প্রচ্ছদ বিজ্ঞান-প্রযুক্তি আগুন লাগলে কি করবেন? (ভিডিও)

আগুন লাগলে কি করবেন? (ভিডিও)

34
আগুন লাগলে কি করবেন? (ভিডিও)

হঠাৎ শুনলেন পাশের ভবনে আগুন লেগেছে। খুব ঘাবড়ে গেলেন, আগে আগুনের পরিস্থিতি বোঝার চেষ্টা করলেন।

আপনার ভবনেও আগুন লাগবে কি না, আগেই বের হবেন কিনা ভাবতে ভাবতে অবস্থা বেগতিক। আপনার মাথায় নিরাপদে নেমে যাওয়ার পাশাপাশি কাজ করছে কীভাবে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা যায় বা কীভাবে আটকে পড়াদের বের করে আনা যায়। বেশকিছু ক্ষয়ক্ষতির পর শুনলেন আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে, হাঁপ ছেড়ে বাঁচলেন আপনি। কিন্তু এই আগুন তো আপনার ভবনে, আপনার ঘরেও লাগতে পারে যেকোনো সময়ে। তাই আপনার প্রয়োজন কিছু সতর্কতা আগে জেনে রাখা, নাহলে অগ্নিকাণ্ড ঘটলে আপনার অসতর্কতায় ঘটে যেতে পারে ভয়ংকর কোনো দুর্ঘটনা।

দেখে নিন আপনার করণীয়গুলো:

১. সবার আগে এ ধরনের পরিস্থিতিতে অস্থির না হয়ে শান্ত থাকার চেষ্টা করুন। বাইরে বের হওয়ার সব পথ একবার দেখে নিন। এক মিনিট সময় নিয়ে ভাবুন কোন পথ দিয়ে বের হলে সবচেয়ে নিরাপদ হবে। বের হওয়ার সময় চেষ্টা করুন জরুরি নির্গমনের পথ ব্যবহার করতে।

২. অন্যের কথায় বিচলিত না হয়ে আদৌও আগুন লেগেছে কিনা তা বোঝার চেষ্টা করুণ। আগুন ছোট থাকতেই অগ্নিনির্বাপন যন্ত্র ব্যবহার করে তা নিভিয়ে ফেলুন। আগুন যদি বৈদ্যুতিক বা রাসায়নিক দ্রব্য থেকে না লেগে থাকে তাহলে আপনি সেটা নেভানোর জন্য পানি ব্যবহার করতে পারেন। যে আগুন আপনার নিয়ন্ত্রণের বাইরে তা নেভানোর চেষ্টা করবেন না। আগুন বৃদ্ধি পেয়ে যদি এমন অবস্থায় পৌঁছায় যে সেটা সহজে নেভানো যাবে না, তাহলে দ্রুত ভবন ত্যাগ করুন। আগুন ছড়িয়ে পড়লে বের হওয়ার সুযোগ না পাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

৩. বাড়ি বা বিল্ডিংয়ের যেসব অংশে আগুন ও ধোঁয়া বেশি রয়েছে সেসব অংশ এড়িয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করুন। ছাদে উঠতে না গিয়ে চেষ্টা করুন নিচে নেমে যাওয়ার। দরজায় আগুন লাগলে বের হওয়ার জন্য অন্যে কোনো পথ বেছে নেবেন।

৪. কখনোই উপর থেকে নিচে লাফ দেবেন না। কোনোভাবে বের হতে না পারলে জানালা দিয়ে সাহায্য চাইতে পারেন। বের হওয়ার সময় মুখে রুমাল ব্যবহার করুন।

৫. এই সময়ে ভয়ে আতঙ্কে মাথা কাজ করে না। অনেকে এ ধরনের পরিস্থিতিতে ভয় পেয়ে বিছানার নিচে বা অন্য কোনো স্থানে লুকিয়ে পড়ে। এ রকম কাজ কখনোই করতে যাবেন না। বরং দ্রুত বাড়ি থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করুন।

৬. বের হওয়ার সব অবস্থা বন্ধ থাকলে ইমাজেন্সি সার্ভিসে ফোন করুন বা পরিচিত কারো কাছে সাহায্য চান। আর ঘরের মধ্যে একেবারেই বন্দি হয়ে পড়লে, দরজা বন্ধ করে দিন। তোয়ালে বা কাপড় দিয়ে ঘরের ফাঁটলগুলো বন্ধ করুন। এতে ঘরের ভেতর আগুন ঢুকতে বাধা পাবে। বের হওয়ার সময় শিশু, প্রতিবন্ধী, সন্তানসম্ভাবা নারীকে আগে সুযোগ দিন।

৭. বৈদ্যুতিক আগুনে দ্রুত মেইন সুইচ বন্ধ করে দিন। তেলজাতীয় আগুনে কম্বল, ছালা, মোটা কাপড়, কাঁথা ভিজিয়ে চাপা দিন। পরনের কাপড়ে আগুন লাগলে মাটিতে গড়াগড়ি দিন, দৌঁড়াদৌঁড়ি করবেন না।

৮. যদি ভবনটি ধোঁয়ায় ভরে যায়, তাহলে বের হওয়ার সময় নাকে মুখে একটা কাপড় চেপে ধরুন এবং যতটা সম্ভব নিচু হয়ে আস্তে আস্তে বের হয়ে আসুন। ধোঁয়ার মধ্যে নিঃশ্বাস নেওয়া খুবই বিপদজনক। এতে শ্বাসনালী পুড়ে যেতে পারে। যদি ভবনের মধ্যে ধোঁয়া বাড়তে থাকে তাহলে হাত-পায়ে ভর দিয়ে হামাগুড়ি দিয়ে ভবন থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করতে হবে।

৯. আগুন যদি আপনার রান্না ঘরের তেল বা গ্রিজ থেকে সৃষ্টি হয়, তাহলে তার উপর বেকিং সোডা বা লবণ ঢেলে দেবার চেষ্টা করুন। এটা যদি রান্না করার পাত্রে সূত্রপাত হয় তাহলে তা ঢাকনা দিয়ে দ্রুত ঢেকে দিন। জ্বলতে থাকা কড়াইয়ে পানি ঢালবেন না বা ফায়ার এক্সটিংগুইশার ব্যবহার করবেন না।

১০. যদি দেখেন দরজা গরম, দরজার নিচ দিয়ে বা ফাঁকা জায়গা দিয়ে ধোঁয়া আসছে এবং দরজার হাতলও গরম তাহলে দরজা খুলবেন না। তারমানে বুঝতে হবে আগুন কাছে চলে এসেছে। যদি দেখেন দরজার হাতল ঠাণ্ডা, দরজার ফাঁক দিয়ে ধোঁয়া আসছে না তাহলে ধীরে ধীরে ও সাবধানতার সঙ্গে দরজা খুলুন এবং তাড়াতাড়ি ভবন থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করুন।

ভিডিও: