প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জাতীয় ভাঙ্গায় নৌকার সমর্থকরা মার খাচ্ছে: কাজী জাফর উল্লাহ

ভাঙ্গায় নৌকার সমর্থকরা মার খাচ্ছে: কাজী জাফর উল্লাহ

70
ভাঙ্গায় নৌকার সমর্থকরা মার খাচ্ছে: কাজী জাফর উল্লাহ

সংসদ নির্বাচনে ফরিদপুর-৪ (ভাঙ্গা-সদরপুর) আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী কাজী জাফর উল্লাহ বলেছেন, তার নির্বাচনী এলাকায় ভোটের দিন (রবিবার) রাত থেকে দলের নেতা-কর্মীদের বাড়িঘরে প্রতিপক্ষের গুণ্ডারা ’৭১-এর পরাজিত শক্তির মতো তাণ্ডব চালায়।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় যাচ্ছে কিন্তু ভাঙ্গা এলাকায় মার খেয়ে শেষ হয়ে যাচ্ছে নৌকার সমর্থকরা। কাজী জাফর উল্লাহ আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য। ৩০ ডিসেম্বরে নির্বাচনে তার প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী নিক্সন চৌধুরী নির্বাচিত হন।

বিজয়ী প্রার্থীর সমর্থকরা ভাঙ্গা পৌরসভা, আলগী, হামিরদী, কালামৃধা, নাসিরাবাদ, কাউলীবেড়া, আজিমনগর, ঘারুয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন জায়গায় আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীদের বাড়িঘরে হামলা ও লুটপাট চালায় এবং লোকজনকে মারধর করে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ প্রেক্ষাপটে কাজী জাফর উল্লাহ গতকাল ভাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তৃতা করছিলেন।

তিনি প্রশাসনের বিরুদ্ধে দায়িত্বহীনতার অভিযোগ এনে বলেন, রবিবার রাতে সদরপুরের চরমানাইর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের বাড়িসহ নৌকার পক্ষের লোকজনের বাড়িঘরে হামলা হয়। সে রাতে ওই এলাকার ২৭ জন নারী-পুরুষ পালিয়ে এসে তার বাড়িতে আশ্রয় নেন। ভাঙ্গার নাসিরাবাদের ভদ্রকান্দা গ্রামে নৌকার সমর্থক মানিক সরকারের বাড়িতে হামলা ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে, তিনি ফরিদপুর জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে জানান। তারা তার অভিযোগ আমলে নেননি। ওই রাতে তারা যদি কার্যকর ভূমিকা নিতেন তাহলে পরদিনের তা ব হতো না।

তিনি বলেন, ভাঙ্গায় ৮৬ জায়গায় আক্রমণ হয়েছে। বাড়িঘর, দোকানপাট ভচঙচুর হয়েছে। তিনি বলেন, আমরা ৪৮টি অভিযোগ দিয়েছি। পুলিশ মাত্র ৭টি মামলা নিয়েছে। তিনি বলেন, ৩১ ডিসেম্বর সকালে যখন একের পর এক খবর আসতে থাকল নৌকার সমর্থকদের বাড়িঘরে হামলার তখন ডিসি, এসপি, ওসিকে পুনরায় জানিয়েও বিন্দুমাত্র ফল হয়নি।

অবশেষে ওইদিন সকাল সাড়ে ১০টায় আমি নেত্রী শেখ হাসিনাকে বিষয়টি জানাই। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পরই ডিসি-এসপি আমাদের ফোন করেছেন, এলাকায় ছুটে এসেছেন। হামলা-লুটপাটের নায়করা প্রকাশ্যে ঘুরলেও প্রশাসন ও পুলিশ এদের খুঁজে পায় না। যদি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রশাসন ও পুলিশ তাণ্ডব থামাতে আর আসামিদের গ্রেফতার করতে না পারে তাহলে আমরা নতুন কর্মসূচি দেব।

সম্পাদক/এসটি