেদ কবীরকে ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করা হচ্ছে। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। গতকাল শনিবার (২৪ আগস্ট) রাত সাড়ে ৮টায় তিনি বলেন, জেলা প্রশাসক (ডিসি) আহমেদ কবীরের বিরুদ্ধে সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে এনেছি। আজ রোববার তাকে ওএসডি করে আদে’শ জা’রি করা হচ্ছে। সেখানে (জামালপুর) নতুন একজন ডিসি যোগ দেবেন।

*সম্প্রতি জামালপুরের ডিসির সঙ্গে তার নারী সহকর্মীর অন্ত’রঙ্গ মুহূর্তের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। স্থানীয় সূত্র বলেছে, ডিসির বিরুদ্ধে একের পর এক নারী কে’লেঙ্কারির অভিযোগ শোনা যাচ্ছিল বি’রুদ্ধে। ভিডিওটিতে দেখানো কক্ষটি তার অফিসের বিশ্রাম নেয়ার কক্ষ এবং ওই নারী তার কার্যালয়ের অফিস সহায়ক হিসেবে কর্মরত। তার নাম সানজিদা ইয়াসমিন সাধনা।

*নাম প্রকাশ না করার শর্তে জেলা প্রশাসকের অধীনস্থ এক কর্মচারী জানান, গত বৃহস্পতিবার রাত ১২টায় ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর নিজেকে বাঁচা’তে জেলা প্রশাসক তার ঘনিষ্ঠ ঊর্ধ্বতন কর্মকতাসহ এক সাংবাদিক নেতার সঙ্গে রাতভর মিটিং করেন। ভোর ৬টায় মিটিং শেষে উপস্থিতরা জেলা প্রশাসকের বাসভবন থেকে বেরিয়ে যান।

*জামালপুরের নারী নেত্রী অ্যাডভোকেট শামীম আরা বলেন, জেলার সরকারি শীর্ষ কর্মকর্তার কাছে নানা সমস্যা নিয়ে নারীরা তার কার্যালয়ে যান। নিরাপত্তাও চান তার কাছে। কিন্তু রক্ষক যদি ভ’ক্ষকের ভূমিকা পালন করেন তাহলে নারীরা কোথায় নিরাপদ। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত এবং দৃষ্টান্ত’মূলক শা’স্তির দাবি জানান।

*মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (জেলা ও মাঠপ্রশাসন অনুবিভাগ) আ. গাফ্ফার খান বলেন, ঘটনার বিষয়ে অবগত আছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। বিভাগের কর্মকর্তারা প্রাথমিকভাবে বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন। অফিস খুললেই তদন্ত কমিটি হবে। তবে এটা নিয়ে বিভিন্নভাবে তদন্ত হচ্ছে, বিভিন্ন সংস্থা-কর্তৃপক্ষ সেটা করছে। আরও অনেক অথরিটি আছে, তারাও দেখছে।