প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয় মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকে অশ্রুসিক্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকে অশ্রুসিক্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

106
মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকে অশ্রুসিক্ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

আওয়ামী লীগের বিপুল বিজয়ের পর গঠিত মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকটি উৎসবমুখর ছিল না। ছিল বেদনাবিধুর অশ্রুসিক্ত।

আওয়ামী লীগ নির্বাচনী ফলাফলে যে চমক দেখিয়েছে, তার চেয়ে বড় চমক দেখিয়েছে মন্ত্রিসভা গঠনে। ধারণা করা হয়েছিল মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠক হবে উৎসবমুখর, আনন্দমুখর এবং নতুন মন্ত্রীরা প্রথম মন্ত্রিসভার বৈঠকেই মন্ত্রিত্ব উপভোগের পূর্ণ স্বাদ পাবেন। কিন্তু মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকটি হলো বিয়োগান্তক, শোকে বিহ্বল। প্রধানমন্ত্রীও এই বৈঠকে কাঁদলেন।

মন্ত্রিসভার বৈঠকের শুরুতে চারবারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ সফিউল আলমসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকের প্রথম আলোচ্যসূচি ছিল, সাবেক জনপ্রশাসনমন্ত্রী প্রয়াত সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের উপর শোক প্রস্তাব। শোক প্রস্তাবের উপর বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী অশ্রুশিক্ত হয়ে পড়েন, তিনি স্মৃতিকাতর হন এবং এক পর্যায়ে তিনি আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন।

সৈয়দ আশরাফের স্মৃতিচারণ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন যে, ৭৫’র ১৫ আগস্টের পর আওয়ামী লীগের পুনর্গঠনের সময় লন্ডনে সৈয়দ আশরাফের সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করেন তিনি। সৈয়দ আশরাফের সততা, নিষ্ঠা, দলের প্রতি তার আনুগত্য আবেগতাড়িত কণ্ঠে স্মরণ করেন প্রধানমন্ত্রী। একপর্যায়ে কান্নায় বাষ্পরুদ্ধ প্রধানমন্ত্রী বলেন যে, আওয়ামী লীগ একটি পরিবার। সৈয়দ আশরাফের মতো একজন ব্যক্তিকে হারিয়ে আওয়ামী লীগের যে ক্ষতি হয়েছে, সেটা পুষিয়ে নেয়া অনেক কঠিন।

মন্ত্রিপরিষদ বৈঠকের পরবর্তী এজেন্ডা ছিল সংসদের প্রথম অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণ ও অন্যান্য প্রসঙ্গ।

সম্পাদক/এসটি