প্রচ্ছদ খেলা ক্রিকেট টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ: খুলে গেলো টেস্ট ক্রিকেটের নতুন দিগন্ত

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ: খুলে গেলো টেস্ট ক্রিকেটের নতুন দিগন্ত

33
টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ: খুলে গেলো টেস্ট ক্রিকেটের নতুন দিগন্ত

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। এর উদ্দেশ্য টেস্ট ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা বাড়ানো। এতে অংশ নেবে অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশ, ইংল্যান্ড, ভারত, নিউজিল্যান্ড, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলংকা এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

প্রতিটি সিরিজে অন্তত দুটি করে ম্যাচ হবে। প্রতিটি ম্যাচ পাঁচ দিন করে। সেরা দুটি টিম ২০২১ সালের এপ্রিলে এটি প্লে-অফে অংশ নেবে। এর দুমাস পর ইংল্যান্ডে হবে ফাইন্যাল ম্যাচ।

জিম্বাবুয়ে, আফগানিস্তান এবং আয়ারল্যান্ড শুরুতে এই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নেয়ার সুযোগ পাচ্ছে না। তবে চার দিনের টেস্ট ম্যাচ চালু হলে তাদের বেশি করে টেস্ট ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা অর্জনের সুযোগ হবে।

বহু বছর ধরেই একটি টেস্ট লীগ চালুর জন্য পরিকল্পনা চলছিল। আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভিড রিচার্ডসন আশা করছেন এই লীগ চালু হওয়ার পর একটি সত্যিকারের চ্যাম্পিয়ন টেস্ট টিম তৈরি হবে।

টেস্ট ক্রিকেটকে আরও আকর্ষণীয় করতেই ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার অ্যাশেজ সিরিজের এজবাস্টন টেস্ট থেকে শুরু হচ্ছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপ। এর আগে মৌসুমের শেষে দলগুলির টেস্ট ব়্যাঙ্কিংয়ের বিচারে শীর্ষে থাকা দলের হাতে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের ‘ব্যাটন’ তুলে দেওয়া হত।

এবার থেকে নতুন নিয়মে দু`বছর ধরে বিশ্ব টেস্ট টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের লড়াই চলবে। সেই লড়াই শেষে পয়েন্টের বিচারে যে দল শীর্ষে থাকবে, তার হাতেই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের শিরোপা উঠতে চলেছে।

একনজরে দেখে নেওয়া যাক, বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের পয়েন্ট বিভাজন:

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের আসরে প্রতিটি সিরিজ থেকে ১২০ পয়েন্ট অর্জন করে নেওয়ার সুযোগ থাকছে।

দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ হলে: উদাহরণ স্বরূপ যদি দুই প্রতিপক্ষের মধ্যে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ হয়, প্রতিটি টেস্ট ম্যাচ জয়ের জন্য বিজয়ী দল ৬০ পয়েন্ট পাবে। ম্যাচটি কোনও কারণে টাই হলে দুই দল ৩০ পয়েন্ট করে পাবে। আর ড্র হলে দুই দল ২০ পয়েন্ট করে পাবে।

তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ হলে: প্রতিটি টেস্ট ম্যাচ জয়ের জন্য বিজয়ী দল ৪০ পয়েন্ট পাবে। ম্যাচ টাই হলে, দুই দল২০ পয়েন্ট করে পাবে। ম্যাচ ড্র হলে দুই দল ১৩ পয়েন্ট করে পাবে।

৪ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ হলে: প্রতিটি টেস্ট ম্যাচ জয়ের জন্য বিজয়ী দল ৩০ পয়েন্ট পাবে। ম্যাচ টাই হলে দুই দল ১৫ পয়েন্ট করে পাবে। ম্যাচ ড্র হলে দুই দল ১০ পয়েন্ট করে পাবে।

৫ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ হলে: প্রতিটি টেস্ট ম্যাচ জয়ের জন্য বিজয়ী দল ২৪ পয়েন্ট পাবে। ম্যাচ টাই হলে দুই দল ১২ পয়েন্ট করে ভাগাভাগি করে নেবে। ম্যাচ ড্র হলে দুই দল ৮ পয়েন্ট করে পকেটে পুরবে।

অর্থাৎ ম্যাচ ড্র করার চেয়ে দলগুলি ম্যাচ জেতার জন্য ঝাঁপাবে। সেক্ষেত্রে টেস্ট ক্রিকেটের আকর্ষণ অনেক বাড়বে।