প্রচ্ছদ রাজনীতি যে কারণে তারেকের কাছে ১০০ কোটি টাকা চেয়েছে বিএনপি

যে কারণে তারেকের কাছে ১০০ কোটি টাকা চেয়েছে বিএনপি

233
যে কারণে তারেকের কাছে ১০০ কোটি টাকা চেয়েছে বিএনপি

বেগম জিয়ার চিকিৎসা, মামলা খরচ ভরণ-পোষণ, নেতাকর্মীদের মামলার খরচসহ মোট ১০ খাতে তারেক জিয়ার কাছে ১০০ কোটি টাকা চেয়েছে বিএনপি।

আজ বিকেলে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যদের সঙ্গে স্কাইপে- বেগম জিয়া, সংগঠন নিয়ে বৈঠক করেন লন্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক জিয়া। বিএনপি নেতারা দল চালাতে অর্থনৈতিক সংকটের কথা বলেন। তারেক জিয়া তাৎক্ষণিকভাবে জানতে চান কত টাকা লাগবে? জবাবে বিএনপি নেতারা এসব খাতের কথা উল্লেখ করে ঐ টাকার প্রয়োজনীয়তার কথা বলেন। তারেক জিয়া বলেন, ‘ দেখছি।’ তারেক জিয়ার সঙ্গে স্কাইপ বৈঠকে উপস্থিত বিএনপির অন্তত দুজন নেতা এই তথ্য জানিয়েছেন। বিএনপির নেতারা যে সব খাতে যে টাকা চেয়েছেন, তার হিসেব এরকম;

১. বেগম জিয়ার বঙ্গবন্ধুতে কেবিন ভাড়া এবং বিশেষায়িত চিকিৎসার খরচ ব্যক্তিগত ভাবে বহন করতে হবে। তাছাড়া তাকে যদি ইউনাইটেড হাসপাতালে নেওয়া হয়, সেখানে পুরো খরচই বেগম জিয়াকে ব্যক্তিগতভাবে বহন করতে হবে। এই খরচ হতে পারে ১ কোটি টাকা।

২. বেগম জিয়ার মামলা পরিচালনা ব্যয় ইতিমধ্যে প্রায় ৪ কোটি টাকা বকেয়া পরেছে। তার মুক্তির জন্য আইনী লড়াইয়ে আরো অন্তত ২ কোটি টাকার প্রয়োজন হবে বলে আইনজীবীরা জানিয়েছেন। অর্থাৎ বেগম জিয়ার মামলা পরিচালনা ব্যায় হতে পারে ৬ কোটি টাকা।

৩. বেগম জিয়ার গুলশানের বাড়ি ভাড়া, বিদ্যুৎ, গ্যাস বিল ইত্যাদি বকেয়া হয়েছে প্রায় ১ কোটি টাকা। এছাড়াও তার নিরাপত্তারক্ষী,মালিসহ ৩২ জন কর্মচারীর বকেয়া বেতনের পরিমান প্রায় ৫০ লাখ টাকা। অর্থাৎ বেগম জিয়ার ভরন পোষণ বাবদ প্রয়োজন ১ কোটি ৫০ লাখ টাকা।

৪. বিএনপির কমবেশি আট হাজার নেতাকর্মী জেলে। এদের মামলা পরিচালনার জন্য অন্তত ১৫ কোটি টাকা প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন বিএনপি নেতৃবৃন্দ।

৫. আটক নেতা কর্মীদের (কিছু কিছু) পরিবারের ভরণ-পোষণের জন্য ১০ লাখ টাকা হিসেবে বছরে প্রায় ১ কোটি ২০ লাখ টাকা।

৬. পুলিশী নির্যাতনসহ আন্দোলন সংগ্রামে আহত নেতাকর্মীদের ভরণ-পোষণের এবং চিকিৎসার জন্য ১ কোটি টাকা।

৭. দলের দুটি কার্যালয় এবং রুটিন কাজ পরিচালনার জন্য এককালীন ২ কোটি টাকা। ৮. আন্দোলন এবং বিভিন্ন কর্মসূচী পালনের জন্য থোক বরাদ্দ হিসেবে ৫০ কোটি টাকা।

৯. সরকারের বিরুদ্ধে প্রচারনায় (স্যোশাল মিডিয়াসহ মূল মিডিয়ায়) ১০ কোটি টাকা। ১০. বিদেশী লবিং, কূটনৈতিকদের আপ্যায়ন ইত্যাদি খাতে ২০ কোটি টাকা।

তবে, তারেক জিয়া কিভাবে এই টাকা দেবেন, বা আদৌ দেবেন কিনা তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।