প্রচ্ছদ খেলা মেসির জার্সি পোড়ানোর ডাক: শাস্তি পেলেন ফিলিস্তিন ফুটবল সভাপতি

মেসির জার্সি পোড়ানোর ডাক: শাস্তি পেলেন ফিলিস্তিন ফুটবল সভাপতি

49
মেসির জার্সি পোড়ানোর ডাক: শাস্তি পেলেন ফিলিস্তিন ফুটবল সভাপতি

বিশ্বকাপের ঠিক আগে ইসরায়েলের জাতীয় দলের বিরুদ্ধে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা ছিল ফুটবল জগতের অন্যতম সেরা তারকা লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনার। কিন্তু ম্যাচের ভেন্যু আচমকা বদলে জেরুজালেম করা হয়।

স্বাভাবিকভাবেই এমন সিদ্ধান্ত ভালো চোখে দেখেনি ফিলিস্তিন। তখন ফিলিস্তিন ফুটবল সংস্থার সভাপতি জিব্রিল রাজোব এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করার জন্য অদ্ভুত এক পন্থা নিতে চেয়েছিলেন।

এ সময় তিনি দেশের মানুষকে তিনি আহ্বান জানান, মেসির জার্সি ও ছবি পুড়িয়ে প্রতিবাদ করতে। শুরু হয় আন্দোলন-প্রতিবাদ। ক্ষোভে ফেটে পড়ে ফিলিস্তিনিরা। জেরুজালেমে ম্যাচটি হলে তা পণ্ড করার সব রকম চেষ্টা হবে, মেসিদের নিরাপত্তা হুমকির মধ্যে পড়বে-এসব কথাও বলা হয়। পরে অবশ্য আর্জেন্টিনা ফুটবল সংস্থা ম্যাচটি স্থগিত করে। রাজোব সে সময় মেসির বিশালাকার ছবি পাশে রেখে সাংবাদিক সম্মেলন করেন। ধন্যবাদ জানান মেসি ও আর্জেন্টিনাকে। কিন্তু রাজোব ততদিনে ফিফার আচরণবিধি ভেঙে ফেলছেন।

ফিফার আচরণবিধি ভাঙার অপরাধে শেষমেশ শাস্তিও পেলেন তিনি। তার কথার মধ্যে উসকানি ছিল বলে মনে করে ফিফা। এক বিবৃতিতে ফিফা রাজোবের ঘটনাকে ‘ঘৃণা ও হিংসা ছড়ানোর মতো অপরাধ’ মতো অপরাধ বলে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। ফিফার আচরণবিধি-সংক্রান্ত কমিটি রাজোবকে এক বছরের জন্য ফিফা-সম্পর্কিত সব কাজ থেকে নিষিদ্ধ করেছে। পাশাপাশি ২০ হাজার ডলার জরিমানাও করা হয়েছে। নিষিদ্ধ থাকা অবস্থায় মাঠে গিয়ে অফিশিয়াল কোনও ম্যাচও দেখতে পারবেন না তিনি।

জামিন পেলেও অধিনায়কত্ব হারাচ্ছেন লরিস!

ফ্রান্সের বিশ্বকাপজয়ী দলের অধিনায়ক হুগো লরিসকে বৃহস্পতিবার গ্রেফতার করেছিল লন্ডনের পুলিশ। মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর অভিযোগে শুক্রবার পশ্চিম লন্ডন থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। যদিও গ্রেফতারের ৭ ঘণ্টা পর জামিনে মুক্তি পেয়েছেন টটেনহামের ৩১ বছর বয়সী এই অধিনায়ক। জানা গেছে, জামিন পেলেও তাকে ১১ সেপ্টেম্বর আদালতে হাজিরা দিতে হবে। শাস্তিও পেতে পারেন লরিস।

এদিকে, গোটা ঘটনায় প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ তার ক্লাব টটেনহ্যাম। সোমবার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সঙ্গে খেলা তাদের। তার আগে লরিস–কাণ্ডে বেশ বিব্রত টটেনহ্যাম। ঘটনাটা একেবারেই হালকা ভাবে নিচ্ছে না তারা। সম্ভবত লরিসের অধিনায়কত্ব কেড়ে নেওয়া হচ্ছে। দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে ইংল্যান্ড অধিনায়ক হ্যারি কেনকে। এমনিতে ভদ্র প্লেয়ার হিসেবেই ফুটবল দুনিয়ায় পরিচিত লরিস। কিন্তু বৃহস্পতিবার রাতের ঘটনায় তাঁর ফুটবল কেরিয়ারে নিশ্চিত ভাবেই কলঙ্ক লেগেছে। লজ্জিত লরিসও।

এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, ‘‌আমার পরিবার, ক্লাব, সতীর্থ, কোচ, সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চাইছি। মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানো একেবারেই অনুচিত। এর জন্য আমিই দায়ী। এটা উদাহরণযোগ্য কাজ নয়।’‌ ‌‌