প্রচ্ছদ প্রবাস যুক্তরাষ্ট্রে মাত্র ১২ জন নিয়ে এস কে সিনহার বই উদ্বোধন

যুক্তরাষ্ট্রে মাত্র ১২ জন নিয়ে এস কে সিনহার বই উদ্বোধন

203
যুক্তরাষ্ট্রে মাত্র ১২ জন নিয়ে এস কে সিনহার বই উদ্বোধন

বিবর্ণ, শ্রোতাহীন এক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বই ‘এ ব্রোকেন ড্রিম: রুল অব ল’, হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ডেমোক্রেসি’ এর উদ্বোধন হলো। অনেক মানুষের আসার কথা থাকলেও মোড়ক উন্মোচনে মাত্র ১২ জন নিয়েই অনুষ্ঠান করতে হলো সিনহাকে।

যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসির জাতীয় প্রেসক্লাবে স্থানীয় সময় গতকাল শনিবার বিচারপতি সিনহার বইয়ের উদ্বোধন আয়োজন করা হয়। অতিথি হিসেবে সেখানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত (১৯৯০-১৯৯৩) উইলিয়াম বি. মাইলাম। এছাড়া স্থানীয় পর্যায়ের হাতেগোনা কয়েকজন সাংবাদিক সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

বইয়ের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সিনহার বক্তব্য ছিল হাস্যকর। একজন সাবেক প্রধান বিচারপতি হয়েও তিনি যে কতটা প্রতিহিংসাপরায়ন তা নিজ বক্তব্যের প্রমাণ করেছেন সুরেন্দ্র কুমার সিনহা।

প্রধান বিচারপতির মতো পদে থেকে সুরেন্দ্র কুমার সিনহার এমন বক্তব্য লজ্জাজনক বলেই মন্তব্য বিশ্লেষকদের। উদ্বোধন অনুষ্ঠানের বক্তব্যে নিজ বক্তব্য ও বইয়ের ভাষার মধ্যে দিয়েই এটি যে পুরোপুরি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত তা স্পষ্ট করেছেন সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। একজন প্রধান বিচারপতির এমন রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতা সত্যিই হতাশাজনক বলে মত দেশের বিচার সংশ্লিষ্টদের।

সুরেন্দ্র কুমার সিনহা তাঁর বই নিয়ে যতটা আলোড়ন তুলতে পারবেন বলে আশা করেছিলেন উদ্বোধন অনুষ্ঠানের বিবর্ণতাই তা দুরাশা বলে প্রতীয়মান হয়েছে। বই নিয়ে সিনহার আলোচনায় থাকা আর হলো না।

বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান: যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছেন সিনহা

রাজনৈতিক আশ্রয় বিষয়ে সিনহা বলেন, এদেশে আমার কোনও স্ট্যাটাস নেই। আমি একজন শরণার্থী। আমি এখানে রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা করেছি কিন্তু এখনও এর কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। সিনহা দাবি করেন, তিনি লন্ডনের হাউস অব কমনস, জেনেভা এবং ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন থেকেও দাওয়াত পেয়েছেন। কিন্তু সিদ্ধান্ত না হওয়ার কারণে তিনি সেখানে যেতে পারছেন না।

সাবেক বিচারপতি যুক্তরাষ্ট্রে নিরাপদ বোধ করছেন না। তিনি বলেন, ‘আমি এত ভীত থাকি যে, আমি ২৪ ঘণ্টা বাসাতেই থাকি।’ তিনি দাবি করেন, সরকারি একটি গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তারা যুক্তরাষ্ট্রে আমার বাসা সব সময় মনিটরিং করে এবং যারা আমার বাসায় যায় তাদের ছবি তোলা হয়।

সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, এই সরকার ভারতের সমর্থন পায়। শুধু তাই না, ২০১৪-এর নির্বাচনের পরে ভারত যুক্তরাষ্ট্র এবং কয়েকটি ইউরোপিয়ান দেশকে বুঝিয়েছিল এই সরকারকে সমর্থন দেওয়ার জন্য।

নিচে বইয়ের উদ্বোধন অনুষ্ঠানের ভিডিওটি দেওয়া হলো :

যুক্তরাষ্ট্রে মাত্র ১২ জন নিয়ে এস কে সিনহার বই উদ্বোধন

সম্পাদক/এসটি