প্রচ্ছদ মুক্ত মতামত মুমিনের চোখের তারায় দাসী ভোগের ‘উদগ্র’ বাসনা দেখেছি

মুমিনের চোখের তারায় দাসী ভোগের ‘উদগ্র’ বাসনা দেখেছি

217
মুমিনের চোখের তারায় দাসী ভোগের 'উদগ্র' বাসনা দেখেছি

কায়সার আহমেদ

যেসব নারীদের স্বামীরা পাঁচওয়াক্ত নামাজী, ‘সহীহ’ আমলদার মুমিন, সেইসব স্ত্রীগণের জ্ঞাতার্থে একটি সতর্কতামূলক বিজ্ঞপ্তি। ইদানিং মুক্তচিন্তকদের কল্যাণে কোরান হাদিসের অনেক ‘গোপনীয়’ তথ্য, আয়াত প্রকাশ পেয়ে যাচ্ছে। যেমন, দাসীর সাথে যৌনতার বিষয়টি। এটি অনেক শিক্ষিত গোড়া ‘নৈতিক’ মুমিনরাও এতদিন জানতো না।

আমার ইতোমধ্যে দুয়েকজনের সাথে কথা হয়েছে, যারা এগুলো সম্প্রতি জেনেও ‘কট্টর’ মুমিন অবস্থানে আছে, তাদের ব্যাখ্যা হচ্ছে, “আল্লাহ্পাকের দেওয়া দাসীর সাথে যৌনতার বিধানটি ‘সঠিক’। কারণ দাসীরাও মানুষ, এদেরও উত্তমপন্থায় নিরাপদ যৌনচর্চার অধিকার রয়েছে। তাই দাসীর মালিককেই আল্লাহ্ ‘উত্তম’ ব্যক্তি হিসাবে পছন্দ করেছেন দাসীর জন্য।” উক্ত মুমিনদ্বয়কে আমি আফসোস করতেও দেখেছি। “ইশ, যদি দেশে থাকাকালীন জানতাম দাসী হালাল, কত কাজের মেয়েকে পেয়েছি, কিন্তু গুনাহ হবে ভেবে ফিরেও তাকাইনি ওদের দিকে।”

এইদুইজন মুমিনের চোখের তারায় আমি দাসী ভোগের ‘উদগ্র’ বাসনা দেখেছি। আমি নিশ্চিত এরা এখন দেশে যাওয়ার পরে দাসী খুঁজবে বিছানায় নিতে। তাই মুমিনা বোনদেরকে সতর্কবার্তা। আপনারা ‘মুমিন’ স্বামীদের সাথে ‘দাসী সেক্স’ সম্পর্কিত কোরানের আয়াতগুলো নিয়ে একটু ‘টুকা’ মারুন। যদি দেখেন ভাব ‘সন্দেহযুক্ত’, কিংবা স্বামীধন অনেক ত্যানাবাজি শুরু করেছেন বিষয়টিকে ‘হালাল’ প্রমান করতে। তবেই বুঝবেন কাজের মেয়েকে বিদায় দেওয়ার টাইম আর্জেন্ট। রিপ্লেইসমেন্ট হিসাবে কাজের ছেলে রাখুন। কাজের ছেলেতে স্বামীর আপত্তি থাকলে প্রয়োজনে বুড়ো চাচামিয়া বা চাচী আম্মার বয়সী কাউকে রাখুন। ইহাতে মুমিন স্বামীগণ (সূরা আলমুমিনুন, ৫-৬, নিসা, ২৪ আয্হাব ৫২) ইত্যাদি আয়াত আমল করিবার সুযোগ থেকে নিষ্কৃতি লাভ করিবেন। আপনিও পরিবারের শান্তি টেকসই রাখিতে সক্ষম হইবেন।

‘পবিত্র’ কোরান সর্বযুগের আদর্শ ‘গাইডলাইন’ ঐশী কিতাব?

‘পবিত্র’ কোরান যদি সর্বযুগের আদর্শ ‘গাইডলাইন’ ঐশী কিতাব হয়! আজকের যুগের পরিবর্তিত অনেক ইস্যুর সমাধান নেই কেন এতে? যেমন নারীরা কলেজ ভারিসিটিতে যাবে কি না? নারীরা চাকুরী, ব্যবসা, স্পোর্টস, সংগীত, অভিনয় থেকে শুরু করে প্লেন চালানো পর্যন্তও কোন ধরণের অধিকার পাবে? মুমিনরা ইহুদীর ফেসবুকে একাউন্ট খুললে কোন দোজখে জ্বলবে? গাড়ির ড্রাভিং সিট কোনদিকে থাকবে? মুসলিমের চাঁদে যাওয়া হারাম না হালাল? নারী প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী হলে মুমিনদের কি করণীয়? দাসপ্রথা আবার চালু হবে কিনা? দাসীদের সাথে সেক্স প্রথা বন্ধ করার শাস্তি কি? শিশু মেয়েদের বুড়ো বয়সে বিয়ে করা ঠিক হবে কিনা?

পালকপুত্রের বৌকে কি এইযুগেও বিয়ে করা ‘হালাল’? একজন মুমিন কি এইযুগেও দাসী ভোগ করতে পারবে? নাস্তিক মুরতাদ কবিদেরকে হত্যার আধুনিক টেকনিক কি হবে? কাফেরদের সাথে যুদ্ধ করতে কোন অস্ত্রের ব্যবহারে বেশি সওয়াব হবে? ইহুদি নাসারা খ্রিস্টানদের দেশে বসবাস, তাদের সকল সুবিধাদি, প্রযুক্তির ব্যবহার ইত্যাদির উপর নতুন বিধি-নিষেধ, নীতিমালার আপডেট কেমন হবে? টেলিভিশন সীনেমায় নারীরা যাবে কিনা। হিল্যা বিয়ে, মুতা বিয়ে এগুলো থাকবে কিনা? সমকামীদের ব্যাপারে নতুন ধর্মীয় বিধান কি হবে? পুরুষের চার বিয়ে কমিয়ে এক বা দুইয়ে নামিয়ে আনা যাবে কিনা?

এরকম প্রতিটি বিষয়, যেগুলো চৌদ্দশো বছর পূর্বের নিয়ম রীতির সাথে চরম ‘সাংঘর্ষিক’ এবং অনেক পরের উদ্ভাবন। সেগুলোর আপডেটেড বিধান অবশ্যই আল্লাহ্পাক ‘এডভান্সড’ বলে দিতে পারতেন? তবেই কোরানকে ঐশ্বরিক ‘গায়েবি’ কিতাব হিসাবে মানুষ এইযুগেও ‘নিঃসন্দেহে’ আনন্দচিত্তে চর্চা করতো।

এছাড়াও রসূলের হাদিসের মধ্যেও আধুনিক যুগের সকল আপডেটের সমাধান থাকা আবশ্যিক ছিল। কারণ তিনি একটি বালক কে দেখিয়ে কেয়ামত শুরুর সময়কাল বলে দিয়েছিলেন। উটের দুধ মুত খেলে পেটের পীড়া দূর হওয়ার ঔষধ আবিষ্কার করেছেন। মি’রাজে পুরো উনিভার্স ভেদ করে আল্লাহর সাথে সাক্ষাৎ করে এসেছেন। চাঁদ দ্বিখণ্ডিত করেছেন, অথচ কাফের কিং ডোনাল্ড ট্রাম্পের দেশ আমেরিকাতে মুমিনরা কোন হালতে দ্বীন পালন করবেন? আটলান্টিক পাড়ি দিয়ে সেখানে দ্বীনের কাজ কিভাবে করবেন?

নর্থ পোলের মুমিনরা কয়ঘন্টা রোজা রাখবেন- ইত্যাদি প্রতিটি বিষয়ের ‘এডভান্সড’ ফায়সালা নবীজি চাইলেই জিব্রাইলকে জিজ্ঞেস করে বলে দিয়ে যেতে পারতেন, কিন্তু তিনি (নবী) বা আল্লাহ ওসবের কিছুই করেন নি। তিনাদের দুইজনের কিতাব খুললেই দেখা যায়- কাফের মুরতাদ হত্যা, দাসীর সাথে সেক্স (আজল সহ), নারীর ঋতু শুরুর পূর্বেই বিয়ে, হিল্যা বিয়ে, মুতা বিয়ে, চার বিয়ে, হুর জান্নাত, জাহান্নাম, কবরের আজাব, খানে দাজ্জাল, ঈমাম মাহ্দী, ইয়াজুজ মাজুজ, নবীগণের কিচ্ছা কাহিনি এইসবে ভরপুর। অথচ আধুনিক যুগের একটি বিষয় বা আবিষ্কারেরও সমাধান নেই ‘সর্বযুগের’ কিতাবে।

সম্পাদক/এসটি