প্রচ্ছদ চিলেকোঠা সাইফুল বাতেন টিটো’র গল্পের বই ’জাতের নামে বজ্জাতি’ মেলায় এসেছে

সাইফুল বাতেন টিটো’র গল্পের বই ’জাতের নামে বজ্জাতি’ মেলায় এসেছে

42
সাইফুল বাতেন টিটো’র গল্পের বই ’জাতের নামে বজ্জাতি’ মেলায় এসেছে

প্রথম বই ‘ক্লিনিক্যাল লায়ার’-এর আশাতীত সাফল্যের পর বইমেলায় এবার এলো তরুণ লেখক সাইফুল বাতেন টিটো‘র দ্বিতীয় বই ‘জাতের নামে বজ্জাতি’। বইটি প্রকাশ করেছে অগ্রদূত অ্যান্ড কোম্পনি।

ভিন্ন ধর্মূী লেখক সাইফুল বাতেন টিটো ২০০৫ সাল থেকে দেশের প্রথম শ্রেণীর দৈনিক পত্রিকার সাহিত্য পাতায় লিখে নিজের হাত পাকিয়েছেন। তৈরি করে নিয়েছেন নিজস্ব ঘরানা যা পাঠক বেশ ভালো ভাবেই গ্রহণ করেছে। দীর্ঘ দিন ধরে লিখেলেও ২০১৮ সালে তিনি প্রথম বই প্রকাশে সচেষ্ট হলে দেশের অন্যতম প্রতিষ্ঠিত প্রকাশনী ‘ঐতিহ্য প্রকাশ’ সাইফুল বাতেন টিটোর প্রথম বই প্রকাশ করতে সানন্দে আগ্রহ প্রকাশ করে। তারই ধারাবাহিকতায় এবারের বইমেলায়ও প্রকাশিত হলো তার দ্বিতীয় ছোটগল্প গ্রন্থ ‘জাতের নামে বজ্জাতি’। আগের বইয়ের মতো এ বইতেও থাকছে ছোট বড় মিলেয়ে ভিন্ন স্বাদের মোট দশটি ছোট গল্প।

মানুষের ভেতরকার মানুষ নিয়েই মূলত সাইফুল বাতেন টিটোর কারবার। যা কিছু প্রত্যক্ষ ও চাক্ষুষ, তারই সাঁকো ধরে তিনি হেঁটে চলেন চক্ষুর অগোচরের পরোক্ষ বাস্তবতার দিকে। ছোট ছোট গল্পের হাত ধরে এগিয়ে যান বৃহতের পথে। সহজ-সরল ভঙ্গিমায় বর্ণনা করেন জটিল-গরল অনুভূতিসমূহের আদ্যোপান্ত।

এই বইতে সংমিশ্রণ ঘটেছে লেখকের কল্পনা ও অভিজ্ঞতার বহুমুখী সৃষ্টির। কখনো রূপক বা প্রতীকের সাহায্যে যেমন অন্য আঙ্গিকে অবয়ব পেয়েছে ‘হাউ টু বাই এ বেটার সেক্স টয়’ গল্পের রেক্সোনা, তেমনি কোনো ভনিতার আড়াল ছাড়াই নিজের ক্ষুদ্র অস্তিত্বে সমগ্রকে ধারণ করেছে ‘ক্লিপ্টোম্যানিয়া’ গল্পের কিশোরী সেলিনা। উভয়েই আক্রান্ত কোনো না কোনো অস্বীকৃত অসুস্থতায়, অথচ কেউই নিতে চায় না তাদের পরিণতির দায়ভার।

কোনো কল্পলোকের আশ্রয় ছাড়াই লেখক ঝরঝরে বাস্তবতার চিত্র অংকন করেছেন ‘সমীকরণ’ গল্পে, যেখানে সূক্ষ্নভাবে প্রকাশিত হয়েছে নারী ও পুরুষের বয়স ও বেড়ে ওঠার বিভেদের ফলস্বরূপ তাদের সামাজিক অবস্থানের রূঢ় বৈষম্যের দৃশ্য।

কেবল বয়স ও বেড়ে ওঠার ক্ষেত্রেই নয়, সামাজিকতার প্রভেদ যে নারীকে আক্রমণ করে তার প্রকৃতিগত প্রবণতাসমূহের বিকাশের ক্ষেত্রেও তার প্রকট দৃশ্যায়ন ঘটেছে ‘পথের গল্প’ ও ‘ক্ষমতা-অক্ষমতা’ গল্পদুটিতে। যেখানে এক অবদমিত সহায়হীন নারীকে নতুন জীবনের পথে পা বাড়াতে সাহায্য করে অচেনা কোনো পুরুষের অতিচেনা বাস্তববোধের ব্যাখ্যা। অন্যদিকে আরেক নারী আরিফা নিজেই সক্ষম হয় নিজস্ব যুক্তির হাতিয়ার দিয়ে সমস্ত আরোপিত ধ্যান-ধারণার জাল ছিঁড়ে ফেলতে।

এ গ্রন্থের শিরোনামসূচক গল্প ‘জাতের নামে বজ্জাতি’ । ধর্মকেন্দ্রিক বাতুলতার কেন্দ্রে আঘাত করাই এ গল্পের মূল উদ্দেশ্য। একজন কট্টর মুসলমানের পরিবারে একজন উদারপন্থী হিন্দুর অনুপ্রবেশের গল্পের হাত ধরে লেখক দেখিয়েছেন জাত তথা ধর্মের প্রতি মানুষের অন্ধবিশ্বাসের বিষাক্ত ছোবলের পরিণতি।

একদিকে ‘হেডফোন’ গল্পের হিমু চরিত্রের ভেতর সূক্ষ্নভাবে দেখা যায় নিবিড় আত্মদ্বন্দ্বের শ্লেষ। অপরদিকে ‘আপ্যায়ন’ গল্পের নাজমুল চরিত্রের মধ্য দিয়ে বেশ স্থূলভাবেই উন্মোচিত হয়েছে কেবল জাতীয় নয়, বরং বৈশ্বিক রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটের প্রভুদের মুখের আড়ালের মুখোশও।

আবার কোনো উদ্দেশ্য বা মর্মবাণী ছাড়াই নিছক গল্পের ছকে আবর্তিত হয়েছে রহস্যগল্প ‘যোগাযোগ’।
সাইফুল বাতেন টিটোর লেখার মুন্সিয়ানা এখানেই যে, সবগুলো গল্পের প্রতিটি মানুষই একেকটি মূর্তিমান চরিত্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে এবং প্রতিটি চরিত্রই হয়ে ওঠে কেন্দ্রীয়। এই যে, ঘটনা ও চরিত্রের সমান্তরাল সন্নিবেশন, এর মাধ্যমেই ধরা পড়ে পাঠকের সাথে লেখকের সম্বন্ধের বিশেষত্ব।

অগ্রদূতের প্রকাশনায় বইটির প্রচ্ছদ করেছেন সারাজত সৌম। বইটি পাওয়া যাবে অমর একুশে বইমেলায় অগ্রদূত অ্যান্ড কোম্পানির স্টলে। স্টল নম্বর ৫৮৮। বইটির গায়ের মূল্য ২৫০ টাকা। ২৫% ছাড়ে অগ্রদূতের ষ্টল থেকে বইটির ক্রয় মূল্য পড়বে ১৮৫ টাকা। এছাড়াও গত বই মেলায় প্রকাশিত তাঁর প্রথম বই ‘ক্লিনিক্যাল লায়ার’ পাওয়া যাবে বইমেলায় ঐতিহ্যের প্যাভিলিয়নে, প্যাভেলিয়ন নম্বর ৬।