প্রচ্ছদ বাংলাদেশ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন গাজীপুরের ৫ আসনের মধ্যে নৌকা ৪, ধানের শীষ ১ আসনে জয়লাভ করবে!

গাজীপুরের ৫ আসনের মধ্যে নৌকা ৪, ধানের শীষ ১ আসনে জয়লাভ করবে!

120
গাজীপুরের ৫ আসনের মধ্যে নৌকা ৪, ধানের শীষ ১ আসনে জয়লাভ করবে!

ঢাকার পার্শ্ববর্তী গাজীপুর জেলায় রয়েছে পাঁচটি আসন। এই আসনগুলোতে ঐতিহ্যগতভাবেই আওয়ামী লীগের আধিপত্য বেশি।

১৯৯১ ও ২০০১ সালের নির্বাচনকে আওয়ামী লীগের জন্য বিপর্যয়কর হিসেবে অভিহিত করা হয়। কিন্তু ওই দুই নির্বাচনেও গাজীপুরের আসনগুলোতে ভালো করেছিল আওয়ামী লীগ। তবে এবার গাজীপুরের সবগুলো আসনেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে। এই জেলার পাঁচ আসনের সামগ্রিক ঘটনা প্রবাহ এবং অতীত নির্বাচনের তথ্য উপাত্ত বিশ্লেষণ করে একটি পত্রিকা প্রেডিকশন করছে এখানে নৌকা ৪টি এবং ধানের শীষ ১টি আসন পেতে পারে।

গাজীপুর-১: গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈর উপজেলা এবং গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ১ থেকে ১৮ নং ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত এই আসন। এখান থেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়েছেন আ ক ম মোজাম্মেল হক। অন্যদিকে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন তানভীর আহমেদ সিদ্দিকী। বিএনপির নেতৃত্ব নিয়ে তাঁর সন্তান ইরাদ আহমেদ চৌধুরীর আপত্তিকর মন্তব্যের জের ধরে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল।

সম্প্রতি ওই বহিষ্কারাদেশ তুলে নেওয়া হয়। গাজীপুর-১ আসনের নির্বাচনী এলাকাগুলোতে তানভীর আহমেদের প্রভাব ও জনপ্রিয়তা রয়েছে। অন্যদিকে আ ক ম মোজাম্মেল হক সংসদ সদস্য হয়ে এলাকায় বদনাম কুড়িয়েছেন। দলেও তাকে নিয়ে বিভক্তি রয়েছে। একারণে বাংলা ইনসাইডারের প্রেডিকশন হলো, এবারের নির্বাচনে এই আসন থেকে ধানের শীষের তানভীর আহমেদ জয় পেতে যাচ্ছেন।

গাজীপুর-২: এই আসনটির নির্বাচনী এলাকায় রয়েছে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ৩৫টি ওয়ার্ড এবং গাজীপুর ক্যান্টনমেন্ট এলাকা। এই আসনে নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন জাহিদ আহসান। আর বিএনপি থেকে প্রার্থী হয়েছেন সালাহউদ্দিন সরকার। জাহিদ আহসান হলেন প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা আহসান উল্লাহ মাস্টারের ছেলে।

আহসান মাস্টারের প্রতি এলাকাবাসীর সম্মান এবং ভালোবাসা রয়েছে। তাছাড়া জাহিদ আহসান গত দুই মেয়াদে এই আসনের সাংসদ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এলাকেই তাঁর প্রভাব রয়েছে। একারণে আমাদের প্রেডিকশন হলো ধানের শীষ এখানে হেরে যাবে এবং নৌকা জয় পাবে।

গাজীপুর-৩: এই আসনটি জেলার শ্রীপুর উপজেলা এবং গাজীপুর সদর উপজেলার মির্জাপুর, ভাউয়ালগর ও পিরুজালী ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। এখান থেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইকবাল হোসেন। অন্যদিকে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের প্রার্থী হয়েছেন ইকবাল সিদ্দিকী। তবে বিএনপি ইতিমধ্যেই ইকবাল সিদ্দিকীকে প্রত্যাখ্যান করেছে। একারণে বাংলা ইনসাইডার মনে করছে এই আসনটি নৌকার দখলে যাবে।

গাজীপুর-৪: গাজীপুর-৪ আসনটি কাপাসিয়া উপজেলা নিয়ে গঠিত। এটি তাজউদ্দীন আহমেদের এলাকা। এখান থেকে বিএনপির প্রার্থী হয়েছেন শাহ রিয়াজুল হান্নান। অন্যদিকে নৌকার হয়ে লড়ছেন তাজউদ্দীন কন্যা সিমিন হোসেন রিমি। এলাকায় পারিবারিকভাবেই তাজউদ্দীন পরিবারের প্রভাব এবং জনপ্রিয়তা রয়েছে। একারণে বাংলা ইনসাইডারের প্রেডিকশন হলো, এই আসনটি এবারো নৌকার দখলেই থাকবে।

গাজীপুর-৫: এই আসনটি গাজীপুর সদর উপজেলার বাড়িয়া ইউনিয়ন, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের চারটি ওয়ার্ড এবং কালীগঞ্জ উপজেলা নিয়ে গঠিত। এখান থেকে নৌকার প্রার্থী মেহের আফরোজ চুমকির সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বিএনপির ফজলুল হক মিলন। মেহের আফরোজ চুমকি এই এলাকার বর্তমান সাংসদ।

দশম জাতীয় সংসদে মহিলা শিশু প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি শহীদ ময়েজউদ্দিন আহমেদের মেয়ে। এলাকায় ব্যাপক উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন চুমকি। একারণে নির্বাচনী এলাকায় তাঁর গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। একারণে আমাদের প্রেডিকশন হলো, নৌকার প্রার্থীই এই আসনে জয় পেতে যাচ্ছেন।

 সম্পাদক/এসটি