প্রচ্ছদ বাংলাদেশ জেলা কক্সবাজারে থেমে নেই ইয়াবা: র‌্যাবের প্রেস বিজ্ঞপ্তি

কক্সবাজারে থেমে নেই ইয়াবা: র‌্যাবের প্রেস বিজ্ঞপ্তি

81
কক্সবাজারে থেমে নেই ইয়াবা: র‌্যাবের প্রেস বিজ্ঞপ্তি
আটক হওয়া সেই নাইটং পাড়ার কিশোর ইয়াবাব্যক্তি মো. আক্তার।

বিশেষ প্রতিনিধি: দুইটা থেকে বাড়িয়ে রাষ্ট্রীয় সিদ্ধান্তে কক্সবাজারে ৭ টি ক্যাম্প করা হয়েছে র‌্যাবের। দেশের সর্বাধুনিক এ আইন প্রয়োগকারি সংস্থার সদস্যরা দেশের দক্ষিণ-পূবাঞ্চলীয় জেলা কক্সবাজাররে দিনরাত কাজ করে চলছেন।

মাদকের বিষয়ে কঠোর অবস্থানে রয়েছে রাষ্ট্র। শুধূমাত্র মাদক নিয়ন্ত্রণের খাতিরেই কক্সবাজারে এ অতিরিক্ত ৫ ক্যাম্প। এসবের ভেতরেও ইয়াবা কারবারিরা চরম ঝুঁকি নিয়ে মাদকের অন্ধকার পৃথিবীতে বসবাস আটুট রেখেছে। সম্প্রতি ঢাকায় কক্সবাজার থেকে বিকল্প উপায়ে যাওয়া সবচেয়ে বড়ো একটি ইয়াবার ডেরার সন্ধান পেয়েছেন র‌্যাব। মহেশখালীর মেয়র মকছুদ মিয়ার পুত্রসহ আটক হওয়া এ সিন্ডিকের ৫ সদস্য নিয়ে জেলাজুড়ে যখন বড়ো মাপের তোলপাড় চলছে -ঠিক তখনই কক্সবাজার শহরতলীর আদূরে র‌্যাবের অভিযানে ৭,৮৩৭ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ১ জন মাদক ব্যবসায়ী আটক হয়েছে। একটু আগে র‌্যাবের তরফ থেকে সম্পাদক ডট কমের কাছে এ সংক্রান্ত একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি পাঠানো হয়েছে। সহযোগী গণমাধ্যমগুলোর জন্য নিউজ সোর্সের সুবিধার্থে র‌্যাবের সিনিয়র সহকারী পরিচালক মিমতানুর রহমান, পিপিএম স্বাক্ষরিত সে প্রেস বিজ্ঞপ্তিটি হুবহু তুলে ধরা হলো:

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। অধিনায়কের কার্যালয়, র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-৭, পতেঙ্গা, চট্টগ্রাম।
স্মারক নং-৭৩১৬/অপস্/(প্রেস)/র‌্যাব-৭/০১ তারিখঃ ০৪ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ ১৯ আগস্ট ২০১৮ খ্রিস্টাব্দ।
প্রতি, সম্পাদক/ব্যুরো চীফ/ষ্টাফ রিপোর্টার/রিপোর্টার/প্রতিনিধি, সকল পত্রিকা/টিভি চ্যানেল/মিডিয়া

প্রেস বিজ্ঞপ্তি: কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানাধীন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৭,৮৩৭ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব-৭।

১। বর্তমানে আমাদের দেশের যুব সমাজের অধঃপতনের অন্যতম কারণ হচ্ছে মাদকাসক্তি। মাদকাসক্তির ভয়াল থাবা প্রতিনিয়ত আমাদের সমাজকে ধ্বংস করে ফেলছে। দেশব্যাপী মাদকদ্রব্যের বিস্তাররোধ এবং দেশের যুব সমাজকে মাদকের ভয়াল থাবা থেকে রক্ষার জন্য প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে র‌্যাবের মাদক বিরোধী অভিযান দেশের সর্বস্তরের জনসাধারণ কর্তৃক বিশেষভাবে প্রশংসিত হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম এ বৎসর ০১ জানুয়ারি ২০১৭ হতে অদ্য ১৮ আগস্ট ২০১৮ ইং তারিখ পর্যন্ত সর্বমোট ৪৭০ টি বিভিন্ন ধরনের অস্ত্রসহ মোট ৫৫ টি ম্যাগাজিন এবং ৫,৭৮১ রাউন্ড বিভিন্ন ধরনের গুলি/কার্তুজ উদ্ধারের পাশাপাশি ৯২ লক্ষ ৯০ হাজার ২৭০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৫০ হাজার ৭০৯ বোতল ফেন্সিডিল, ৯,০৮০ বোতল বিদেশী মদ ও বিয়ার, ০৮ লক্ষ ০৬ হাজার ৯৮৬ লিটার দেশীয় তৈরী মদ, ১,০৪১ কেজি ৩৩৮ গ্রাম গাঁজা, ৪১২ গ্রাম হেরোইন এবং ৭ কেজি ৬৫০ গ্রাম আফিম উদ্ধার করেছে।

২। এরই ধারাবাহিকতায়, র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানাধীন নাইটং পাড়া (টেকনাফ পৌরসভা ০১ নং ওয়ার্ড নূর আহম্মদ ঘোনা) এলাকায় কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী ইয়াবা ট্যাবলেট ক্রয় বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে গত ১৮ আগস্ট ২০১৮ ইং তারিখ ২২২৫ ঘটিকার সময় মেজর মেহেদী হাসান এর নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল বর্ণিত স্থানে অভিযান পরিচালনা করলে র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টাকালে আসামী মোঃ আক্তার (১৮), পিতা-ইমাম হোসাইন, গ্রাম- নাইটং পাড়া (টেকনাফ পৌরসভা ০১ নং ওয়ার্ড নূর আহম্মদ ঘোনা), থানা- টেকনাফ, জেলা- কক্সবাজার’কে আটক করে। পরবর্তী উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামীর হাতে থাকা ব্যাগ তল্লাশি করে ৭,৮৩৭ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ আসামীকে গ্রেফতার করা হয় এবং আসামীর দেহ তল্লাশি করে ০২ টি মোবাইল সেট ও ০১ টি সিম কার্ড জব্দ করা হয়। জানা যায়, গ্রেফতারকৃত আসামী দীর্ঘদিন যাবত টেকনাফসহ কক্সবাজারের বিভিন্ন এলাকায় ইয়াবা ট্যাবলেট ক্রয় বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেটের আনুমানিক মূল্য ৩৯ লক্ষ ১৮ হাজার ৫০০ টাকা।

৩। গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত মালামাল সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

মিমতানুর রহমান, পিপিএম, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার, সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া), পক্ষে অধিনায়ক।