প্রচ্ছদ বিশ্ব “ভারতের সঙ্গে সাংস্কৃতিক বিনিময় নিষিদ্ধ করল পাকিস্তান”

“ভারতের সঙ্গে সাংস্কৃতিক বিনিময় নিষিদ্ধ করল পাকিস্তান”

40

*কাশ্মীর নিয়ে উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্যে এবার ভারতের সঙ্গে সব ধরনের সাংস্কৃতিক বিনিময় নি’ষিদ্ধ ঘোষণা করেছে পাকিস্তান। দুই দেশের বিনোদন শিল্পের মধ্যে যেসব যৌথ কার্যক্রম আছে তাও এই নি’ষেধাজ্ঞার আওতায় আসবে।
দ্য ডনের প্রতিবেদনে বলা হয়, পাকিস্তানের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় চালু করেছে ‘সে নো টু ইন্ডিয়া’ স্লোগান। অর্থাৎ ভারতকে না বলুন। এবং নিষিদ্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সব সাংস্কৃতিক বিনিময়ের, যার মধ্যে দুই দেশের বিনোদন শিল্পের মধ্যে যেসব যৌথ কার্যক্রম আছে তাও এর আওতায় আসবে।

*বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রচার-সংক্রান্ত বিশেষ সহকারী ফেরদৌস আশিক আওয়ান বলেন, ‘সব ধরনের ভারতীয় কন্টেন্ট এখানে নি’ষিদ্ধ করা হয়েছে। এ বিষয়ে কড়া নজরদারি রাখার জন্য পাকিস্তান ইলেকট্রনিক মিডিয়া রেগুলেটরি অথরিটিকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ভারতীয় ডিটিএইচ (ডিরেক্ট-টু-হোম) সামগ্রী পাকিস্তানে বিক্রি হলে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

*ভারতে হা’মলার পরিকল্পনা করছে জইশ-ই-মুহাম্মদ

*পাকিস্তানভিত্তিক জ’ঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মুহাম্মদ ভারতে হা’মলা চালানোর পরিকল্পনা করছে বলে গোয়েন্দা বিভাগ কেন্দ্রীয় সরকারকে সতর্ক করে দিয়েছে।
ভারতের স্বাধীনতা দিবসের আগে জ’ঙ্গি হা’মলার আ’শঙ্কায় প্রতি বছর এমনিতেই স’তর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়ে থাকে। তার ওপর এবার ঠিক এই সময়ে জম্মু ও কাশ্মীরে কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্তের ব’দলা নিতে জ’ঙ্গি গোষ্ঠিগুলো মরিয়া হয়ে উঠবে ধারণা করা হয়েছিল।

*পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান স্পষ্ট বলেই দিয়েছেন, দিল্লির ওই ঘোষণায় ভারতবিরোধী জ’ঙ্গি সংগঠনগুলোর তৎপরতা বাড়বে।
ভারতের গোয়েন্দা সূত্রের খবর, পাকিস্তানে ঘাঁটি গেড়ে থাকা জইশ-ই-মুহাম্মদে শিগগিরই ভারতে হা’মলা চালানোর জন্য তৈরি হচ্ছে।

*গোয়েন্দা সূত্রে জানানো হয়েছে, কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিল করার পরপরই জইশ প্রধান মাসুদ আজহারকে পাকিস্তান কর্তৃপক্ষ ছেড়ে দিয়েছে। জইশের লক্ষ্য আবার মুম্বাইয়ে হা’না দেয়া, তবে একযোগে অনেক জায়গায় স’ন্ত্রাসী হা’মলার পরিকল্পনাও রয়েছে। এজন্য কেন্দ্র আজ কলকাতাসহ ভারতের ১৯টি প্রধান বিমানবন্দরে চরম সতর্কতা জারি করেছে।
এদিকে, আজই পাকিস্তানী রেলকর্মীরা দিল্লি-লাহোর সমঝোতা এক্সপ্রেস ট্রেন নিয়ে ভারতে ঢুকতে অস্বীকার করেছেন। সূত্র: ভয়েস অব আমেরিকা

*উত্তপ্ত কাশ্মীরে সাধারণের মতই দাঁড়িয়ে ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা প্রধান

জম্মু-কাশ্মীর ইস্যুতে উত্তপ্ত ভারত-পাকিস্তান। কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল ঘোষণার পরেই দুই পরমাণু শক্তিধর দেশের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা শুরু হয়। এর প্রভাব পড়েছে কূটনৈতিক এবং বাণিজ্য সম্পর্কে।ভারতের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক হ্রাস ও দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য সম্পর্ক স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাকিস্তান।

*এদিকে, জম্মু কাশ্মীর নিয়ে মোদির পদক্ষেপের পর নেতিবাচক পরিস্থিতি এড়াতে সেখানে চলছে বনধ। বর্তমান পরিস্থিতি পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে কাশ্মীরে গিয়েছিলেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল। সেখানকার রাস্তায় দাঁড়িয়ে স্থানীয় মানুষজনের সঙ্গে কথাও বলেছেন তিনি।
দেখা যায়, হাতে প্লেট নিয়ে খাবার খাচ্ছেন অজিত দোভাল, সঙ্গে সঙ্গেই সোফিয়ান জেলার লোকজনের কথা বলছেন তিনি। যে জায়গায় তিনি দাঁড়িয়ে কথা বলছেন, সেখানকার দোকানপাট বন্ধ এবং এলাকায় কোনও রকম সভা সমাবেশ নেই এবং মানুষের চলাফেরার উপর বিধি নি’ষেধ আরোপ করা হয়েছে। স্থানীয় লোকজনদের তিনি জিজ্ঞাসা করেছেন, ‘সব কেমন চলছে? আপনারা কী ভাবছেন’? তাদের মধ্যে একজনের উত্তর, ‘সব ভালো’।

*সংবাদসংস্থা এএনআইয়ের রিপোর্ট অনুসারে, অজিত দোভাল বলেন, ‘হ্যাঁ, সবকিছু ভালোই হবে। সবার শান্তিতে থাকা উচিত। ঈশ্বর যা করেন, ভালো করেন। আপনাদের নিরাপত্তা এবং ভালো রাখা আমাদের চিন্তা। আমরা আপনাদের বৃদ্ধি এবং কল্যাণের জন্য চিন্তা করছি’।

*সোফিয়ান জেলার নিরাপত্তাকর্মীদের সঙ্গেও বৈঠক করেন তিনি। সে’নাবাহিনীর সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি বলেন, ‘দেশ জানে, আমরা সিআরপিএফের ওপর ভরসা করি…বামপন্থী বি’চ্ছিন্নতাবাদ থেকে শুরু করে কাশ্মীরের সন্ত্রাসবাদ, নিজেদের প্রমাণ করেছে সিআরপিএফ’।
শ্রীনগরে পুলিশের বিরুদ্ধে, বিক্ষো’ভকারীদের ধাওয়া করার অভিযোগ ওঠে পুলিশের বিরুদ্ধে। তারপর, পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথর ছোঁ’ড়াকে কেন্দ্র করে ভূস্বর্গ উত্তপ্ত হয়ে ওঠে।

*সংঘর্ষ এড়াতে রবিবার মধ্যরাতেই প্রায় ৩০০-এরও বেশি রাজনৈতিক নেতাকে আ’টক করা হয়েছে। এদিকে, জম্মু কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের আগেই গৃহব’ন্দী করা হয় প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আব্দুল্লাহ এবং মেহবুবা মুফতিকে। তাদের মুক্তি দেয়া হয়েছে কিনা, এখনও জানা যায়নি।
৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের আগে সরকারের প্রস্তুতি হিসেবে, জম্মু কাশ্মীরে ৪০,০০০ হাজারেরও বেশি সে’নাবাহিনী মোতায়েন করা হয়। পাশাপাশি ফোন ও ইন্টারনেট পরিষেবাও বন্ধ করে দেয়া হয়। সোমবার কাশ্মীর উড়ে যান অজিত দোভাল, সেখান থেকে দিল্লিতে রিপোর্ট দিচ্ছেন তিনি। সূত্র: এনডিটিভি