প্রচ্ছদ শিক্ষাঙ্গন ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেত্রীদের ওপর হামলা (ভিডিও)

ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেত্রীদের ওপর হামলা (ভিডিও)

132
ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেত্রীদের ওপর হামলা (ভিডিও)

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের জের ধরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসিতে ছাত্রলীগ নেত্রীদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। শনিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ছাত্রলীগ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর নেতৃত্বে এ ঘটনা ঘটে। এতে ছাত্রলীগের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

এ ঘটনায় টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের সামনে অবস্থান নেন হামলার শিকার নেতাকর্মীরা। তারা অভিযোগ করেন, ছাত্রলীগের কমিটিতে বিতর্কিত নেতাদের বিষয়ে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে তথ্য-প্রমাণ উপস্থাপন করতে এসে হামলার শিকার হয়েছেন তারা।

কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে রোকেয়া হল ছাত্রলীগ সভাপতি বিএম লিপি আক্তার, সুফিয়া কামাল হলের সাধারণ সম্পাদক সারজিয়া শারমিন চম্পা ও কেন্দ্রীয় সংসদের উপ-সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক তিলোত্তমা শিকদারকে মারধর করেন ছাত্রলীগ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আল আমিন রহমান বলেন, আমাদের সঙ্গে তারা বসেছিলেন। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে রাব্বানী ভাই লিপি, সম্পা ও তিলোত্তমা আপুর গায়ে হাত তোলেন। আমরা এর নিন্দা জানাই।

তবে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী দাবি করেছেন কারও গায়ে হাত তোলা হয়নি। তিনি বলেন, ‘ছাত্রলীগের কিছু নেতাকর্মী কমিটিকে কেন্দ্র করে ইস্যু তৈরির চেষ্টা করছে। আজ কারও গায়ে হাত তোলা হয়নি। সিন্ডিকেটের নির্দেশে নাটক সাজিয়ে তারা বিশৃঙ্খলার চেষ্টা করছে।’

এর আগে, গত ১৩ মে পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে ‘বিতর্কিতদের’ পদায়ন করার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত ও ভুক্তোভোগীরা। তারা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে মধুর ক্যান্টিনের সামনে গেলে নতুন কমিটিতে পদ পাওয়া ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সাদিক খান ও অর্থ সম্পাদক রাকিব হোসেনের নেতৃত্বে সাত আটজন অনুসারী এই মিছিলের উপর হামলা চালায়। এতে আহত হন বেশ কয়েকজন।

ভিডিও:

রাব্বানীর নেতৃত্বে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেত্রীদের ওপর হামলা

রাব্বানীর নেতৃত্বে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত নেত্রীদের ওপর হামলা

Publicado por Sompadak.com em Sábado, 18 de maio de 2019

আবারও মার খেয়ে অনশনে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা

দ্বিতীয় দফায় মার খেয়ে অনশনে বসেছেন ছাত্রলীগের কমিটির পদবঞ্চিত নেতারা। শনিবার দিবাগত রাত আড়াইটা নাগাদ পদবঞ্চিতদের ওপর হামলা চালানো হয় বলে জানা গেছে। এই হামলায় ২৫ জনের মতো নেতা-কর্মী আহত হয়েছে। তাদের মধ্যে কয়েকজন নারী নেত্রীও রয়েছেন।

পদবঞ্চিত কয়েকজন নেতা জানিয়েছেন, কমিটি নিয়ে সৃষ্ট সমস্যা সমাধানের জন্য টিএসসিতে ছাত্রলীগের দুইপক্ষের নেতারা বৈঠকে বসেছিলেন। বৈঠকে পদবঞ্চিত ও পদধারী অন্তত পাঁচশ নেতা উপস্থিত ছিলেন। ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীও সেখানে ছিলেন।

ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে বিতর্কিত যারা রয়েছেন তাদের বিষয়ে তথ্য প্রমাণ উপস্থাপন করছিলেন পদবঞ্চিতরা। এ সময় রাব্বানী রোকেয়া হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি লিপি আক্তারকে ‘ভাইরাস’ বলে সম্বোধন করেন। এর প্রতিবাদ জানালে লিপি আক্তারের ওপর চড়াও হন রাব্বানী। এরপর তার অনুসারীরা লিপিসহ পদবঞ্চিতদের ওপর হামলা চালায়।

হামলার ঘটনার পর টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের সামনে অনশনে বসেছেন পদবঞ্চিত নেতারা। হামলার বিচার এবং ছাত্রলীগের কমিটির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা না বলা পর্যন্ত তারা অনশন চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন।