প্রচ্ছদ স্বাস্থ্য জেনে নিন, ত্বকের ক্ষতি করে যে ৫ খাবার

জেনে নিন, ত্বকের ক্ষতি করে যে ৫ খাবার

77
জেনে নিন, ত্বকের ক্ষতি করে যে ৫ খাবার

নিয়মিত শরীরচর্চা ও সুষম খাদ্যের অভাবেও ত্বকে নানা সমস্যা হয়। আবার খাদ্যের ভিন্নতা ত্বকের মারাত্মক ক্ষতি সাধনে সাহায্য করে। এজন্য ত্বকের সুস্থতার জন্য খাদ্যাভ্যাসের ওপর বিশেষ নজর দেওয়া উচিত।

জেনে নিন, যেসব খাবার আপনার ত্বকের ক্ষতি সাধন করে:

১। তেলে ভাজা: সিঙ্গারা, চপ, পাকোড়া ইত্যাদি আমাদের ত্বকের কতটা ক্ষতি করে তা আমরা অনেকেই লক্ষ্য করি না। এগুলো বাদ দিন।

২। রিফাইন্ড শস্য: কেক, কুকি, ক্যান্ডি, পাস্তা ইত্যাদি দিনের পর দিন খেতে থাকলে ত্বকের ক্ষতি হয়। কারণ রিফাইন্ড শস্যতে ফাইবার ও অন্যান্য পুষ্টিগুণ থাকে না, এবং উচ্চ গ্লাইসেমিক ইনডেক্স থাকায় রক্তে শর্করার পরিমাণ বৃদ্ধি করে।

৩। বিভিন্ন মিষ্টি: সুন্দর ও উজ্জ্বল ত্বক পেতে জিলিপি ও বিভিন্ন মিষ্টি যেমন মিল্ক চকলেট, কেক, বিস্কুট, আইসক্রিম ইত্যাদি খাওয়া আজই বন্ধ করুন।বদলে র সুগার, মধু, তাজা ফল ইত্যাদি খান। সফট ড্রিঙ্কের বদলে ডাবের জল, লেবুর জল ইত্যাদি খেতে পারেন।

৪। দুগ্ধজাত খাদ্য: মাখন, ক্রিম, ঘি, চীজ ইত্যাদি খাওয়া বন্ধ করুন। বদলে সয় মিল্ক ও আমন্ড মিল্ক খেতে পারেন। এছাড়া দই খান, রায়তা, ছাঁচ ও খেতে পারেন।

৫। প্রসেসড ফুড; ত্বকের উজ্জ্বলতা রক্ষা করতে সসেজ, বেকন, স্টিক্স ইত্যাদি প্রসেসড ফুড খাওয়া আজই বন্ধ করুন। তাজা মাংস খান বদলে। প্যাকেটজাত স্যুপ, নুডলস ইত্যাদির বদলে সবসময় তাজা খাদ্য গ্রহণ করুন।

চুলের আগা ফাটা থেকে মুক্তি পেতে করণীয়

নারীর সৌন্দর্যের একটা বড় অংশই চুল। চুলের আকৃতি, রঙ বা যেকোন স্টাইল আপনার চেহারাকে করে তোলে অনেক বেশি আকর্ষণীয়। আর এই চুলই যদি নষ্ট হয়ে তাহলে কষ্টের পরিমাণটাও অনেক বেশি। আর চুল নষ্টের মূল কারণ হল চুলের আগা ফাটা। চুলের আগা ফাটার কারণে অঝোরে চুল পড়ে যায়, চুল কমে যায় এবং নিষ্প্রাণ হয়ে যায়। অনেক কারণেই চুল ফাটতে পারে। পুষ্টির অভাব, চুলের অযত্ন এছাড়া অনেক সময়য় চুলে হিটিং প্রসেসের কারণেও চুল ফাটে। তাই জেনে নিন আগা ফাটা রোধ করার কয়েকটি ঘরোয়া টিপস।

১. চুলের আগা ফাটা রোধে সবার আগে হেয়ার ট্রিম করুন। এতে চুল তাড়াতাড়ি বাড়বে। ২. চুলের আগা ফাটা এড়াতে অবশ্যই শ্যাম্পু করার পরে কন্ডিশনার ব্যবহার করুন। এতে চুল কম ড্যামেজ হবে।

৩. সপ্তাহে তিনবার শ্যাম্পু করুন। দরকার না পড়লে শ্যাম্পু করবেন না। এতে চুল শুষ্ক হয় এবং আগা ফাটার সমস্যা হয়। ৪. গরম পানি দিয়ে চুল ধোবেন না। ঠান্ডা পানি ব্যবহার করুন। চুলে বেশি হেয়ার ড্রায়ারও ব্যবহার করবেন না।

৫. সপ্তাহে একদিন হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করুন। ডিম, নারকেল তেল, মধু, অলিভ অয়েল দিয়ে একটি মাস্ক ব্যবহার করুন।

৬. আস্তে আস্তে চুল আঁচড়ান। না হলে চুলের আগা ফাটার ভয় থাকে। ৭. ভেজা চুল তোয়ালে দিয়ে জোরে মুছবেন না। এতেও চুলের আগা ফাটার সমস্যা হতে পারে।