প্রচ্ছদ জীবন-যাপন প্রবাসে স্বামী, শ্বশুর ও দেবরের ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা প্রতিবন্ধী নারী!

প্রবাসে স্বামী, শ্বশুর ও দেবরের ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা প্রতিবন্ধী নারী!

190
প্রবাসে স্বামী, শ্বশুর ও দেবরের ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা প্রতিবন্ধী নারী!

কুমিল্লার লাকসামে বাকপ্রতিবন্ধী পুত্রবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে শ্বশুর ও দেবরকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার (১০ ফেব্রুয়ারি) উপজেলার বাকই দক্ষিণ ইউনিয়নের কোয়ার গ্রামে।

আটককৃতরা ওই গ্রামের মৃত. ফজর আলীর ছেলে সফি উল্যাহ (৫০) ও তার ছেলে পরান হোসেন (২০)। ধর্ষিতা গৃহবধূর স্বামী প্রায় গত দেড় বছর যাবত প্রবাসে রয়েছে। ধর্ষিতা গৃহবধূ ২ সন্তানের জননী।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বাকই দক্ষিণ ইউনিয়নের কোয়ার গ্রামের এক প্রবাসীর বাকপ্রতিবন্ধি স্ত্রীকে র্দীঘদিন যাবত তার শ্বশুর ধর্ষণ করে আসছিলো। এতে ওই প্রতিবন্ধী গৃহবধূ ৭ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। ধর্ষিতা গৃহবধূর স্বামী প্রায় গত দুই বছর যাবৎ প্রবাসে রয়েছে।

গতকাল এ বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয়রা লাকসাম থানা পুলিশকে খবর দেয়। সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশের এস.আই কামাল হোসেন ঘটনাস্থল থেকে ধর্ষক সফি উল্যাহ ও তার ছেলে পরান হোসেনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এর আগেও সফিউল্লার বিরুদ্ধে একাধিক বিয়ে এবং নারী কেলেঙ্কারীর অভিযোগ রয়েছে বলে স্থানীয়রা জানান।

লাকসাম থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনোজ কুমার দে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।