প্রচ্ছদ বিজ্ঞান-প্রযুক্তি “১০ নিউজ পোর্টাল, ৬০ ফেসবুক ও ২৫ ইউটিউব চ্যানেল বন্ধ”

“১০ নিউজ পোর্টাল, ৬০ ফেসবুক ও ২৫ ইউটিউব চ্যানেল বন্ধ”

43
১০ নিউজ পোর্টাল, ৬০ ফেসবুক ও ২৫ ইউটিউব চ্যানেল বন্ধ

পদ্মাসেতুতে মানুষের কাটামাথা প্রয়োজন ও ছেলেধরার বিষয়ে গুজব ছড়াচ্ছে বেশ কিছুদিন ধরেই। গণমাধ্যমে এই সংবাদগুলোই এখন মূখ্য বলা যায়। এই ধরনের সংবাদ প্রকাশের কারণে বিগত ১৬ দিনে ১০টি নিউজ পোর্টাল, ৬০টি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ও ২৫টি ইউটিউব চ্যানেল বন্ধ করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশের (ডিএমপি) সাইবার ক্রাইম বিভাগ।

এইসব ফেসবুক লিংক ও ইউটিউব লিংক এর মাধ্যমে সুপরিকল্পিতভাবে গুজব ছড়ানো হচ্ছিল। বিষয়টি জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।

আইজিপি বলেন, একটি স্বার্থান্বেষী মহল সুপরিকল্পিতভাবে দেশের পরিস্থিতিকে অস্থিতিশীল করতে এ ধরনের গুজব ছড়াচ্ছে। এ সংক্রান্ত প্রথম পোস্টটি করা হয় দুবাই থেকে। দুবাইয়ের এক ব্যক্তি এই পোস্টটি করেন। গুজব ও গণপিটুনির ঘটনায় ৩১টি মামলায় এ পর্যন্ত ১০৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

তিনি জানান, একটি মহল দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য আন্দোলনসহ নানা উপায় অবলম্বন করে ব্যর্থ হয়ে এখন গুজব ছড়াচ্ছে। তারা দেশের বাইরে থেকেও গুজব ছড়ানোর চেষ্টা করছে। গুজবের ঘটনায় এ পর্যন্ত যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে, তাদের কয়েকজনের সরকারবিরোধী রাজনীতিক দলের লিংক পেয়েছি। জড়িতদের প্রোফাইল তৈরির কাজ চলছে বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, গুজব প্রতিরোধে ইতিমধ্যে মাঠ পর্যায়ে সব ইউনিট, সব থানাকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এ পর্যন্ত যতগুলো ঘটনা ঘটেছে সবই গুজব। যারা নিহত হয়েছে তারা কেউই ছেলেধরা ছিলো না।

এ বিষয়ে ডিএমপির যুগ্ম-পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম) শেখ নাজমুল আলম বলেন, ‘পদ্মাসেতুতে মানুষের মাথা লাগবে এমন গুজবের পর ৯ জুলাই থেকে কাজ করছিলো পুলিশের সাইবার ক্রাইম বিভাগ। গুজব ছড়ানোর জন্য দায়ী অসংখ্য আইডি লিঙ্ক আমরা খুঁজে পাই। দেশ-বিদেশের বিভিন্ন জায়গাতে বসে এসব আইডি ব্যবহার করা হচ্ছিল।’

তিনি আরও বলেন, ‘আটক হওয়া অনেকেই না বুঝে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার দেন। কিন্তু একটা শ্রেণী বিদেশে বসে পরিকল্পিতভাবে এসব গুজব ছড়িয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে সাইবার ক্রাইম ইউনিট ৯৫টি ওয়েব লিঙ্ক বন্ধ করে দিয়েছে ইতিমধ্যে।