প্রচ্ছদ বাংলাদেশ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নির্বাচনে অযোগ্য মায়া, মনোনয়ন পেলেন নুরুল আমিন

নির্বাচনে অযোগ্য মায়া, মনোনয়ন পেলেন নুরুল আমিন

187
নির্বাচনে অযোগ্য মায়া, মনোনয়ন পেলেন নুরুল আমিন

ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার নামও উঠতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিতদের তালিকায়।

মায়ার আসন চাঁদপুর- ২-এ আওয়ামী লীগের আরেক নেতাকে মনোনয়ন দেওয়ায় তাঁর মনোনয়ন বঞ্চিত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে গেছে। জানা গেছে, খালেদা জিয়ার মতোই দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত থাকার কারণে নির্বাচনের অংশগ্রহণের সুযোগ হারাচ্ছেন তিনি।

গতকাল মঙ্গলবার বিচারিক আদালতের দেওয়া সাজা স্থগিত চেয়ে বিএনপির পাঁচ নেতার পৃথক আবেদন খারিজ করে হাইকোর্টের দেওয়া একটি রায়ে বলা হয়েছে, নিম্ন আদালতে দুই বছরের বেশি সাজা হলে আপিল বিচারাধীন থাকা অবস্থায় কোনো ব্যক্তি নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না। নির্বাচনের জন্য কারো দণ্ড স্থগিত করার ক্ষমতা হাইকোর্টের নেই। যে আদালতেই দণ্ড হোক না কেন যতক্ষণ পর্যন্ত না আপিল বিভাগ ওই রায় বাতিল বা স্থগিত করে ব্যক্তিকে জামিন দেন ততক্ষণ পর্যন্ত তিনি নির্বাচনে অংশগ্রহণের অযোগ্য হবেন।

এ প্রসঙ্গে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য উল্লেখ করেন। তিনি বলেছেন, আপিল ডিভিশন যদি দণ্ড স্থগিতও করে দেয় তারপরও দণ্ড শেষ হওয়ার পরবর্তী পাঁচ বছর পর্যন্ত দণ্ডভোগী ব্যক্তি নির্বাচন করতে পারবেন না। সংবিধানের ৬৬ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী এই আইন বহাল রয়েছে বলে জানিয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল। এর ফলে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবং দলটির একাধিক নেতা নির্বাচনে অংশগ্রহণের অযোগ্য বিবেচিত হবেন।

বিএনপি নেতাদের পাশাপাশি এই রায়ে কপাল পুড়তে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ নেতা মায়ারও। গত রোববার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়াকে চাঁদপুর ২ আসন থেকে মনোনয়ন দেওয়া হয়। কিন্তু তিনিও একটি দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত ছিলেন এবং দণ্ড নিয়েই এতদিন মন্ত্রিত্বের দায়িত্ব পালন করেছেন।

সম্প্রতি মায়া হাইকোর্টে দণ্ড স্থগিত করার আবেদন করলে সেটিও নাকচ করে দিয়ে তাঁকে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়। এ কথা মাথায় রেখেই আওয়ামী মায়ার বিকল্প খুঁজেছে।

যেহেতু দুর্নীতি মামলায় দণ্ডের কারণে খালেদা জিয়াসহ একাধিক বিএনপি নেতা একাদশ জাতী

ত্রাণমন্ত্রী মায়ার আসনে হঠাৎ মনোনয়ন পাওয়া কে এই নুরুল আমিন?

চাঁদপুর-২ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পান এ আসনের বর্তমান এমপি এবং ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া। কিন্তু মঙ্গলবার রাতে হঠাৎ করে বিকল্প প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে নুরুল আমিন রুহুলকে। মন্ত্রীর আসনে নতুন করে তার নাম ঘোষণার পর আলোচনা হচ্ছে কে এই নুরুল আমিন?

আওয়ামী লীগ সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগের সঙ্গে নুরুল আমিনের সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। ছাত্রলীগের রাজনীতি দিয়ে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে এসেছেন তিনি। অবিভক্ত ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন এই নুরুল আমিন। ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।

পরবর্তীতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার হাতে প্রথম করা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির ৭ সহ সম্পাদকের একজন ছিলেন এই নূরুল আমিন। বর্তমানে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

সম্পাদক/এসটি