প্রচ্ছদ খেলা ক্রিকেট “সাকিবের সঙ্গে রিয়াদের দ্বন্দ্ব ও টাইগার টিমের সংকট”

“সাকিবের সঙ্গে রিয়াদের দ্বন্দ্ব ও টাইগার টিমের সংকট”

37
সাকিবের সঙ্গে রিয়াদের দ্বন্দ্ব ও টাইগার টিমের সংকট

*শ্রীলঙ্কা সফরটা খুব বাজেভাবেই কাটাচ্ছেন রিয়াদ। ব্যাট হাতে চূড়ান্ত ব্যর্থ হওয়ার পাশাপাশি লোপা ক্যাচ মিস করেও আসছেন আলোচনায়। জুটি ভাঙ্গতে সিদ্ধহস্ত রিয়াদ বোলিংও করছেন না সেই নিউজিল্যান্ড সফরে শোল্ডার ইনজুরিতে আক্রান্ত হওয়ার পর থেকে। তাই দলে তার ভূমিকা নিয়েও বেশ কথা উঠছে। তবে সেই আলোচনায় ঘি ঢাললো ক্রিকবাজ। ক্রিকেটবিষয়ক জনপ্রিয় এই ওয়েবসাইটের প্রতিবেদনে তুলে ধরা হয়েছে বাংলাদেশ দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কথাও।

*ইংল্যান্ডের বিপক্ষের সেই ম্যাচটির কথা মনে আছে নিশ্চয়ই? এই ম্যাচ প্রসঙ্গে সাকিব বলেছিলেন, ‘আমাদের শেষ ২০ ওভারে ১৯০ এর মত লাগতো সম্ভবত। ড্রেসিং রুমের সবাই ধরে নিয়েছিলো এই রান চেজ করা খুব সম্ভব! কিন্তু দুঃখজনক যে, রিয়াদ ভাইয়ের ব্যাটিং অ্যাপ্রোচ দেখে মোটেও মনে হয়নি তিনি লক্ষ্যের দিকেই ছুটছেন।’ ওই ম্যাচের পর থেকেই রিয়াদ এবং সাকিবের মধ্যে নাকি টানাপোড়েন চলছে। পাশাপাশি ড্রেসিংরুম সতীর্থদের কাছেও বিরাগভাজন হচ্ছেন রিয়াদ।

*রিয়াদের ব্যর্থতার কারণেই যে সবাই তার ওপর চটে আছে, এমনটা নয়। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৫০ বলে ৬৯ করেছিলেন রিয়াদ। কিন্তু তিনি যখন ফিফটি করেন এবং আউট হয়ে ড্রেসিংরুমে ফেরেন তখনো কেউ তাকে হাততালি দিয়ে অভিবাদন জানায়নি। এ কারণে ড্রেসিংরুমে ফিরে তিনি সিনক্রিয়েট করেন বলে একটি সূত্র জানিয়েছে। এই ঘটনার পরেও নাকি সাকিবের সঙ্গে রিয়াদের বেশ কথা কাটাকাটি হয়েছিল। দুজনের বাক বিতণ্ডার সময়ও রিয়াদ দলের কাউকেই তার পাশে পাননি বলে জানা গেছে। সবকিছু মিলিয়ে রিয়াদ আর সাকিবের দ্বন্দ্বটা এখন প্রকাশ্যেই চলে এসেছে বলে জানিয়েছে ক্রিকবাজ।

*বাংলাদেশ দলে নিজের ব্যাটিং অর্ডার নিয়েও নাকি ক্ষুব্ধ রিয়াদ। বিশ্বকাপে ছয় নাম্বারে ব্যাট করা নিয়ে তার ছিলো অসন্তোষ। ক্রিকবাজের মতে, এখান থেকেই মূলত সব ঝামেলার সূচনা হয়। এরপর ধীরে ধীরে তা ডাল পালা ছড়ায়।

*বিশ্বকাপ শেষে সাকিব, লিটনের মতো রিয়াদও বিশ্রাম চেয়েছিলেন, কিন্তু ছুটি তাকে দেয়া হয়নি। ইনজুরি বয়ে বেড়াচ্ছেন ফলে পারফরম্যান্সেও ভাটা পড়েছে। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে সাকিবের সঙ্গে তার দ্বন্দ্ব। সব মিলিয়ে রিয়াদের রিয়াদের ক্যারিয়ারটাই এখন হুমকির মধ্যে রয়েছে বলে মনে করছে অনেকে।