প্রচ্ছদ রাজনীতি তারেকের কর্তৃত্বে শঙ্কিত ও ক্ষুব্ধ কামাল, ‘আমাকে ছেড়ে দিন’!

তারেকের কর্তৃত্বে শঙ্কিত ও ক্ষুব্ধ কামাল, ‘আমাকে ছেড়ে দিন’!

1447
তারেকের কর্তৃত্বে শঙ্কিত ও ক্ষুব্ধ কামাল, ‘আমাকে ছেড়ে দিন’!

বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ শুরু হয়েছে আজ। সকাল থেকেই রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাক্ষাৎকার নেওয়া হচ্ছে।

সাক্ষাৎকারের জন্য মনোনয়ন বোর্ডের প্যানেলে আছেন বিএনপির সিনিয়র নেতারা। তবে মূল সাক্ষাৎকার নিচ্ছেন তারেক জিয়া।

বিএনপি মনোনয়ন বোর্ডের সভায় দেখা গেছে, সিনিয়র নেতারা বসে আছেন, আর একটি দেয়ালে প্রজেক্টরের মাধ্যমে বড় পর্দায় দেখানো হচ্ছে তারেক জিয়ার সরাসরি ভিডিও। মনোনয়ন বোর্ডে থাকা ল্যাপটপের মাধ্যমে তারেক জিয়া সাক্ষাৎকার নিচ্ছেন মনোনয়ন প্রত্যাশীদের। আজ সকালেই ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ায় ছবি ও ভিডিওসহ তারেক জিয়ার সাক্ষাৎকার নেওয়ার বিষয়টি ফলাও করে প্রচার হয়।

মনোনয়ন প্রত্যাশীদের তারেক জিয়ার সাক্ষাৎকার গ্রহণে এরই মধ্যে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন। বিএনপির মনোনয়ন সাক্ষাৎকার গ্রহণ শুরুর কিছুক্ষণ পরই ড. কামাল হোসেন ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র ও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করেন। ঐক্যফ্রন্টের অন্যান্য শরিকদের পক্ষ থেকে তারেকের সাক্ষাৎকার গ্রহণের বিষয়টি নিয়ে অসন্তোষ জানান ড. কামাল।

ড. কামাল মির্জা ফখরুলকে বলেন, ‘আপনাদের সঙ্গে কথা ছিল, নির্বাচনের আগে তারেক জিয়াকে আপনারা আড়ালে রাখবেন। তারেকই যদি সবকিছু করে, তারেকই যদি মনোনয়ন দেয় তাহলে আর আমাকে কেন? আমাকে ছেড়ে দিন।’

জানা গেছে, ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে বিএনপির শর্ত ছিল, পুরো নির্বাচনী প্রক্রিয়ার মধ্যে তারেক জিয়া পুরোপুরি অনুপস্থিত থাকবেন। কারণ তারেক জিয়াকে নিয়ে জাতীয় ও অন্তর্জাতিক ভাবে অনেক আপত্তি আছে। সেই আপত্তির কারণেই ড. কামালকে সামনে আনা হয়েছিল।

তারেক মনোনয়নের সাক্ষাৎকার নেওয়ার বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসাহ তৈরি হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে, সাধারণ মানুষের মধ্যে বিএনপি নিয়ে নেতিবাচক মনোভাব সৃষ্টি হচ্ছে।

আজ সকালেই বাংলাদেশে অবস্থিত একাধিক দূতাবাস থেকে ড. কামালের কাছে ফোন করে তারেক জিয়ার সাক্ষাৎকার নেওয়ার বিষয়টি নিয়ে কথা বলা হয়েছে। দূতাবাসগুলো থেকে জানতে চাওয়া হয়েছে, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ড. কামাল নাকি তারেক জিয়া?

সম্পাদক/এসটি