প্রচ্ছদ আইন-আদালত “শ্যালিকাকে দৈহিক মৈথুনের পর প্রাণনাশ; দুলাভাইয়ের যাবজ্জীবন”

“শ্যালিকাকে দৈহিক মৈথুনের পর প্রাণনাশ; দুলাভাইয়ের যাবজ্জীবন”

226
শ্যালিকাকে দৈহিক নির্যাতনের পর প্রাণনাশ; দুলাভাইয়ের যাবজ্জীবন

নাটোরে দশ বছর বয়সের শিশু শ্যালিকাকে দৈহিক মৈথুনের পর শ্বাসরোধ করে প্রাণনাশের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় দুলাভাই সোহাগ হোসেনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও এক লাখ টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত।
বুধবার নারী ও শিশু পীড়ন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মাইনুল হক এই রায় প্রদান করেন। সাজাপ্রাপ্ত সোহাগ হোসেন নাটোর শহরের উত্তর বড়গাছা এলাকার খলিলুর রহমানের ছেলে।

আদালত সূত্র জানায় ২০১৭ সালের ১০ জুলাই সোহাগ হোসেন তার শ্বশুর বাড়ি শহরতলির বৈদ্যবেল ঘরিয়া গ্রামের মমিন হোসেনের বাড়িতে যায়। এরপর শ্যালিকা ৫ম শ্রেণির ছাত্রী মৌমিতাকে বেড়ানোর কথা বলে কৌশলে পার্শ্ববর্তী পাট খেতে নিয়ে দৈহিক মৈথুনের করার পর শ্বাসরোধ করে প্রাণনাশ করে। এ বিষয়ে খলিলুর রহমান বাদী হয়ে জামাই সোহাগ হোসেনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ চার্জশীট প্রদানের পর স্বাক্ষ্যপ্রমাণ গ্রহণ শেষে আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

সম্পাদক/এসটি